পীরগঞ্জে হিন্দুপল্লীতে হামলা-আগুন: সবার মধ্যে এখন আতঙ্ক

আগের সংবাদ

ইভ্যালি পরিচালনায় বিচারপতি মানিককে প্রধান করে কমিটি

পরের সংবাদ

জবির দুই সহকারী প্রক্টরকে বাহাদুর শাহ পরিবহনের ধাক্কা

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৮, ২০২১ , ২:৩৩ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১৮, ২০২১ , ২:৩৩ অপরাহ্ণ

বাহাদুর শাহ পরিবহনের একটি গাড়ি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের (জবি) দুই সহকারী প্রক্টরকে ধাক্কা দিয়েছেন বলে জানা গেছে। এতে সহকারী প্রক্টররা রাস্তায় পড়ে যান। এছাড়া রিকশাচালক গুরুতর আহত হন। সোমবার (১৮ অক্টোবর) বেলা ১১টার দিকে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের সামনে এ ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, বিশ্ববিদ্যালয়ের দুই সহকারী প্রক্টর শিক্ষা ও গবেষণা ইনস্টিটিউটের সহকারী অধ্যাপক কাজী ফারুক হোসেন এবং মনোবিজ্ঞান বিভাগের সহকারী অধ্যাপক কাজী নূর হোসেন মুকুল রিকশায় করে ক্যাম্পাসে আসছিলেন। এ সময় বাহাদুর শাহ পরিবহনের একটি গাড়ি তাদের রিকশায় ধাক্কা দেয়। এ ঘটনায় রিকশাচালক ও তারা দুইজন রাস্তায় পড়ে যান।

এরপর গাড়িচালক জুয়েল মিয়া বেপরোয়া গতিতে চলে যেতে চাইলে ঘটনা স্থলে উপস্থিত থাকা কোতোয়ালি থানার পুলিশের উপ-পরিদর্শক নাহিদ ইসলাম গাড়িটি আটক করেন। পরে বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর অফিসে গাড়িচালককে আনা হয়। তার লাইসেন্স দেখাতে বলা হলে না দেখাতে পারায় পুলিশের কাছে হস্তান্তর করা হয়।

এ বিষয়ে সহকারী প্রক্টর কাজী ফারুক হোসেন বলেন, গাড়ি বেপরোয়া গতিতে আমাদেরকে ধাক্কা দেয়। আমরা রাস্তায় পড়ে যায়। আল্লাহ আমাদেরকে বাঁচিয়েছেন। আর রিকশাচালক গুরুতর ব্যথা পেয়েছেন। তিনি হাত উঁচু করতে পারছেন না। আমরা তাকে তাৎক্ষণিক ৫০০ টাকা দেই। গাড়িচালককে ধরতে গিয়ে তিনি কখন চলে গেছেন দেখতে পারিনি।

তিনি আরও বলেন, মাঝে মধ্যে আমাদের শিক্ষার্থীকে পরিবহনগুলো হয়রানি করে। আজ আমরা শিকার হলাম। তারা কোন শৃঙ্খলার মধ্যে নেই। আমরা গাড়িচালককে লাইসেন্স দেখাতে বললে দেখাতে পারেনি। তাই থানায় হস্তান্তর করা হয়েছে।

গাড়িচালক জুয়েল বলেন, আমার পা পিছলে যাওয়ায় ভালোভাবে ব্রেক করতে পারিনি। আর কখনো এমন হবে না।

ঘটনার বিষয়ে তাৎক্ষণিক উপস্থিত থাকা পুলিশ উপ-পরিদর্শক নাহিদ ইসলাম বলেন, শিক্ষকদের ধাক্কা দিয়ে গাড়িচালক চলে যাচ্ছিল। আমি গাড়িসহ চালককে আটক করি। তাকে থানায় নিয়ে যাচ্ছি। গাড়ির কাগজপত্র ও চালকের লাইসেন্স দেখা হবে। তারপর পরবর্তী ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এর আগে, একাধিক শিক্ষার্থী বাহাদুর শাহ পরিবহন থেকে হয়রানির শিকার হয়। বিশবিদ্যালয় থেকে টিএসসিতে যাওয়ার সময় বাহাদুর শাহ পরিবহন যেন মৃত্যুর ফাঁদ বলে বিশ্ববিদ্যালটির শিক্ষার্থীরা জানান।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়