কাচকি মাছের চানাচুর

আগের সংবাদ

রেইনট্রিতে শিক্ষার্থী ধর্ষণ মামলার যুক্তি উপস্থাপন ৩ অক্টোবর

পরের সংবাদ

সোমবার বিশ্ব পর্যটন দিবস

পর্যটক আকর্ষণে অন অ্যারাইভাল ভিসা চালুর উদ্যোগ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১ , ৮:৩৭ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১ , ৮:৪০ অপরাহ্ণ

পর্যটক আকর্ষণে দেশে অন-এ্যারাইভাল ভিসা চালুর প্রক্রিয়া চলছে বলে জানিয়েছেন বেসামরিক বিমান পরিবহন ও পর্যটন প্রতিমন্ত্রী মো. মাহবুব আলী। তিনি জানান, এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে আলোচনা চলছে। এছাড়া করোনা মহামারির কারণে ক্ষতিগ্রস্ত এ খাতকে টিকিয়ে রাখতে আর্থিক প্রণোদনা দেয়া, মাস্টার প্ল্যান প্রণয়নসহ বিভিন্ন পদক্ষেপ নেয়া হয়েছে। বিশ্ব পর্যটন দিবস-২০২১ উদযাপন উপলক্ষে রবিবার (২৬ সেপ্টেম্বর) সচিবালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি পর্যটন বিষয়ক বিভিন্ন পরিকল্পনার কথা তুলে ধরেন।

‘অন্তর্ভুক্তিমূলক প্রবৃদ্ধিতে পর্যটন’ এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে বিশ্বের অন্যান্য দেশের সঙ্গে বাংলাদেশেও সোমবার পালিত হচ্ছে বিশ্ব পর্যটন দিবস। দিনটিকে বর্ণাঢ্য আয়োজনে উদযাপন করতে নানা কর্মসূচি হাতে নিয়েছে সরকারি-বেসরকারি বিভিন্ন সংস্থা ও প্রতিষ্ঠান। এ উপলক্ষ্যে পৃথকভাবে বাণী দিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. আবদুল হামিদ ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

বিশ্ব পর্যটন দিবসকে কেন্দ্র করে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ড ও বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশন বিভিন্ন কর্মসূচি নিয়েছে। এর মধ্যে রাজধানীর আগারগাঁওয়ে পর্যটন ভবনে কুকিং শো, আলোচনা অনুষ্ঠান ও ঘোড়া গাড়ির র‌্যালি অনুষ্ঠিত হবে। র‌্যালিটি পর্যটন ভবনের সামনে থেকে যাত্রা শুরু করে রাজধানীর বিভিন্ন পর্যটন স্পট পরিভ্রমণ করবে। পর্যটন বিষয়ক প্রচারণার পরিচালনার পাশাপাশি এ সময় মাস্ক বিতরণও করা হবে। এছাড়া বাদ্যযন্ত্রসহ ২০টি সুসজ্জিত রিকশার র‌্যালি রাজধানীর গুলশান ও বারিধারা কূটনৈতিক এলাকায় প্রচারণা চালাবে। দেশের প্রতিটি জেলায় জেলা প্রশাসনের তত্ত্বাবধানে পর্যটন অংশীজনদের নিয়ে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হবে এবং শিশুদের চিত্রাঙ্কন ও রচনা প্রতিযোগিতার আয়োজন থাকবে। আগামী ২ অক্টোবর নড়াইলে বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের আয়োজনে নৌকা বাইচ অনুষ্ঠিত হবে।

মাহবুব আলী বলেন, করোনা মহামারির কারণে বিশ্বের পর্যটন শিল্প কঠিন পরিস্থিতির মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। কোভিড-১৯ এর কারণে সবচেয়ে বেশী ক্ষতিগ্রস্ত খাতগুলোর একটি হচ্ছে পর্যটন। বাংলাদেশেও এই মহামারীর কারণে দীর্ঘদিন পর্যটন কেন্দ্র ও এই শিল্পের সঙ্গে সংশ্লিষ্ট ব্যবসা প্রতিষ্ঠান বন্ধ করে রাখতে হয়েছিল। গতবছর সংক্রমণের হার বেশি থাকায় বিশ্ব পর্যটন দিবসের কর্মসূচি ডিজিটাল প্ল্যাটফর্ম ব্যবহার করে আয়োজন করতে হয়েছিল। তবে সংক্রমণ কমার কারণে এখন ধীরে ধীরে এ শিল্পটি ঘুরে দাঁড়াচ্ছে।

প্রতিমন্ত্রী জানান, করোনার পর পর্যটন আকর্ষণে দেশে অন-অ্যারাইভাল ভিসা চালুসহ ভিসা প্রক্রিয়া সহজ করার কাজ চলছে। এ বিষয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সঙ্গে পর্যটন মন্ত্রণালয়ের আলোচনা চলছে। তিনি বলেন, কোভিড-১৯ শুরু হওয়ার আগে আমরা পর্যটন মহাপরিকল্পনা প্রণয়নের জন্য একটা আন্তর্জাতিক সংস্থাকে কার্যাদেশ দিয়েছি। প্রধানমন্ত্রীর ইচ্ছা আমরা যেন পর্যটনকে নিয়ে পরিকল্পিতভাবে এগিয়ে যাই। মাস্টার প্ল্যান শেষ হওয়ার পরই আমরা আমাদের কাজে হাত দেব। ২০২২ সালের ডিসেম্বরের মধ্যে মাস্টার প্ল্যানের কাজ শেষ হবে বলে আশা প্রকাশ করেন তিনি।

করোনায় পর্যটন খাতে ক্ষতিগ্রস্তদের ঋণ পেতে জটিলতা হওয়া প্রসঙ্গে মন্ত্রণালয়ের সচিব মো. মোকাম্মেল হোসেন বলেন, পর্যটন শিল্পের জন্য দেড় হাজার কোটি টাকা প্রণোদনা ঘোষণা করেছেন প্রধানমন্ত্রী। সে অনুযায়ী আমরা বিভিন্ন খাত, উপখাতে ভাগ করেছি। আমরা সেটি বাংলাদেশ ব্যাংকে পাঠিয়েছিলাম। পরে বাংলাদেশ ব্যাংক সেটি অর্থ মন্ত্রণালয়ে পাঠাতে বলে। আমরা অর্থ মন্ত্রণালয়ের সঙ্গেও কথা বলেছি। অর্থ মন্ত্রণালয় থেকে বাংলাদেশ ব্যাংকে নির্দেশনা দেয়া হয়েছে, সে অনুযায়ী এখন ব্যবস্থা নেয়া হচ্ছে। আশা করছি খুব সহসাই এ ঋণ বিতরণ শুরু হবে।

সংবাদ সম্মেলনে বেসামরিক বিমান চলাচল কর্তৃপক্ষের চেয়ারম্যান এয়ার ভাইস মার্শাল এম মফিদুর রহমান, বাংলাদেশ পর্যটন কর্পোরেশনের চেয়ারম্যান মো. আবদুল হান্নান, বাংলাদেশ ট্যুরিজম বোর্ডের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা জাবেদ আহমেদ, মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব ড. মো. মোশাররফ হোসেন, বাংলাদেশ সার্ভিসেস লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক মো. আবদুল কাইয়ুম, হোটেল ইন্টারন্যাশনাল লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ড. মো. আমিনুর রহমান প্রমুখ উপস্থিত ছিলেন।

রি-আরএ/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়