জেলেদের জন্য ১১ হাজার ১১৯ টন চাল বরাদ্দ

আগের সংবাদ

পুলিশি হয়রানি বন্ধে বাইকারদের কর্মবিরতির ডাক

পরের সংবাদ

অক্টোবরেই খুলতে যাচ্ছে বেসরকারি সব বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২১ , ৫:০০ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৭, ২০২১ , ৫:০০ অপরাহ্ণ

দেশের সরকারি ও স্বায়ত্তশাসিত বিশ্ববিদ্যালয়গুলো আগামী অক্টোবরের শুরু থেকেই নিজস্ব ব্যবস্থাপনায় ধাপে ধাপে সচল হতে যাচ্ছে। বিশ্ববিদ্যালয় মঞ্জুরি কমিশনের (ইউজিসি) শর্ত পূরণ করে ‘ফল সেমিস্টার’ থেকে সশরীরে ক্যাম্পাসে পাঠদান শুরু করতে প্রস্তুতি নেওয়া হচ্ছে। ইতোমধ্যে বেশ কয়েকটি বিশ্ববিদ্যালয় একাডেমিক কাউন্সিলের বৈঠক করে বিশ্ববিদ্যালয় খোলার দিন নির্ধারণ করেছে বলে জানা গেছে। তবে অবশ্যই শিক্ষার্থীদের টিকা ও স্বাস্থ্যবিধির বিষয়টি নিশ্চিত করতে হবে।

শিক্ষা মন্ত্রণায় সূত্রে জানা গেছে, আগামী ৭ অক্টোবর থেকে রাজধানীর নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটিতে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হচ্ছে। স্বাস্থ্যবিধি মেনে সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক তারা ক্লাসে পাঠদান শুরু করার প্রস্তুতি শুরু করেছে। তবে শ্রেণিকক্ষে পাঠদান শুরু হলেও অনলাইনে নিয়মিত ক্লাস করানো হবে।

নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির উপাচার্য অধ্যাপক আতিকুল ইসলাম বলেন, আমাদের আমাদের শিক্ষক-কর্মকর্তা ও কর্মচারীদের ৯৫ শতাংশ করোনা টিকার দুটি ডোজ নিয়েছেন। শিক্ষার্থীদেরও অধিকাংশ টিকার আওতায় এসেছে। তবে যারা এখনো টিকা পাননি তারাও ইউজিসির দেওয়া লিংকে প্রবেশ করে রেজিস্ট্রেশন করেছে।

এদিকে আহছানউল্লাহ বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের রেজিস্ট্রার ড. মো. মোশারফ হোসেন বলেন, বিশ্ববিদ্যালয়ে কবে থেকে সশরীরে ক্লাস শুরু করা হবে সে সিদ্ধান্ত নিতে চলতি সপ্তাহে একাডেমিক কাউন্সিলের সভা রয়েছে। সেখানে এ বিষয়ে সিদ্ধান্ত নেওয়া হবে। তবে আগামী মাসের প্রথম সপ্তাহ থেকে ক্যাম্পাসে ক্লাস শুরুর চিন্তাভাবনা করা হচ্ছে।

এদিকে গত ২৪ সেপ্টেম্বর ইউজিসি এক বিজ্ঞপ্তিতে জানায়, শর্তসাপেক্ষে বেসরকারি বিশ্ববিদ্যালয়সমূহ একাডেমিক কাউন্সিল ও সিন্ডিকেটের সিদ্ধান্তক্রমে নিজ ব্যবস্থাপনায় যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে সশরীরে ক্লাস, পরীক্ষাসহ শিক্ষা কার্যক্রম চালু রাখতে পারবে। শিক্ষা কার্য

শর্তগুলোর মধ্যে রয়েছে
১. শিক্ষক, কর্মকর্তা, কর্মচারী ও শিক্ষার্থীরা ইতোমধ্যে কমপক্ষে এক ডোজ ভ্যাকসিন গ্রহণ করেছে অথবা ভ্যাকসিন গ্রহণের জাতীয় পরিচয়পত্র জাতীয় সুরক্ষা সেবা পোর্টালে অথবা সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে নিবন্ধন করে থাকলে।

২. ১৮ বছর বা তদূর্ধ্ব শিক্ষার্থী যাদের জাতীয় পরিচয়পত্র নেই, তারা জন্মনিবন্ধন সনদের ওয়েবলিংকে ভ্যাকসিন গ্রহণের জন্য প্রাথমিক নিবন্ধন করে থাকলে এবং পরে জাতীয় সুরক্ষাসেবা ওয়েবপোর্টালে অথবা সুরক্ষা অ্যাপের মাধ্যমে টিকা গ্রহণের নিবন্ধন করে থাকলে ক্লাসে অংশ নিতে পারবে।

 

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়