পরী মনিকে নিয়ে কবিতা লিখলেন আবদুল গাফফার চৌধুরী

আগের সংবাদ

বিরোধ মেটাতে চুক্তির দ্বারপ্রান্তে সৌদি আরব ও ইরান

পরের সংবাদ

পশ্চিমবঙ্গে তৃণমূল কংগ্রেস নেতাকে প্রকাশ্যে হত্যা

প্রকাশিত: অক্টোবর ৮, ২০২১ , ৯:৩৫ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ৮, ২০২১ , ১০:০০ অপরাহ্ণ

ভারতের পশ্চিমবঙ্গের তৃণমূল কংগ্রেস নেতা মোহাম্মদ একরামুল হককে প্রকাশ্যে হত্যা করা হয়েছে। শুক্রবার উত্তর দিনাজপুর জেলার ইসলামপুরের রিঙ্কুয়া বাজার এলাকায় এই ঘটনা ঘটেছে। খবর হিন্দুস্তান টাইমসের

নিহত তৃণমূল কংগ্রেস নেতার দেহের পাশে পড়েছিল মোটরবাইক। এখনও পর্যন্ত কাউকে গ্রেপ্তার করা হয়নি। এ ঘটনার তদন্তে নেমেছে পুলিশ।

পুলিশ জানিয়েছে, নিহত তৃণমূল নেতা মোহাম্মদ একরামুল হক আগ ডিমটি খুন্তি গ্রাম পঞ্চায়েতের বন্দীরামগছ সংসদের সদস্য। একই সঙ্গে তিনি ওই এলাকার পঞ্চায়েত সদস্য হিসেবে দায়িত্ব পালন করছিলেন।

ইসলামপুর থেকে কাজ সেরে ফিরছিলেন তিনি। সেসময়ই তিন জন দুষ্কৃতি বাইকে চেপে এসে তাকে লক্ষ্য করে খুব কাছ থেকে গুলি করে পালিয়ে যায়। দুষ্কৃতিদের ছোঁড়া গুলি তার মাথা ভেদ করে চলে যায়। ঘটনাস্থলেই মৃত্যু হয় একরামুল হকের। পেছন থেকে এসে গুলি করে দুষ্কৃতিরা। প্রকাশ্য দিবালোকে এই কাণ্ডে শোরগোল পড়ে যায় এলাকাজুড়ে।

খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে ছুটে আসে ইসলামপুর থানার পুলিশ। মৃতদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য পাঠায় পুলিশ। উদ্ধার হয়েছে একটি রিভলভার, চার রাউন্ড কার্তুজও। যদিও কী কারণে গুলি চালানো হয়েছে তা নিয়ে ধোঁয়াশা রয়েছে।

যদিও রাজনৈতিক উদ্দ্যেশ্যে চরিতার্থ করতেই এই ঘটনা বলে দাবি করেছেন দলের ইসলামপুরের ব্লক সভাপতি জাকির হোসেন। তিনি এই ঘটনায় বামদের দিকে অভিযোগের আঙুল তুলেছেন।

তিনি জানান, একরামুল চিরকালই ডানপন্থী। পুরনো বামেরাই তাকে হত্যা করেছে। এই ব্যাপারে তৃণমূল কংগ্রেস জেলা সভাপতি কানাইয়ালাল আগরওয়াল বলেন, এই ঘটনার সঙ্গে সিপিআইএমের যোগসাজশ রয়েছে। ইসলামপুর জেলার পুলিশ সুপার শচীন মক্কর বলেন, ‌গুলি করে একজনকে খুন করা হয়েছে। গোটা ঘটনা খতিয়ে দেখা হচ্ছে।

প্রকাশ্য দিনের আলোয় চাঞ্চল্যকর এই ঘটনায় আতঙ্ক ছড়িয়েছে এলাকার বাসিন্দাদের। এলাকার নিরাপত্তার স্বার্থে পুলিশ প্রশাসনকে কঠোর পদক্ষেপ গ্রহণের দাবিও তুলেছেন স্থানীয়রা।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়