দুই বছর বন্ধ থাকার পর ড্রাইভিং লাইসেন্স বিতরণ শুরু

আগের সংবাদ

যশের জন্মদিনে ছেলেকে নিয়ে বোমা ফাটালেন নুসরাত

পরের সংবাদ

বর্তমানে সাংবাদিক হওয়া অনেক কঠিন: নোবেলজয়ী মারিয়া

প্রকাশিত: অক্টোবর ১১, ২০২১ , ১১:১১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১১, ২০২১ , ১১:১১ পূর্বাহ্ণ

বিশ্বব্যাপী সব সাংবাদিককে শান্তিতে পাওয়া নোবেল পুরস্কার উৎসর্গ করেছেন ফিলিপাইনের সাংবাদিক মারিয়া রেসা। তিনি বলেন, বর্তমান বিশ্বে সাংবাদিকতাকে পেশা হিসেবে নেয়া চ্যালেঞ্জ হয়ে উঠেছে। খবর এএফপির

সম্প্রতি মত প্রকাশের স্বাধীনতা রক্ষায় লড়াইয়ের স্বীকৃতি হিসেবে এবার যৌথভাবে নোবেল শান্তি পুরস্কার পেয়েছেন ফিলিপাইনের মারিয়া রেসা ও রাশিয়ার দিমিত্রি মুরাতভ। শুক্রবার নরওয়ের রাজধানী অসলোতে এক সংবাদ সম্মেলনে এই দুজনের নাম ঘোষণা করা হয়।

এক সাক্ষাৎকারে মারিয়া নোবেল পাওয়ার অনুভূতি জানিয়ে বলেন, এই পুরস্কার বিশ্বের সব সাংবাদিকের জন্য।

এ সময় গণমাধ্যমের স্বাধীনতার জন্য মারিয়া তার লড়াই চালিয়ে যাওয়ার অঙ্গীকার করেন। তিনি বলেন, বিভিন্ন ক্ষেত্রে আমাদের সহায়তা প্রয়োজন। অথচ বর্তমানে সাংবাদিক হওয়া অনেক কঠিন হয়ে পড়েছে।

দুজন সাংবাদিককে নোবেল শান্তি পুরস্কার দেয়ার মধ্য দিয়ে গণমাধ্যম নিয়ে রাজনীতিক ও সরকারের নেতিবাচক ধারণা ভেঙে যাবে এবং এর মাধ্যমে সরকারি নজরদারি থেকেও সাংবাদিকতাকে রক্ষা করা যাবে বলে মন্তব্য করেন মারিয়া। তিনি আশা করেন, এই পুরস্কার সাংবাদিকদের ভয়ভীতি ছাড়াই ভালোভাবে তাদের পেশাগত দায়িত্ব পালন করতে উদ্বুদ্ধ করবে।

মারিয়া ফিলিপাইনের সংবাদভিত্তিক ওয়েবসাইট র‌্যাপলারের সহ-প্রতিষ্ঠাতা ও প্রধান নির্বাহী। মার্কিন সংবাদমাধ্যম সিএনএনের ফিলিপাইন ব্যুরোপ্রধান হিসেবেও দায়িত্ব পালন করেছেন তিনি।

২০১২ সালে অন্যদের সঙ্গে র‌্যাপলার প্রতিষ্ঠা করেন মারিয়া। ফিলিপাইনে পুলিশের মাদকবিরোধী অভিযানে শত শত মানুষকে হত্যা করাসহ বিভিন্ন বিষয়ে অনুসন্ধানী সাংবাদিকতা করে দ্রুত জনপ্রিয়তা অর্জন করে র‌্যাপলার। বিশেষ করে বাংলাদেশ ব্যাংকের রিজার্ভ চুরির অর্থ ফিলিপাইনে পাচার বিষয়ে বেশ কিছু প্রতিবেদন প্রকাশ করে র‌্যাপলার।

ফিলিপাইনের বিতর্কিত প্রেসিডেন্ট রদ্রিগো দুতার্তে ও তার নীতির খোলাখুলি সমালোচনা যারা করে, তাদের মধ্যে র‌্যাপলার অন্যতম। এ জন্য র‌্যাপলারের প্রধান মারিয়াকে সরকারের রোষানলে পড়তে হয়। তার বিরুদ্ধে একাধিক মামলাও রয়েছে।

গত বছর ফিলিপাইনের সাইবার অপরাধ প্রতিরোধ আইনে ম্যানিলার একটি আদালত তাকে দোষী সাব্যস্ত করেন। সত্যের সন্ধান ও স্বাধীন সাংবাদিকতার জন্য তাকে একাধিকবার কারাগারে অন্তরীণ থাকতে হয়েছে। ২০১৮ সালে মারিয়া টাইম ম্যাগাজিনের ‘পারসন অব দ্য ইয়ার’ নির্বাচিত হন।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়