মহালয়ায় বাবুল সুপ্রিয়ের উপহারে আনন্দিত মমতা

আগের সংবাদ

বাবুগঞ্জে জীবিত থেকেও ইসির তালিকায় মৃত!

পরের সংবাদ

৩০০ টাকার টিকিট ৮০০, তাও ট্রেনে উঠতে পারেননি শতাধিক শিক্ষার্থী

প্রকাশিত: অক্টোবর ৬, ২০২১ , ১০:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: অক্টোবর ৬, ২০২১ , ১০:৩৪ অপরাহ্ণ

রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষা দিয়ে ঢাকায় ফিরতে ‘এক্সট্রা ফেয়ার টিকিট’ (ইএফটি) কেটেছিলেন শতাধিক শিক্ষার্থী। এরপর বুধবার (৬ অক্টোবর) বিকেলে রাজশাহী রেল স্টেশন থেকে পদ্মা আন্তনগর এক্সপ্রেস ট্রেনে ওঠেন তারা। শিক্ষার্থীদের অভিযোগ, সাড়ে ৩০০ টাকার টিকিট ৮০০ টাকা পর্যন্ত নেয়া হয়েছে। এরপরও ট্রেন থেকে তাদের ধাক্কা দিয়ে নামিয়ে দেয়া হয়েছে।

জানা গেছে, বুধবার রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের ভর্তি পরীক্ষার শেষ দিন ছিল। শিক্ষার্থীরা বিকেলে পদ্মা আন্তনগর এক্সপ্রেস ট্রেনে ঢাকায় ফেরার জন্য স্টেশনে এসেছিলেন। টিকিট না পেয়ে তারা স্টেশন থেকে ইএফটি সংগ্রহ করেন। নির্ধারিত আসনের টিকিট শেষ হয়ে গেলে দাঁড়িয়ে থেকে যাত্রীদের যাওয়ার জন্য রেলওয়ে কর্তৃপক্ষ এই বিশেষ টিকিটের ব্যবস্থা করে থাকে। রাজশাহী স্টেশন থেকে ট্রেনটি ছাড়ার নির্ধারিত সময় ছিল বিকেল চারটা। এর কিছুক্ষণ আগে রেলওয়ে পুলিশ ট্রেনে উঠে তাদের নামিয়ে দেয়।

নাহিদ সাজিদ নামের এক শিক্ষার্থী বলেন, তাদের আটজনকে ৪০০ টাকা করে টিকিট দিয়ে আবার ট্রেন থেকে নামিয়ে দেয়া হয়েছে। কেন হয়রানি করা হলো, তারা এর প্রতিকার চান। ঢাকা থেকে যাওয়া সজল ও রাকিব একই অভিযোগ করেন।

সরেজমিন দেখা যায়, স্টেশনে মাইকিং করে বলা হচ্ছিল, রাতে নিজ দায়িত্বে নাটোর গিয়ে সেখান থেকে ট্রেনে ঢাকায় যেতে হবে। অথবা সকালে বনলতা এক্সপ্রেস ট্রেনে যেতে হবে। এতে শিক্ষার্থীরা কেউ রাজি হননি। তারা বিক্ষোভ করতেই থাকেন।

খবর পেয়ে নগরের বোয়ালিয়া থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নিবারণ চন্দ্র বর্মণ ঘটনাস্থলে গিয়ে শিক্ষার্থীদের নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন। পুলিশের সামনেই শিক্ষার্থীরা রেলওয়ে কর্তৃপক্ষের প্রতারণার কথা তুলে ধরেন। একপর্যায়ে পুলিশ তাদের ঢাকায় যাওয়ার ব্যবস্থা করার আশ্বাস দিয়ে পরিস্থিতি কিছুটা শান্ত করে।

স্টেশনমাস্টার আবদুল করিম জানান, শিক্ষার্থীদের চাঁপাইনবাবগঞ্জের রহনপুর থেকে কমিউটার ট্রেনে ঈশ্বরদীতে পাঠানো হবে। পরে খুলনা থেকে ছেড়ে আসা ঢাকাগামী সুন্দরবন আন্তনগর এক্সপ্রেস ট্রেনের সঙ্গে ঈশ্বরদীতে অতিরিক্ত একটি বগি যোগ করে দেয়া হবে। সেই বগিতে এই শিক্ষার্থীদের তুলে দেয়ার ব্যবস্থা করা হবে।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়