বিপদ পিছু ছাড়ছে না শিল্পা ও রাজ কুন্দ্রার

আগের সংবাদ

টমেটোর দাম কত জানেন না রানী!

পরের সংবাদ

হোয়াটসঅ্যাপের নতুন ফাঁদ হ্যাকারদের, সাবধান!

প্রকাশিত: নভেম্বর ১৪, ২০২১ , ১:০৮ অপরাহ্ণ আপডেট: নভেম্বর ১৪, ২০২১ , ১:০৮ অপরাহ্ণ

হোয়াটসঅ্যাপ অ্যাকাউন্ট হ্যাকের জন্য প্রায়ই ফাঁদ পেতে রাখে হ্যাকাররা। সামান্য অসতর্কতার কারণে আপনার সামনে আসতে পারে বড় বিপদ। প্রকৃতপক্ষে হোয়াটসঅ্যাপের ব্যাপক জনপ্রিয়তার কারণে একে প্রতারণার হাতিয়ার হিসেবে বেছে নেন হ্যাকাররা। তবে সাম্প্রতিক সময়ে ‘ফ্রেন্ড ইন নিড’ কেলেঙ্কারি সবচেয়ে বেশি আতঙ্ক সৃষ্টি করেছে। বন্ধু বা কাছের মানুষের ছদ্মবেশে ব্যবহারকারীর কাছ থেকে হাতিয়ে নেয়া হচ্ছে টাকা। খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

জানা গেছে, হোয়াটসঅ্যাপ ব্যবহারকারীরা তাদের বন্ধু বা কাছের মানুষের কাছ থেকে তারা আকস্মিক আর্থিক সমস্যায় পড়েছেন এমন মেসেজ পাচ্ছেন। আর বিপদে তো কাছের মানুষেরাই থাকে। তাই সাহায্য করতে একাধিকবার ভাবেন না ব্যবহারকারী। এতেই হ্যাকাররা ফায়দা লুটে নেয়।

যুক্তরাজ্যে এ প্রতারণার সমস্যা ব্যাপক আকারে ছড়িয়ে পড়েছে। টনি পার্কার নামে ৫৩ বছর বয়সী নার্স জানিয়েছেন, হঠাৎ করে ছেলের কাছ থেকে মেসেজ পান তিনি। সেই মেসেজে ছেলে জানিয়েছিল, সে প্রচণ্ড আর্থিক সমস্যায় আক্রান্ত। তৎক্ষণাৎ ছেলেকে পাঠিয়ে দেন আড়াই হাজার ডলার।

জরিপে দেখা গেছে, যুক্তরাজ্যের ৫৯ শতাংশ ব্যবহারকারী এমন মেসেজ পেয়েছেন। কখনো কখনো হ্যাকাররা শুধু নগদ টাকাই চায় না, দাবি করে অনলাইন ব্যাংকিংয়ের ছয় সংখ্যার পিন কোডও।

সাইবার নিরাপত্তা বিশেষজ্ঞরা মনে করছেন, কারও অ্যাকাউন্ট হ্যাক করে এমন মেসেজ পাঠানো হচ্ছে। বেশিরভাগ ক্ষেত্রে হারিয়ে যাওয়া ফোনকেই এ কাজে লাগানো হচ্ছে। সে কারণে এমন মেসেজ পেলে সঙ্গে সঙ্গে টাকা না পাঠিয়ে আগে একবার কাছের মানুষকে ফোন করে নেয়া উচিত। এর মাধ্যমে হ্যাকারদের চক্রান্ত ধরা পড়বে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়