সাহিত্যে নোবেল পুরস্কারে ভূষিত হলেন আব্দুলরাজাক গুরনাহ

আগের সংবাদ

ডেঙ্গুতে আক্রান্ত আরও ২০৮ জন হাসপাতালে

পরের সংবাদ

বাউফলে তিন কোটি টাকার অবৈধ জাল জব্দ

প্রকাশিত: অক্টোবর ৭, ২০২১ , ৫:১৩ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ৭, ২০২১ , ৫:১৩ অপরাহ্ণ

মা ইলিশ রক্ষায় ২২ দিনের অবরোধের প্রথম সপ্তাহে বাউফলের তেঁতুলিয়া নদীতে অভিযান চালিয়ে প্রায় তিন কোটি টাকার অবৈধ জাল জব্দ করে পুড়িয়ে দিয়েছে প্রশাসন। বাউফল উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর ও কালাইয়া নৌ পুলিশের যৌথ অভিযানে বিশাল অংকের ওই জাল জব্দ করা হয়েছে। বৃহষ্পতিবার (৭ অক্টোবর) এ খবর নিশ্চিত করেন উপজেলার কালাইয়া নৌ-পুলিশ।

সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে, দেশের অন্যান্য নদীর মতোই বাউফলের তেঁতুলিয়া নদীর ৪৫ কিলোমিটার এলাকা মা ইলিশের অভয়ারণ্য হিসেবে চিহ্নিত করা রয়েছে। ২ থেকে ২৫ অক্টোবর পর্যন্ত এই অভয়ারণ্যে ইলিশের ডিম ছাড়ার সময়ে ইলিশ শিকার নিষিদ্ধসহ অবরোধ জারি করা হয়েছে। অবরোধের প্রথম ছয়দিনেই বাউফল উপজেলা মৎস্য অধিদপ্তর ও কালাইয়া নৌ পুলিশ যৌথ অভিযান চালিয়ে ৩৮ লাখ ৫০ হাজার মিটার কারেন্ট ও অন্যান্য অবৈধ জাল জব্দ করেন। সরকারি হিসেবে যার বাজার মূল্য ২ কোটি ৭৩ লাখ ২৫ হাজার টাকা। জব্দকৃত জালগুলো পুড়িয়ে ফেলা হয়েছে। এসময় ২০ কেজি ইলিশও জব্দ করে এতিমখানায় বিতরণ করে দেয়া হয়েছে। বাউফল উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা মাহাবুব আলম তালুকদার জানান, বিশাল এই নদী এলাকা পাহাড়া দিতে প্রয়োজনীয় লোকবল ও নৌযানের অভাব রয়েছে। এরপরও আমার ইলিশ রক্ষায় দিন-রাত কাজ করে যাচ্ছি।

কালাইয়া নৌ পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ মো. গিয়াস উদ্দিন জানান, অবরোধকালীন ইলিশ শিকার না করার জন্য বরিশাল রেঞ্জের নৌ-পুলিশ সুপার মো. কফিল উদ্দিনের নেতৃত্বে বাউফলে জেলেদের নিয়ে সভা করা হয়েছে এবং মৎস্য অধিদপ্তরের মাধ্যমে মাইকিং করা হয়েছে। কিন্তু এক শ্রেণির লোভী জেলে সরকারি নিষেধাজ্ঞা অমান্য করে ইলিশ শিকার করতে নদীতে জাল ফেলে লুকিয়ে থাকে। আমরা নদী থেকে ওই জাল জব্দ করি। মা ইলিশ রক্ষায় আমাদের এই অভিযান অব্যহত থাকবে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়