খালেদা জিয়ার শারীরিক অবস্থা স্থিতিশীল

আগের সংবাদ

ঝুঁকিপূর্ণ দেশগুলো বাঁচাতে প্যারিস চুক্তির বাস্তবায়ন জরুরি: স্পিকার

পরের সংবাদ

লড়াই করেই হারল কিউইরা

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৬, ২০২১ , ১১:৩৬ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২৬, ২০২১ , ১১:৪৬ অপরাহ্ণ

নিউজিল্যান্ডের ছুড়ে দেয়া চ্যালেজ্ঞের জবাব দিতে গিয়ে শুরুতেই অধিনায়ক বাবর আজমের উইকেট হারায় পাকিস্তান। ৯ রানে বাবর সাজ ঘরে ফিরে গেলে নিয়মিত বিরতিতে উইকেট হারাতে থাকে পাকিস্তান। ৮৭ রানে ৫ উইকেট হারিয়ে দল চাপে পড়লে ষষ্ঠ উইকেটে আসিফ আলীকে নিয়ে জুটি গড়েন অভিঞ্জ সোয়েব মালিক। এ জুটি কিউই বোলারদের বেধক পিটিয়ে পাকিস্তানের জয় নিশ্চিত করেন।

সোয়েব মালিক ২০ বলে ২৭ রানে অপরাজিত থাকেন। আসিফ আলী ১২ বলে ২৭ রানের অপরাজিত থাকে। নিউজিল্যান্ডকে ৫ উইকেটে হারিয়ে টানা দুই ম্যাচ জেতায় পাকিস্তানের সেমিফাইনাল প্রায় নিশ্চিত। কারণ পরবর্তী ম্যাচে বাবর আজমরা আফগানিস্তান, স্কটল্যান্ড এবং নামিবিয়ার মোকাবিলা করবে। মঙ্গলবার কিউইরা পাকিস্তানের ৫ উইকেট তুলে নিয়ে এক পর্যায়ে ম্যাচের নিয়ন্ত্রন প্রায় নিয়েই ফেলেছিল। আসিফ আলীর তিন ছক্কা তাদের সে স্বপ্ন ভেঙে চুরমার করে দেয়।

পাকিস্তানের বিপক্ষে দীর্ঘ ১৮ বছর পর গত মাসে সিরিজ খেলতে গিয়ে ম্যাচ শুরুর আগে মাঠ থেকে ফিরে আসে নিউজিল্যান্ড ক্রিকেট দল। সে অপমানের জবাব বিশ্বকাপের মঞ্চে দেবেন সে হুশিয়ারি আগেই দিয়ে রেখেছিলেন বাবর আজমরা। শারজায় মঙ্গলবার টসে হেরে ব্যাট করতে নেমে পাকিস্তানি বোলারদের তোপের মুখে পড়ে কিউই ব্যাটসম্যানরা। নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৮ উইকেট হারিয়ে শেষ পর্যন্ত ১৩৪ রান তুলতে সক্ষম হয় উইলিয়ামসনরা। আগের ম্যাচে ভারতকে হারিয়ে ফুরফুরে মেজাজে থাকা বাবর-রিজওয়ানদের জয়ের জন্য ১৩৫ রান কঠিন কোনো লক্ষ্য নয়। কিউই ব্যাটসম্যানদের মধ্য সর্বোচ্চ ২৭ রানের ইনিংস খেলেন কনওয়ে। পাকিস্তানি বোলারদের মধ্য সবচেয়ে সফল হ্যারিস রউফ ২২ রানের বিনিময়ে তুলে নেন ৪ উইকেট।

এর আগে শারজায় টসে জিতে ফিল্ডিংয়ের সিদ্ধান্ত নেয় পাকিস্তান অধিনায়ক বাবর আজম। প্রথমে ব্যাটিংয়ে নেমে চাপে পড়ে নিউজিল্যান্ডের ক্রিকেটাররা। দলের খাতায় ৫৬ রান তুলতে হারিয়ে বসে তিন ব্যাটসম্যানকে। ব্যাটিংয়ে নেমে শুরুটা ভালো করলেও নিজেদের মেলে ধরে খেলতে পারেননি দুই কিউই ওপেনার মার্টিন গাপটিল ও ড্যারেল মিচেল। দুই জনের ওপেনিং জুটিতে আসে ৩৬ রান। গাপটিল ২০ বলে ১৭ রান তুলে হ্যারিস রউফের শিকার হয়ে মাঠ ছাড়েন। আক্রমণাত্মক ভঙ্গিতে খেলা আরেক ওপেনার ২০ বলে ২৭ রানে করে ইমাদ ওয়াসিমের শিকার হয়ে সাজঘরে ফেরান।

এরপর দলের খাতায় ২ রান না যোগ করতে ব্যক্তিগত ১ রানে ফিরে যান জিমি নিশাম। এরপর অবশ্য ডেবন কনওয়েকে নিয়ে ম্যাচের হাল ধরার চেষ্টা করেন কেন উইলিয়ামসন। কিন্তু দলের স্কোর যখন ১৩.১ ওভারে ৯০ রান, তখন রান আউটের শিকার হয়ে মাঠ ছাড়েন উইলিয়ামসন। বল না দেখেই রানের জন্য দৌঁড়াতে গেলে বোলার হাসান আলী ডিরেক্ট থ্রোতে তাকে সাজঘরের পথ দেখান। মাঠ ছাড়ার আগে কিউই অধিনায়ক ১ বাউন্ডারি ও ২ বাউন্ডারির সাহায্য ২৬ বলে ২৫ রান সংগ্রহ করেন।

৯০ রানে ৪ উইকেট হারিয়ে দিশেহারা হয়ে পড়া কিউইদের হাল ধরেন কনওয়ে ও গ্লেন ফিলিপস। একপ্রান্ত ধরে রাখা কনওয়ে ইনিংসের ১৭.১ ওভারে হ্যারিসের বলে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে বাবর আজমের ক্যাচ বন্দি হন। একই ওভারের তৃতীয় বলে বাউন্ডারি হাঁকাতে গিয়ে ক্যাচবন্দি হন ফিলিপসও। দলীয় ১১৬ রানে ৬ উইকেট হারানো কিউরা শেষ পর্যন্ত ইনিংস খুব বেশি লম্বা করতে পারেনি। শেষ পর্যন্ত ৮ উইকেট হারিয়ে ১৩৪ রানে থামে ব্ল্যাক ক্যাপসদের ইনিংস।

এর আগে চিরপ্রতিদ্বন্দ্বী ভারতের বিপক্ষে দুবাই আন্তর্জাতিক স্টেডিয়ামে ১০ উইকেটের বড় জয় তুলে বিশ্বকাপে ফেবারিটের জোর দাবিদার পাকিস্তান। ম্যাচটিতে ১৫২ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে দুই ওপেনার মোহাম্মদ রিজওয়ান ৫৫ বলে ৭৯ এবং বাবর আজম ৫২ বলে ৬৮ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলেন। টি-টোয়েন্টির সেরা বোলার বুমরাহ, জাদেজারা এদিন বিরাট কোহলির মুখে হাঁসি ফোটাসে পারেননি।

রি-এসএস/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়