ফেনীতে প্রতিবাদের সময়েও সংঘর্ষ, আহত ৪০

আগের সংবাদ

আজকের সংবাদপত্র পর্যালোচনা

পরের সংবাদ

২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা শুরু

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৭, ২০২১ , ১০:২৩ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১৭, ২০২১ , ১০:২৭ পূর্বাহ্ণ

প্রথমবারের মতো গুচ্ছ পদ্ধতিতে দেশের ২০টি সাধারণ এবং বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের স্নাতক ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষে ভর্তি পরীক্ষা শুরু হচ্ছে আজ রবিবার (১৭ অক্টোবর)। রবিবার (১৭ অক্টোবর) বিজ্ঞান বিভাগ অর্থাৎ এ ইউনিটে ভর্তি পরীক্ষার জন্য এক লাখ ৩১ হাজার ৯০০ শিক্ষার্থী দিতে পারবে বলে মনোনীত করা হয়েছে। পরীক্ষা হবে বেলা ১২টা থেকে দুপুর একটা পর্যন্ত। এ পরীক্ষার মাধ্যমে মনোনীত শিক্ষার্থীরাই ভর্তি হতে পারবে নিজেদের পছন্দের তথা স্বপ্নপূরণের ২০ বিশ্ববিদ্যালয়ের একটিতে।

পরীক্ষার বিষয়ে গুচ্ছ ভর্তি সংক্রান্ত টেকনিক্যাল কমিটির আহবায়ক ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক ড. মোনাজ আহমেদ নূর ভোরের কাগজকে বলেছেন, আমাদের সকল উপাচার্যদের সম্মিলিত চেষ্টায় ১৭ অক্টোবর প্রথম পরীক্ষা হতে চলেছে। মোট এক লাখ ৩১ হাজার ৯০০ জনকে পরীক্ষার জন্য আমরা মনোনীত করেছি। সবেচেয়ে বেশি শিক্ষার্থী পরীক্ষা দিবে জগন্নাথ ও শাহজালাল বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে। সুষ্ঠুভাবে যেন পরীক্ষা হয় তার সবরকম প্রস্তুতি আমরা নিয়েছি।

বড় পরীক্ষা কেন্দ্রের একটি জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রস্তুতি সম্পর্কে জানতে চাইলে বিশ্ববিদ্যালয়টির রেজিস্ট্রার ও গুচ্ছ ভুক্ত ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটির সদস্য সচিব প্রকৌশলী মো. ওহিদুজ্জামান বলেন, জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ে এ ইউনিটভুক্ত ১০ হাজার ৯১৫ পরীক্ষার্থীর আসন নিশ্চিত করা হয়েছে। বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিতরে পরীক্ষা নেওয়া হবে। করোনার জন্য স্বাস্থ্যবিধির বিষয়ে আমরা সর্বোচ্চ নজর রেখেছি। পরীক্ষার এক ঘণ্টা আগে কেন্দ্রে আসতে হবে। মূল ফটক থেকে শুরু করে প্রতিটি কক্ষে মাস্ক, হ্যান্ড স্যানিটাইজার নিশ্চিত করা হয়েছে। একটি বেঞ্চে একজন করে বসবে। এছাড়া পরীক্ষার্থীদের সিট খুঁজতে সহায়তার জন্য সকল ভবনের সামনে বিএনসিসিসহ অন্যান্য স্বেচ্ছাসেবক থাকবে।

পরীক্ষার নিরাপত্তার বিষয়ে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, পরীক্ষায় কোন প্রকার ঝামেলার সৃষ্টি বা যানজট না হয় এজন্য আমরা ডিএমপি কমিশনারের সাথে কথা বলেছি। আশে পাশে যতগুলো থানা আছে শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ নিরাপত্তার দিবে। পরীক্ষা ঘিরে অপ্রীতিকর কিছু ঘটলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এদিকে ভর্তি পরীক্ষায় শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন বিশ্ববিদ্যালয়ে যাতায়াত, থাকা-খাওয়া, অর্থ ব্যয়সহ বিভিন্ন দুর্ভোগ লাঘবে জন্য একসাথে পরীক্ষা নেওয়ার সিদ্ধান্ত নেন দেশের ২০টি পাবলিক বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্যরা। প্রথম থেকে গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষা আয়োজক কমিটি থেকে শিক্ষার্থীদের সর্বোচ্চ সুবিধা দেওয়ার কথা বলা হয়। তবে ভর্তি পরীক্ষার জন্য প্রথমে ৫০০ টাকা থেকে ১০০ টাকা বাড়িয়ে ৬০০ টাকা করা, বিভাগ পরিবর্তন ইউনিট না থাকা, অনেক শিক্ষার্থী পরীক্ষার সুযোগ না পাওয়া, সর্বশেষ নিজ বিভাগীয় এলাকার বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রে পছন্দ দিলেও দূরের বিভাগে পরীক্ষা পড়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করতে দেখা যায় শিক্ষার্থীদের। এ বিষয়ে তাদেরকে একাধিকবার মানববন্ধন করতেও দেখা গেছে। তবে পছন্দের কেন্দ্রে সিট না পড়া শিক্ষর্থীদের সংখ্যা ৫% এর কম বলে দাবি করেছে ভর্তি পরীক্ষা আয়োজন কমিটি।

গুচ্ছ ভর্তি পরীক্ষায় অংশগ্রহণকারী ২০ বিশ্ববিদ্যালয় হলো-জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়, ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়, শাহজালাল বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, হাজী মোহাম্মদ দানেশ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, মাওলানা ভাসানী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, নোয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, কুমিল্লা বিশ্ববিদ্যালয়, জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম বিশ্ববিদ্যালয়, যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, পটুয়াখালী বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বেগম রোকেয়া বিশ্ববিদ্যালয়, পাবনা বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, বরিশাল বিশ্ববিদ্যালয়, রাঙামাটি বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়, রবীন্দ্র বিশ্ববিদ্যালয়, বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান ডিজিটাল ইউনিভার্সিটি, শেখ হাসিনা বিশ্ববিদ্যালয় এবং বঙ্গমাতা শেখ ফজিলাতুন্নেছা মুজিব বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়।

আর- আরএ / ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়