আজ আদালতে হাজিরা দেবেন পরী মনি

আগের সংবাদ

কাবুল পতনের পর দোহায় প্রথম বৈঠক করল যুক্তরাষ্ট্র-তালেবান

পরের সংবাদ

স্তন ক্যান্সার সচেতনতা দিবস: প্রতি আটজনে একজন নারী ঝুঁকিতে

প্রকাশিত: অক্টোবর ১০, ২০২১ , ৮:৫৪ পূর্বাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১০, ২০২১ , ৮:৫৭ পূর্বাহ্ণ

আজ ১০ অক্টোবর দেশে ৯ম বারের মতো পালিত হচ্ছে স্তন ক্যান্সার সচেতনতা দিবস। স্তন ক্যান্সার সম্পর্কে সাধারণ মানুষের মাঝে সচেতনতা বাড়াতে ২০১৩ সাল থেকে বেসরকারিভাবে এই দিবস উদযাপিত হয়ে আসছে। এ বছর দিবসটির প্রতিপাদ্য ‘স্ক্রিনিং জীবন বাঁচায়’।

বিশ্বে প্রতি ৮ জনে ১ জন নারী স্তন ক্যান্সারে আক্রান্ত হওয়ার ঝুঁকিতে রয়েছেন। বাংলাদেশে নারীরা যেসব ক্যান্সারে আক্রান্ত হন তার মধ্যে শীর্ষে রয়েছে স্তন ক্যান্সার। দেশের স্তন ক্যান্সারের রোগীর মধ্যে ৯৮ শতাংশই নারী। প্রতি বছর এই ক্যান্সারে আক্রান্ত হচ্ছেন প্রায় ২০ হাজার নারী। বিশেষজ্ঞরা মনে করেন প্রতিরোধের মাধ্যমে তাদের মধ্যে ৫০ শতাংশই নিরাময়যোগ্য।

বিশেষজ্ঞরা বলছেন, বেশি বয়সে প্রথম সন্তান ধারণ করা অথবা নিঃসন্তান থাকা, সন্তানকে বুকের দুধ পান না করানো, বয়স ৩৫ বছরের ঊর্ধ্বে হলে, পরিবারের কারো স্তন ক্যান্সার ইতিহাস থাকলে, দীর্ঘদিন ধরে জন্মনিয়ন্ত্রণের জন্য পিল বা বড়ি খেলে, ১২ বছর বয়সের আগে প্রথম ঋতুস্রাব হলে অথবা ৫০ বছর পরে গিয়ে ঋতুস্রাব বন্ধ হলে, অত্যধিক চর্বিযুক্ত খাবার খেলে, ধূমপান, মদ্যপান এবং তামাকজাতীয় দ্রব্যে আসক্ত থাকলে, দীর্ঘদিন তেজস্ক্রিয় পদার্থের সংস্পর্শে থাকা নারীরা স্তন ক্যান্সারে আক্রান্তের ঝুঁকিতে রয়েছে।

তবে তারা এও বলছেন, সচেতন হলে স্তন ক্যান্সার নিরাময় করা সম্ভব। ঝুঁকিতে থাকা নারীদের নিয়মিত স্বাস্থ্য পরীক্ষা করা, ২০ বছর বয়স থেকেই নিজে নিজে স্তন পরীক্ষা করা এবং ৩৫ বছররের ওপরের নারীরা ম্যারেনাগ্রাফিক স্ক্রিনিং করলে এ থেকে পরিত্রাণ পাওয়া সম্ভব।

১৬টি স্বেচ্ছাসেবী সংগঠনের প্ল্যাটফর্ম বাংলাদেশ স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ফোরামের সঙ্গে রোটারী জেলা-৩২৮১ এর ৪০টি ক্লাব যৌথভাবে দিবসটি উদযাপন ও মাসব্যাপী কর্মসূচি হাতে নিয়েছে। আজ বেলা ১১টায় কর্মসূচি ঘোষণা ও ফ্রি স্ক্রিনিং উদ্বোধন হবে লালমাটিয়ার কমিউনিটি অনকোলজি সেন্টারে। (৭/৯, ব্লক-বি, আড়ং এর গলি)। সেখানে বাংলাদেশ স্তন ক্যান্সার সচেতনতা ফোরামের উদ্যোক্তা ও প্রধান সমন্বয়কারী ডা. মো. হাবিবুল্লাহ তালুকদার রাসকিন মূল বক্তব্য উপস্থাপন করবেন। এর আগে সকাল সাড়ে ৯টা থেকে মানিক মিয়া এভিনিউয়ের পশ্চিম প্রান্তে আড়ংয়ের সামনে প্রতীকী গোলাপি শোভাযাত্রা ও তথ্যসমৃদ্ধ লিফলেট বিতরণ অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া বিভিন্ন প্রতিষ্ঠান, সংস্থা দিবসটি উপলক্ষে বিভিন্ন কর্মসূচি পালন করবে।

ডি-এফবি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়