ফ্রি ফায়ার গেমের পক্ষে লড়তে হাইকোর্টে সিঙ্গাপুরের গ্যারিনা

আগের সংবাদ

টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে অর্থের ছড়াছড়ি

পরের সংবাদ

অনন্য উচ্চতায় রোনালদো

প্রকাশিত: অক্টোবর ১০, ২০২১ , ১০:২৭ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ১০, ২০২১ , ১০:২৭ অপরাহ্ণ

ফুটবল মাঠে বল পায়ে ক্রিশ্চিয়ানো রোনালদোর দাপট নতুন কিছু নয়। তার খেলা দেখে মুগ্ধ হয়নি এমন দর্শক খুঁজে পাওয়া মুশকিল। এমনকি মাঠে নামলেই নতুন রেকর্ড গড়বেন, এটা যেন নিয়তিই হয়ে গেছে। এবার আন্তর্জাতিক ফুটবলে সবচেয়ে বেশি গোলের রেকর্ডটা আরো চওড়া করে নিয়েছেন রোনালদো। দুই ম্যাচ পর জাতীয় দলে ফিরেই গোলের দেখা পেলেন পর্তুগিজ সুপারস্টার।

গতকাল আন্তর্জাতিক প্রীতি ম্যাচে কাতারের বিপক্ষে ৩-০ গোলের জয় পেয়েছে ফার্নান্দো সান্তোসের শিষ্যরা। সে ম্যাচে একটি গোল করায় রোনালদোর গোল সংখ্যা এখন ১১২। ওই ম্যাচে গোল পেয়েছেন সিআরসেভেনের দুই সতীর্থ হোসে ফন্তে, আন্দ্রে সিলভা।

এর আগে ১০৯ গোল নিয়ে দীর্ঘদিন আন্তর্জাতিক ফুটবলের সর্বোচ্চ গোলদাতা ছিলেন ইরানের আলি দাইয়ি। গত মাসে জোড়া গোল করে সেই রেকর্ড ভাঙেন। এবার আন্তর্জাতিক ফুটবলে রেকর্ড বইয়ের একটি পাতা থেকে মুছে দিলেন সার্জিও রামোসের নাম। এছাড়া কাতারের বিপক্ষে ম্যাচটি খেলতে নেমেই আন্তর্জাতিক ফুটবলে ইউরোপিয়ান একটি রেকর্ড নিজের করে নিয়েছেন রোনালদো।

প্রীতি ম্যাচটি ছিল তার ক্যারিয়ারে পর্তুগালের হয়ে ১৮১তম ম্যাচ। ইউরোপের জাতীয় দলগুলোর কোনো খেলোয়াড় এর চেয়ে বেশি আন্তর্জাতিক ম্যাচ খেলেননি। ইউরোপের দলগুলোর মধ্যে জাতীয় দলের হয়ে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ডটি এতদিন ছিল স্পেনের ডিফেন্ডার সার্জিও রামোসের। স্পেনের হয়ে ১৮০ ম্যাচ খেলেছেন এ মৌসুমেই রিয়াল মাদ্রিদ থেকে পিএসজিতে নাম লেখানো তারকা এ ডিফেন্ডার।

এছাড়া আন্তর্জাতিক ফুটবলে ইউরোপের খেলোয়াড়দের মধ্যে সবচেয়ে বেশি ম্যাচ খেলার রেকর্ডটা আগামীতে বাড়িয়ে নিতে পারবেন রোনালদো। কারণ একই মাঠে বিশ্বকাপ বাছাইপর্বে লুক্সেমবার্গের বিপক্ষে খেলতে নামবে তার দল। এছাড়া ২০২২ কাতার বিশ্বকাপের জন্য ইউরোপ অঞ্চলের বাছাইপর্বে ‘এ’ গ্রুপে দ্বিতীয় স্থানে আছে পর্তুগাল। ৫ ম্যাচে ১৩ পয়েন্ট তাদের। ১৪ পয়েন্ট নিয়ে শীর্ষে থাকা সার্বিয়া অবশ্য একটি ম্যাচ বেশি খেলেছে। ইউরোপ অঞ্চল থেকে বিশ্বকাপে খেলার সুযোগ পাবে মোট ১৩টি দল। এর মধ্যে সরাসরি বিশ্বকাপের মূলপর্বের টিকেট পাবে ১০ গ্রুপের শীর্ষ ১০ দল। বাকি তিনটি জায়গার জন্য প্লে অফে মুখোমুখি হবে দলগুলো।

গত পরশু রাতে আলগারভে স্টেডিয়ামে ম্যাচজুড়ে আধিপত্য বিস্তার করে পর্তুগাল। ফার্নান্দো সান্তোসের শিষ্যরা পাত্তাই দেয়নি কাতারকে। শুরু থেকে একের পর এক আক্রমণে কাতারকে চেপে ধরা পর্তুগাল অষ্টম মিনিটে পায় প্রথম সুযোগ। রোনালদোর থ্রু বল ধরে এগিয়ে যাওয়া জোয়াও মারিওকে এগিয়ে এসে রুখে দেন কাতারের গোলরক্ষক। ষোড়শ মিনিটে কয়েক জনের বাধা এড়িয়ে ডি-বক্সে ঢুকে শট নেন গনসালো গেদেস। এগিয়ে আসা গোলরক্ষকের পায়ে লেগে বল পোস্টের বাইরে দিয়ে যায়।

এমনকি ৩৫তম মিনিটে সুবর্ণ সুযোগ হাতছাড়া করেন রোনালদো। দিয়োগো দালোতের ক্রস ক্লিয়ার করার চেষ্টায় বলে পা ছোঁয়াতে ব্যর্থ হন ডিফেন্ডার তারেক সালমান, ডি-বক্সে পেয়ে যান রোনালদো। তাকে রুখতে এগিয়ে আসেন গোলরক্ষক, ম্যানচেস্টার ইউনাইটেড ফরোয়ার্ড শট লক্ষ্যে রাখতে পারেননি। দুই মিনিট পরই অবশ্য জালের দেখা পান পাঁচবারের বর্ষসেরা খেলোয়াড়। বাইলাইনের কাছ থেকে দালোতের হেড ক্লিয়ার করতে ব্যর্থ হন সালমান। ছয় গজ বক্সে বল পেয়ে সহজেই জালে পাঠান অরক্ষিত রোনালদো। আন্তর্জাতিক ফুটবলে সর্বোচ্চ গোলদাতা রোনালদোর দেশের হয়ে গোল হলো ১১২টি।

এছাড়া গত মাসে বিশ্বকাপ বাছাইয়ে রিপাবলিক অব আয়ারল্যান্ডের বিপক্ষে জোড়া গোল করার পথে আগের রেকর্ডধারী আলি দাইকে ১০৯ গোল ছাড়িয়ে যান তিনি। ওই ম্যাচেই হলুদ কার্ডের খাঁড়ায় এক ম্যাচের নিষেধাজ্ঞা পাওয়ার পর কাতারের বিপক্ষে প্রীতি ম্যাচে ও আজারবাইজানের বিপক্ষে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে খেলা হয়নি তার।

দ্বিতীয়ার্ধের শুরুতে রোনালদোর বদলি নামেন রাফায়েল লিয়াও। নুনো মেন্দেসের জায়গায় নেলসন সেমেদো। ৪৮তম মিনিটে ব্যবধান দ্বিগুণ করে স্বাগতিকরা। মারিওর ফ্রি কিকে দানিলো পেরেইরার হেড গোলরক্ষক ফেরালেও বিপদমুক্ত করতে পারেননি। কাছ থেকে জাল খুঁজে নেন লিলের ডিফেন্ডার ফন্তে। ৬৮তম মিনিটে দালোতের শট ক্রসবারের সামান্য ওপর দিয়ে উড়ে যায়। পাঁচ মিনিট পর সিলভার প্রচেষ্টা ঠেকান গোলরক্ষক। ৮০তম মিনিটে লিয়াওয়ের শট লাগে ক্রসবারের নিচের দিকে। পরক্ষণে দালোত জালে বল পাঠালেও গোল মেলেনি, আক্রমণের শুরুতে তার হাতে লেগেছিল বল। ৮৮তম মিনিটে লিয়াওয়ের আরেকটি প্রচেষ্টা পোস্টে লাগে। নির্ধারিত সময়ের শেষ মিনিটে দলের বড় জয় নিশ্চিত করে ফেলেন সিলভা। লিয়াওয়ের ক্রসে হেডে গোলটি করেন লাইপজিগের এই ফরোয়ার্ড।

এদিকে বিশ্বকাপ বাছাইয়ের ম্যাচে অ্যান্ডোরাকে ৫-০ গোলে বিধ্বস্ত করেছে ইংল্যান্ড। র‌্যাঙ্কিংয়ের ১৫৬তম দল হওয়ায় স্বাভাবিকভাবেই শক্তিমত্তায় অনেক পিছিয়ে অ্যান্ডোরা। তাই শুরু থেকে তাদের নিয়ে গোল উৎসব করেছে ইংলিশরা। একটি করে গোল করেন চিলওয়েল, সাকা, আব্রাহাম, ওয়ার্ড পাউসে ও গ্রিলিশ। এই জয়ে মূল পর্বের আরও কাছে পৌঁছে গেছে সাউথগেটের দল।

রি-এস/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়