শেখ রাসেল একটি আদর্শ ও ভালোবাসার নাম: অর্থমন্ত্রী

আগের সংবাদ

ফেনীর মন্দিরে হামলা পরিকল্পিত: চট্টগ্রামের ডিআইজি

পরের সংবাদ

সাম্প্রদায়িক অস্থিরতা নিয়ে তারকাদের উদ্বেগ

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৮, ২০২১ , ৬:০৫ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১৮, ২০২১ , ৬:০৮ অপরাহ্ণ

রাজপথ থেকে ফেসবুক সবখানেই সরব সাম্প্রদায়িক সহিংসতার বিরোধীরা। দেশে চলমান সাম্প্রদায়িক অস্থিরতা নিয়ে উদ্বেগ প্রকাশ করেছেন সাংস্কৃতিক অঙ্গনের অনেক তারকাই। নিজেদের ফেসবুক পেজে তারা স্ট্যাটাস লিখে দেশের চলমান ঘটনার নিন্দাও প্রকাশ করেছেন। অভিনেত্রী ও সংসদ সদস্য সুবর্ণা মুস্তাফা। রবিবার (১৮ অক্টোবর) রাতে নিজের ভেরিফায়েড ফেসবুক অ্যাকাউন্টে লেখা এক স্ট্যাটাসে তিনি জানান, সহনশীল হওয়ার দিন শেষ।

স্ট্যাটাসে তিনি লেখেন, ‘গত কয়েক দিন ধরে এক বিশ্রী অনুভ‚তির মধ্যে বসবাস করছি। গ্লানি, দুঃখ, ক্ষোভ সব কিছু মিলেমিশে একাকার।’ সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনায় স্বাধীনতার সুবর্ণজয়ন্তী উদযাপনে যেন কালো একটা পর্দা পরে গেল বলে মনে করেন সুবর্ণা। তিনি লেখেন, ৩০ লাখ শহীদ আর তিন লাখ নারীর সর্বোচ্চ ত্যাগকে অসম্মানিত হতে দেখলাম। বঙ্গবন্ধুর ধর্মনিরপেক্ষ সোনার বাংলাকে ধর্মের ধুয়াধারীরা কলুষিত করতে উদ্গ্রীব।’ কিন্তু আর না, সুবর্ণা মনে করেন নতুন করে যুদ্ধ শুরু করতে হবে। দেশকে এই কুচক্রীদের হাত থেকে মুক্ত করতে হবে।

তাই তিনি লেখেন, যারা ষড়যন্ত্র করে আমাদের সাম্প্রদায়িক সম্প্রীতি নষ্ট করতে চাইছে, দেশকে অস্থিতিশীল করতে চাইছে, তাদের বলছি- বারে বারে ঘুঘু তুমি খেয়ে যাও ধান, এবার ঘুঘু তোমার বধিব পরাণ। অপরাধীদের উদ্দেশ করে সুবর্ণা লেখেন, ‘বাংলাদেশ এখন পুরোটাই ডিজিটাল। তোমরা সবাই চিহ্নিত, তোমাদের আইনের আওতায় নিয়ে আসা হবে, আইনের শাসন দিয়েই তোমরা শাস্তি পাবে। সহনশীল হওয়ার দিন শেষ।’

অন্যদিকে নির্মাতা মোস্তফা সরয়ার ফারুকী সময়ের নানা ইস্যু নিয়ে ফেসবুকেও সরব তিনি। দুর্গাপূজার উৎসবের মাঝে এবং পরে দেশজুড়ে ঘটে যাওয়া সাম্প্রদায়িক সহিংসতা নিয়েও ফেসবুকে লিখেছেন ফারুকী। শনিবার এক স্ট্যাটাসে ঘটনাগুলোর ঠিকঠাক তদন্ত করে সবার সামনে তুলে ধরা, জড়িতদের দ্রুততার সঙ্গে তাদের শাস্তির আওতায় আনা এবং আগামীতে যেন এরকম কিছু না ঘটে সেজন্য ব্যবস্থা নেয়ার দাবি জানান তিনি। কুমিল্লাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার পূজামণ্ডপে হামলাকারীদের শাস্তি নিশ্চিতের দাবিসহ ৭ দফা দাবিতে রাজধানীর শাহবাগ মোড় অবরোধ করে সোমবার বিক্ষোভ করে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা। সেই ছবিগুলো নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টে শেয়ার করেছেন মোস্তফা সরয়ার ফারুকী। সেই সঙ্গে ইংরেজিতে লিখেছেন, ‘লেট বাংলাদেশ স্পিক (বাংলাদেশকে বলতে দাও)।’

অভিনেত্রী জয়া আহসান বরাবরই দেশ-বিদেশের চলতি ইস্যু নিয়ে খুবই সচেতন এবং সে বিষয়গুলো নিয়ে নিয়মিতই লেখেন ফেসবুকে। অসাম্প্রদায়িকতার পক্ষেও সব সময় সরব জয়া। ঈদ-পূজা-বড়দিন সমানভাবে উদযাপন করেন জয়া। এই অসাম্প্রদায়িক মানুষ তার নিজ দেশে সাম্প্রদায়িক সহিংসতার ঘটনায় কালো ব্যাজ ধারণ করেছেন। নিজের ফেসবুক অ্যাকাউন্টের প্রোফাইল পিকচারের পুরোটা শোকের রং কালো করে দিয়েছেন তিনি। সেই সঙ্গে রংপুরের ঘটনায় অভিব্যক্তি প্রকাশ করেছেন নবারুন ভট্টাচার্যের কবিতার লাইন দিয়ে। জয়া লিখেছেন, ‘এই মৃত্যু উপত্যকা আমার দেশ না/ এই জল্লাদের উল্লাসমঞ্চ আমার দেশ না/ এই বিস্তীর্ণ শ্মশান আমার দেশ না/ এই রক্তস্নাত কসাইখানা আমার দেশ না।’ এই লাইনগুলোর নিচে জয়া ‘রংপুর’ লিখে এবং ছবি পোস্ট করে বুঝিয়ে দিয়েছেন, কোন প্রসঙ্গে কথাগুলো বলেছেন তিনি।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়