জাপানে থাকা তৃতীয় সন্তানকে দেশে ফেরাতে বাবার রিট

আগের সংবাদ

শক্তিশালী বিরোধী দলের প্রত্যাশা পূরণে ব্যর্থ বিএনপি: কাদের

পরের সংবাদ

অবসরেই যাচ্ছেন ডিএমপি কমিশনার শফিকুল ইসলাম

প্রকাশিত: অক্টোবর ২১, ২০২১ , ২:১৯ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ২১, ২০২১ , ২:২০ অপরাহ্ণ

সকল জল্পনার অবসান ঘটিয়ে মেয়াদ বাড়ানোর গুঞ্জন উড়িয়ে দিয়ে অবসরে যাচ্ছেন ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশের (ডিএমপি) কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম।

বৃহস্পতিবার (২১ অক্টোবর) সকালে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগ থেকে এ সংক্রান্ত একটি আদেশ জারি করা হয়।

আদেশে আগামী ২৯ অক্টোবর থেকে তাকে অবসর প্রদান করার কথা উল্লেখ করা হয়েছে। নতুন কমিশনার কে হচ্ছেন আজকালের মধ্যেই তা নিশ্চিত হওয়া যাবে বলে জানা গেছে।

দায়িত্বশীল সূত্র জানায়, ডিএমপি কমিশনার হওয়ার তালিকায় পুলিশ সদর দফতরের অতিরিক্ত আইজিপি এস. এম রুহুল আমিন, পুলিশ সদর দফতরের অতিরিক্ত আইজিপি (ক্রাইম অ্যান্ড অপারেশন্স) এম খুরশীদ হোসেন, বাংলাদেশ পুলিশ একাডেমির (সারদা, রাজশাহী) প্রিন্সিপাল খন্দকার গোলাম ফারুকসহ বেশ কয়েকজনের নাম শোনা যাচ্ছে। তবে দুই-একদিনের মধ্যেই সব স্পষ্ট হবে।

ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম ২০১৯ সালের ১৪ সেপ্টেম্বর ডিএমপি কমিশনার হিসেবে দায়িত্ব নিয়েছিলেন। এর আগে তিনি সিআইডি প্রধানের দায়িত্ব পালন করেন। সম্প্রতি দেশের বিভিন্ন স্থানে হামলার ঘটনার কারণে তার চাকরির মেয়াদ বাড়ানোর গুঞ্জন ওঠে। অবশেষে সময়মতোই তাকে অবসরে পাঠানো হলো।

তিনি অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার এবং পুলিশ কমিশনার হিসেবে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশে গুরুত্বপূর্ণ অবদান রাখেন। তিনি অত্যন্ত দক্ষতা ও সুনামের সঙ্গে ডিআইজি, চট্টগ্রাম রেঞ্জ এবং ঢাকা রেঞ্জের ডিআইজি হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

২০১৭ সালের ১৯ সেপ্টেম্বর তিনি পদন্নোতি প্রাপ্ত হয়ে অ্যাডিশনাল আইজিপি হিসেবে এন্টি টেররিজম ইউনিট, ঢাকায় যোগদান করেন। ২০১৮ সালের ২০ নভেম্বর অ্যাডিশনাল আইজিপি হিসেবে পুলিশ হেডকোয়ার্টাসে এবং সর্বশেষ তিনি ২০১৯ সালের ১৬ মে অপরাধ তদন্ত বিভাগে (সিআইডি) প্রধান হিসেবে যোগদান করেন।

শফিকুল ইসলাম ৮ম বিসিএসের মাধ্যমে বাংলাদেশ পুলিশে যোগদান করেন। কর্মজীবনের শুরুতে তিনি এএসপি হিসেবে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ, খাগড়াছড়ি জেলা ও মৌলভীবাজার জেলায় সুনামের সঙ্গে দায়িত্ব পালন করেন।

পদোন্নতিক্রমে অতিরিক্ত পুলিশ সুপার পদে খাগড়াছড়ি জেলা ও ঢাকা মেট্রোপলিটন পুলিশে কৃতিত্বের স্বাক্ষর রাখেন। এরপর তিনি পুলিশ সুপার হিসেবে ৭ এপিবিএন-পটুয়াখালী জেলা, ২ এপিবিএন-সুনামগঞ্জ জেলা, কুমিল্লা জেলায় দায়িত্ব পালন করেন।

ডি-ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়