গণতান্ত্রিক সরকার ক্ষমতায় আনতে হবে: নজরুল ইসলাম

আগের সংবাদ

ভুয়া আইডি থেকে মসজিদ পোড়ানোর গুজব: ভারতীয় হাইকমিশন

পরের সংবাদ

খেলার মাঠে ধর্মকে টেনে আনার জন্য ক্ষমা চাইলেন ওয়াকার ইউনুস

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৮, ২০২১ , ২:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২৮, ২০২১ , ৩:৪০ অপরাহ্ণ

পাকিস্তানের প্রাক্তন ক্রিকেটার ওয়াকার ইউনুস শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চাইলেন। নিজের মন্তব্যের জন্য সামাজিক মাধ্যমে সকলের কাছে ক্ষমা চেয়ে নিজের ভুল শোধরাতে চাইলেন ওয়াকার। তার মতে খেলার মাঠে ধর্মকে টেনে এনে তিনি ভুল করেছেন। মঙ্গলবার গভীর রাতে নিজের ভুল বুঝতে পারেন ওয়াকার। এদিন তিনি নিজের টুইটারে লেখেন, মুহূর্তের ভুলে একটা মন্তব্য করে ফেলেছি। কিন্তু তাতে কারও মনে আঘাত দিতে চাইনি। এই অনিচ্ছাকৃত ভুলের জন্য আমি ক্ষমাপ্রার্থী। জাতি-ধর্ম-বর্ণের ঊর্ধ্বে গিয়ে খেলার জগৎ সকলকে এক সুতোয় বাঁধে। খবর হিন্দুস্তান টাইমস বাংলা

আসলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ভারতের বিরুদ্ধে ম্যাচে পানি পানের বিরতির সময় নামাজ পড়েছিলেন রিজওয়ান। এই ভিডিও দেখার পরই ওয়াকার ইউনিস মন্তব্য করেছিলেন যে, এই মুহূর্তটা তার কাছে ভীষণ গুরুত্বপূর্ণ। একটি টিভি চ্যানেলে প্রাক্তন পাক ক্রিকেটার শোয়েব আখতার এবং সঞ্চালকের মধ্যে কথোপকথনের সময় ওয়াকার ইউনুস একটি বিতর্কিত মন্তব্য করে বসেন। তিনি বলেন, হিন্দুদের মাঝে মোহম্মদ রিজওয়ানের নামাজ পড়ার ঘটনাটা সব থেকে সন্তোষজনক মুহূর্ত। আমার দারুণ লেগেছে।

এই মন্তব্য মুহূর্তে ভাইরাল হয়ে যায়। দানা বাঁধে বিতর্ক। এরপরই মেজাজ হারান ধারা ভাষ্যকার হর্ষ ভোগলেও। তীব্র আক্রমণ করেন ওয়াকারকে। তিনি বলেন, ইদানিংকালে এর থেকে হতাশাজনক মন্তব্য কখনও শোনেননি।

হর্ষ ভোগলে টুইটারে লেখেন, ওয়াকারের মতো একজন কিংবদন্তি ক্রিকেটার বলছেন, হিন্দুদের মাঝে রিজওয়ানের নামাজ পড়ার মুহূর্ত তার কাছে অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। এর থেকে হতাশাজনক মন্তব্য আমি আগে শুনিনি। আমরা সবাই এই ধরনের মন্তব্য এড়িয়ে গিয়ে ক্রীড়া সম্পর্কিত আলোচনাকেই বেশি গুরুত্ব দেই। এই ধরনের মন্তব্য ভয়ংকর। এরপরেই এই বিতর্কিত মন্তব্যের জন্য ওয়াকারের কাছ থেকে ক্ষমা চাওয়ার দাবিও তোলেন হর্ষ ভোগলে। শেষ পর্যন্ত ক্ষমা চাইলেন ওয়াকার।

ডি-এফবি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়