টস জিতে ফিল্ডিংয়ে দক্ষিণ আফ্রিকা

আগের সংবাদ

সাম্প্রদায়িক হামলার প্রতিবাদ সমাবেশে মির্জা ফখরুল

পরের সংবাদ

মণ্ডপে হামলার পেছনে খুব পরিচিত নামও আসছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত: অক্টোবর ২৬, ২০২১ , ৩:৪৫ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২৬, ২০২১ , ৩:৪৮ অপরাহ্ণ

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খাঁন কামাল বলেছেন, দেশের বিভিন্ন স্থানে পূজামণ্ডপে হামলার ঘটনায় গ্রেপ্তার ব্যক্তিদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়েছে। জিজ্ঞাসাবাদে তারা কিছু নাম বলেছেন। আরও নিশ্চিত হয়ে শিগগিরই তা জানানো হবে।

নোয়াখালীর ঘটনা প্রসঙ্গে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, এমন নামও শুনবেন, যারা আপনাদের খুবই পরিচিত ব্যক্তি। তবে অপরাধী অপরাধীই। তাদের কোনো ছাড় নেই।

মঙ্গলবার (২৬ অক্টোবর) সচিবালয়ে বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরাম আয়োজিত এক সংলাপে অংশ নিয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, রংপুর ও নোয়াখালীর ঘটনায় ইন্ধনদাতাদের নাম বলেছে গ্রেফতারকৃতরা। ১৬৪ ধারায় দেওয়া জবানবন্দিতে তারা এসব নাম জানিয়েছেন। তবে আমরা শতভাগ নিশ্চিত হয়ে আপনাদের সামনে নাম প্রকাশ করবো। সেখানে বিএনপি-জামায়াত আছে কিনা সেটা এখই বলতে চাচ্ছি না। আমরা নিশ্চিত হয়েই আপনাদের জানাতে চাই।

তিনি বলেন, এ সহিংসতা সুপরিকল্পিতভাবে দেশকে অস্থিতিশীল করতেই সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি বিনষ্ট করেছে একটি মহল। ঘটনায় গ্রেফতারকৃতদের ১৬৪ ধারায় জবানবন্দি নেওয়া হয়েছে। অনেকের নাম জানা গেছে। খুব শিগগিরই কারা এসব ঘটিয়েছে তা উদঘাটন করা সম্ভব হবে।

আধিপত্য বিস্তার, মাদকসহ কিছু বিষয় নিয়ে রোহিঙ্গাদের মধ্যে অশান্তি বিরাজ করছে বলে মন্তব্য করেন আসাদুজ্জামান খান।

রংপুর ও কুমিল্লার ঘটনায় আটকদের বেশিরভাগই বিএনপি ও জামায়াতের সঙ্গে জড়িত এ বিষয়ে আপনার মন্তব্য কী জানতে চাইলে স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, দেখুন আমি এখনও খোলাসা করে বলেনি বিএনপি না জামায়াত। আমি বলেছি আমরা নাম পাচ্ছি। আমরা আরও নিশ্চিত হয়ে বলতে চাই। এমন কিছু বলতে চাই না যা সঠিক নয়। একদম সঠিক হয়ে আমরা জানাবো।

সম্প্রীতি বিনষ্টের এসব ঘটনায় স্থানীয় পর্যায়ের আওয়ামী লীগ নেতাকর্মীদেরও নাম আসছে এ বিষয়টি আপনি কীভাবে দেখছেন এমন প্রশ্নেন জবাবে তিনি বলেন, আমরা কোনো অপরাধীকে ছাড় দেই না। সে জনপ্রতিনিধি হোক বা অনেক গুরুত্বপূর্ণ ব্যক্তি হোক আমরা কাউকে ছাড় দেই না। আমরা যেখানেই এ রকম কারো সম্পৃক্ততা পেয়েছি তাকে আইনের আওতায় আনা হয়েছে। এখানে যাদের নাম এসেছে তারা যদি জড়িত থাকে তাহলে ছাড় পাবে এমন কোনো কথা এখানে আসাই উচিত না। যারা এ অপকর্ম করবে তাদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা আমরা অবশ্যই নেব।

সংলাপে আরও বক্তব্য দেন বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি তপন বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

আধিপত্য বিস্তার, মাদকসহ কিছু বিষয় নিয়ে রোহিঙ্গাদের মধ্যে অশান্তি বিরাজ করছে বলে উল্লেখ করেন আসাদুজ্জামান খান।

সংলাপে আরও বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ সেক্রেটারিয়েট রিপোর্টার্স ফোরামের সভাপতি তপন বিশ্বাস ও সাধারণ সম্পাদক মাসউদুল হক।

এ পর্যন্ত পূজামণ্ডপ-মন্দির ও হিন্দু সম্প্রদায়ের লোকজনের বাড়িতে হামলার ঘটনায় চার জেলায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য রিমান্ডে নেওয়া হয়েছে ৩৬ জনকে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়