পাপিয়া দম্পতির বিদেশি জাল টাকা মামলার বিচার শুরু

আগের সংবাদ

প্রতারক আব্দুল কাদের ফের রিমান্ডে

পরের সংবাদ

চটেছেন ক্রিস গেইল

প্রকাশিত: অক্টোবর ১৩, ২০২১ , ৯:৫৮ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১৩, ২০২১ , ৯:৫৮ অপরাহ্ণ

ওয়েস্ট ইন্ডিজের ক্রিস গেইলের বয়সটা ৪২ ছাড়িয়েছে। তবে মাঠে এই ক্যারিবীয় দানবের পারফরম্যান্সে বয়সের চাপ পড়েনি একটুও। সংযুক্ত আরব আমিরাতে শুরু হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ আসরে দলের হয়ে মাঠে নামবেন তিনি। এদিকে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ওয়েস্ট ইন্ডিজ দলে ক্রিস গেইলের থাকা নিয়ে বিরূপ মন্তব্য করে সমালোচিত হন দেশটির সাবেক ক্রিকেটার কার্টলি অ্যামব্রোস। ক্যারিবীয় এই সাবেক ক্রিকেটারের এমন মন্তব্যে চটেছেন ক্রিস গেইল খোদ নিজেও। সম্প্রতি এক সাক্ষাৎকারে গেইল বলেছেন, অ্যামব্রোসের প্রতি কোনো শ্রদ্ধাবোধ নেই তার।

ওয়েস্ট ইন্ডিজের কিংবদন্তি বোলার কার্টলি অ্যামব্রোস কয়েকদিন আগে বিশ্বকাপ একাদশে গেইল ‘অটোচয়েস’ নন বলে দাবি করেন। তার এমন মন্তব্যের জবাবে ‘দ্য আইল্যান্ড টি মর্নিং শো’-তে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে গেইল সাক্ষাৎ গ্রহীতাকে বলেন, আপনি কার্টলি অ্যামব্রোসকে বলে দিয়েন যে, ইউনিভার্স বস ক্রিস গেইলের কাছে তার জন্য কোনো শ্রদ্ধাবোধ নেই। আমি যখন ওয়েস্ট ইন্ডিজে যোগ দিয়েছিলাম, তখন তাকে খুবই শ্রদ্ধা করতাম। তবে এখন আমি মন থেকেই বলছি। আমি জানি না ঘটনা কী, তবে অবসরের পর থেকেই সে আমার বিরুদ্ধে কথা বলে।

ক্রিস গেইল আরও বলেন, এসব নেতিবাচক মন্তব্য নয়, আমরা আশা করি তারা দলকে ইতিবাচক শক্তি জোগাবে। অন্য দলে তাদের সাবেক খেলোয়াড়রা সব সময় দলকে সমর্থন করে, তাহলে বিশ্বকাপের মতো বড় আসরে আমাদের ক্ষেত্রে ব্যতিক্রম কেন? সাবেক এ উইন্ডিজ পেসারের এমন বক্তব্য শুধু নজরকাড়ার জন্য বলে মনে করেন গেইল। তিনি মনোযোগ আকর্ষণ করতে সক্ষম হয়েছেন এবং তিনি মনোযোগ আকর্ষণ করাতে চাচ্ছিলেন, আমি তাকে তা দিলাম।

গেইল আরও বলেন, অ্যামব্রোসের সঙ্গে আমার সব শেষ। আবার যখনই তার সঙ্গে দেখা হবে, আমি তাকে বলব যে, নেতিবাচক কথাবার্তা ছড়ানো বন্ধ করুন এবং বিশ্বকাপে দলকে সমর্থন করুন। এই দলটা নির্বাচন করা হয়েছে এবং সাবেক খেলোয়াড়দের সমর্থনের প্রয়োজন আমাদের আছে। আমাদের নেতিবাচক মন্তব্যের দরকার নেই। অন্য দলের সাবেক খেলোয়াড়রা তাদের দলকে সমর্থন করে, তাহলে এমন বড় একটা আসরে আমরা কেন আমাদের দলকে সমর্থন করতে পারি না?

বিশ্বকাপের সবকটি আসরে অংশ নেওয়া গেইল ২৮ ম্যাচ খেলে ৪০ গড়ে করেছেন ৯২০ রান। ক্যারিবীয় এই দানব টি-টোয়েন্টি বিশ^কাপে একমাত্র ক্রিকেটার হিসেবে ২টি শতকের মালিক। ২০০৭ সালে দক্ষিণ আফ্রিকায় অনুষ্ঠিত টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্রথম আসরে স্বাগতিকদের তুলোধোনা করে ৫৭ বলে বিধ্বংসী ১১৭ রানের ইনিংস খেলেন গেইল। বিশ্বকাপে তার দ্বিতীয় শতকটি ২০১৬ সালে ভারতের মাটিতে ইংল্যান্ডের বিপক্ষে। ওই ম্যাচেও গেইল ঝড় তোলে ৪৮ বলে ১০০ রানের ইনিংস উপহার দেন তার ভক্তদের। বিশ্বকাপে সর্বোচ্চ রান সংগ্রাহকের তালিকায় এখন পর্যন্ত তার অবস্থান দুইয়ে। চলতি আসরে আর ৯৭ রান সংগ্রহ করতে পারলে গেইল শ্রীলঙ্কার কিংবদন্তি ব্যাটসম্যান মাহেলা জয়বর্ধনকে পেছনে ফেলে টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপ ইতিহাসে সর্বোচ্চ রানের মালিক হয়ে যাবেন।

আর- ই / ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়