চট্টগ্রামে পূজামণ্ডপে হামলা: কারাগারে ৮৩ জন

আগের সংবাদ

ফের কংগ্রেস সভাপতি হতে পারেন রাহুল গান্ধী

পরের সংবাদ

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে মন্দিরের প্রতিমা ভাঙচুর

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৬, ২০২১ , ১০:৩৭ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১৬, ২০২১ , ১০:৩৭ অপরাহ্ণ

মুন্সিগঞ্জের সিরাজদিখানে দুর্বৃত্তরা মন্দিরের ছয়টি প্রতিমা ভাঙচুর করেছে। শুক্রবার দিবাগত রাতে উপজেলার রশুনিয়া ইউনিয়নের দানিয়াপাড়া শ্মশানঘাট কালীমন্দিরে এ ঘটনা ঘটে। এ ঘটনায় সনাতন ধর্মাবলম্বীসহ এলাকাবাসী ক্ষোভ প্রকাশ করেন।

শনিবার (১৬ অক্টোবর) সকাল ১০ টার দিকে জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল ও পুলিশ সুপার আবদুল মোমেন, অতিরিক্ত পুলিশ সুপার সুমন দেব, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা সৈয়দ ফয়েজুল ইসলাম, রশুনিয়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মো. ইকবাল হোসেনসহ পুলিশ ও প্রশাসনের অন্যান্য কর্মকর্তারা ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন।

স্থানীয়রা জানান, মন্দিরে থাকা একটি করে কালী ও শিব এবং দুটি করে যোগিনী ও জয়া-বিজয়া প্রতিমার মাথা ভেঙে মন্দিরের বাইরে ফেলে রাখা হয়। এর মধ্যে তিনটি প্রতিমার মাথার অংশ পাওয়া গেলেও বাকিগুলোর পাওয়া যায়নি।

মন্দিরের সেবায়েত সুদর্শন নায়েব জানান, শনিবার ভোর সাড়ে ছয়টার দিকে তিনি মন্দিরে এসে দেখেন, প্রতিমা ভেঙে ফেলে রাখা হয়েছে। তৎক্ষণাৎ তিনি মন্দির কমিটির লোকজনকে খবর দেন।

মন্দিরের সাধারণ সম্পাদক সুব্রত দেবনাথ জানান, কালীমূর্তি ভেঙে ফেলা হয়েছে। এছাড়া মহাদেব, শ্যামাকালী, মহাদেব সহচারী নাগিনী ও যোগিনীর মূর্তির মাথা নেই, কোনোটির হাত নেই। পরে বিষয়টি প্রশাসনকে জানানো হয়।

জেলা হিন্দু-বৌদ্ধ–খ্রিস্টান ঐক্য পরিষদের সাধারণ সম্পাদক সুবীর চক্রবর্তী বলেন, ‘আমরা এ মন্দিরে রাত তিনটা, কেউ সাড়ে তিনটা পর্যন্ত ছিলাম। এরপর রাতের অন্ধকারে পরিকল্পিতভাবে কেউ ভাঙচুর করেছে। এটা চোরাগোপ্তা হামলা। আমরা প্রশাসনের কাছে দাবি জানাই, যারা এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত, তাদের আইনের আওতায় এনে শাস্তির ব্যবস্থা করা হোক।’

জেলা প্রশাসক কাজী নাহিদ রসুল বলেন, এ ঘটনায় প্রশাসনের পক্ষ থেকে ব্যবস্থা নেওয়া হবে। ঘটনার তদন্ত চলছে।

সিরাজদিখান থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা মোহাম্মদ বোরহান উদ্দিন জানান, টিনের বেড়া কেটে চোর যেভাবে চুরি করে, ঠিক সেভাবে মন্দিরের ভেতরে ঢুকে দুর্বৃত্তরা কয়েকটি প্রতিমার হাত- পা ভেঙেছে। এ ঘটনায় তদন্ত শুরু হয়েছে। মন্দির কমিটির সদস্য ও স্থানীয় বাসিন্দাদের এ ব্যাপারে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। দোষী ব্যক্তিদের খুঁজে বের করে বিচারের মুখোমুখি করা হবে।

ডি-ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়