ট্রেনের ছাদে দুই জনকে হত্যা-ডাকাতি: গ্রেপ্তার ৫

আগের সংবাদ

আরও ২৫ লাখ ডোজ ফাইজারের টিকা আসছে সোমবার

পরের সংবাদ

জার্মানির নির্বাচন শুরু : কে আসছেন ক্ষমতায়?

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১ , ২:৪৮ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৬, ২০২১ , ২:৪৮ অপরাহ্ণ

জার্মানির রাজনীতিতে প্রধান তিনটি দল হলো ক্রিশ্চিয়ান ডেমোক্রেটিক ইউনিয়ন, সোশ্যাল ডেমোক্রেটিক পার্টি ও পরিবেশবাদী গ্রিন পার্টি। বিশ্লেষকরা বার বার নিশ্চিত করে বলছেন, এবারের নির্বাচনে কোনো দলই সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে পারবে না।

জার্মান সংবাদমাধ্যম ডয়চে ভেলের প্রতিবেদনে বলা হয়, দেশটির ভোটাররা দুটি করে ভোট দেবেন। একটি সরাসরি প্রার্থী নির্বাচনের, অন্যটি পছন্দের দলকে। তবে জার্মানির পরবর্তী চ্যান্সেলর কে হচ্ছেন সে ব্যাপারে এখনই কিছু বলা যাচ্ছে না। কেননা পার্লামেন্টের নির্বাচিত প্রতিনিধিরাই চ্যান্সেলর নির্বাচিত করবেন।

নির্বাচনোত্তর কে সরকার গঠন করবেন সে ব্যাপারে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়েছে। কেননা এ নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিভিন্ন দল নিজেদের মধ্যে জোট গড়ে তুলেছে। এসব জোটের পৃথক পৃথক রং রয়েছে। যেমন মধ্য ডানপন্থী দল খ্রিস্টান ডেমোক্রেটিক ইউনিয়ন (সিডিইউ) এবং তাদের বাভারিয়ান সহযোগী খ্রিস্টান সোশ্যাল ইউনিয়নের (সিএসইউ) প্রতীকি রং কালো। অন্যদিকে মধ্য বামপন্থী সোশ্যাল ডেমোক্রেট (এসপিডি) প্রতীকি রং লাল। মুক্ত বাজারপন্থী ফ্রি ডেমোক্রেটস (এফডিপি) রং হলুদ। আর পরিবেশবাদী গ্রিন পার্টির প্রতীকি রং সবুজ। জার্মানির সংবাদমাধ্যমে জোট বোঝাতে অনেক সময় নামের বদলে রং ব্যবহার করা হয়।

গত ৮ বছর ধরে সিডিইউ ও এসপিডির জোট ক্ষমতায় ছিলো। নির্বাচনে যদি এই ২ দল সংখ্যাগরিষ্ঠতা অর্জন করতে না পারে তাহলে গ্রিন পার্টিকে নিয়ে বড় পরিসরে জোট গঠন হতে পারে। সেক্ষেত্রে তাদের জোটের রংটি কেনিয়ার পতাকার রংয়ের সঙ্গে মিলে যায়। এই জোটের চ্যান্সেলর কে হতে পারেন সেটি এসপিডি, সিডিইউ বা সিএসইউয়ের মধ্যে যাদের আসন সংখ্যা বেশি থাকবে তাদের ওপর নির্ভর করতে পারে।

আঞ্চলিক ও জাতীয় নির্বাচনে সিডিইউ গত কয়েক বছরে অপেক্ষাকৃত ছোট দল ফ্রি ডেমোক্র্যাটের (এফডিপি) সঙ্গেও জোট করেছে। তার সঙ্গে গ্রিন পার্টিকে নিয়ে আরেকটি বিকল্প জোটের সম্ভাবনাও অনেক সিডিইউ নেতার কাছে আকর্ষণীয়। এই ৩ দলের রং রয়েছে জ্যামাইকার পতাকাতে৷ তবে সবুজ ও এফডিপির মধ্যে মতবিরোধের কারণে ২০১৭ সালে সরকার গঠনের এমন প্রচেষ্টা ব্যর্থ হয়েছিল।

মধ্য ডানপন্থী সিডিইউ, সিএসইউ বা মধ্য বামপন্থী এসপিডি এর সঙ্গে মুক্ত বাজারপন্থি এফডিপি যোগ দিলে এমন একটি জোট হতে পারে। এই ৩ দলের রং জার্মানির পতাকার ৩টি রংয়ে। মতপার্থক্য দূর করে এক হতে পারলে তারা অনায়াসেই পার্লামেন্টে সংখ্যাগরিষ্ঠতা পাবে বলে মনে করা হচ্ছে। ব্যবসায়ী নেতা ও উচ্চ আয়ের মানুষের কাছে এটি কাঙ্খিত এক জোট।

সোশ্যাল ডেমোক্র্যাটরা সবুজ দলের সঙ্গে জোট করেও যদি সংখ্যাগরিষ্ঠতা না পায়, তাহলে বামপন্থী দল ডি লিংকে-কে কাছে টানতে পারে। সেক্ষেত্রে পার্লামেন্টে যেতে ডি লিংকের অন্তত পাঁচ শতাংশ ভোট পেতে হবে। কিন্তু এসপিডি ও ডি লিংকের সম্পর্কের অতীত খুব একটা ভালো নয়। বিশেষ করে ডি লিংকের কট্টর পররাষ্ট্রনীতি এই সম্ভাবনা ভেস্তে দিতে পারে।

মুক্ত বাজারের সমর্থক এফডিপি এর আগে সোশ্যাল ডেমোক্র্যাট ও সবুজ দলের সঙ্গে জোট বাঁধতে আগ্রহী হয়নি। তবে এ বছর কোনো সম্ভাবনাই তারা বাতিল করছে না। বড় দলগুলো যেভাবেই হোক ক্ষমতায় ফিরতে চাইবে, তা যে রংয়ের জোটই হোক না কেন।

সূত্র : ডয়চে ভেলে।

ডি- এইচএ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়