সোমালিয়ার প্রেসিডেন্ট প্রাসাদের বাইরে আত্মঘাতী হামলা, নিহত ৭

আগের সংবাদ

জাতিসংঘে ভারত-পাকিস্তান বাগযুদ্ধ

পরের সংবাদ

স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলায় পোশাক খাতে করোনার হার কম ছিল

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১ , ৯:৫১ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১ , ৯:৫১ অপরাহ্ণ

মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর বলিষ্ঠ নেতৃত্বে পোশাক কারখানাগুলো কোডিড-১৯ মহামারীর শুরু থেকেই স্বাস্থ্যবিধি মেনে পরিচালিত হয়েছে। এতে পোশাক শিল্পে করোনা ভাইরাস শনাক্তের হার খুবই কম বলে জানিয়েছেন বিজিএমইএ এর সিনিয়র সহ-সভাপতি এস এম মান্নান (কচি)। তিনি বলেন, বাংলাদেশ ডায়াবেটিকস অ্যাসোসিয়েশন (বাডাস) এর মতো বড় একটি সেবাধর্মী প্রতিষ্ঠান পাশে থাকার জন্যই বিজিএমইএ পিসিআর ল্যাব স্থাপন করে শ্রমিকদেরকে সেবা দিতে সক্ষম হয়েছে। এজন্য তিনি বাডাস’কে ধন্যবাদ জানান। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন, পোশাক শিল্পের স্বার্থে প্রয়োজন অনুযায়ী বাডাস বিজিএমইএ’কে সহযোগিতায় এগিয়ে আসবে।

বাংলাদেশ পোশাক প্রস্তুতকারক ও রপ্তারিকারক সমিতি (বিজিএমইএ) গাজীপুরে পোশাক শ্রমিকদের করোনা ভাইরাস শনাক্তের নিমিত্তে স্থাপিত পিসিআর ল্যাব অনুদান হিসেবে বাংলাদেশ ডায়াবেটিকস অ্যাসোসিয়েশনকে (বাডাস) দিয়েছে। শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) বিজিএমইএ’র গুলশানস্থ পিআর অফিসে আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে বিজিএমইএ বাডাস’কে অনুদান হিসেবে পিসিআর ল্যাব হস্তান্তর করে।

বিজিএমইএ এর সিনিয়র সহ-সভাপতি এস এম মান্নান (কচি) এর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জাতীয় অধ্যাপক ও বাডাস এর সভাপতি প্রফেসর ড. এ কে আজাদ খান। এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন বিজিএমইএ এর সহ-সভাপতি শহিদউল্লাহ আজিম, সহ-সভাপতি (অর্থ) খন্দকার রফিকুল ইসলাম, পরিচালক এম.এ. রহিম (ফিরোজ), পরিচালক মো. মহিউদ্দিন রুবেল, পরিচালক মো. খসরু চৌধুরী, পরিচালক রাজীব চৌধুরী, সাবেক সহ-সভাপতি মো. মশিউল আজম (সজল), বিউএফটি এর ট্রাষ্টি বোর্ডের চেয়ারম্যান মোজাফ্ফর হোসেন সিদ্দীক এবং বাডাস এর সদস্য, ন্যাশনাল কাউন্সিল, এ মতিন চৌধুরী, বাডাস-বিজিএমইএ কোভিড-১৯ ডায়াগনষ্টিক প্রকল্পের পরিচালক ও রেজিষ্ট্রার, বাংলাদেশ ইউনিভার্সিটি অব হেলথ সাইন্সেস, প্রফেসর ডা. জাহিদ হাসান। এছাড়াও অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন বিজিএমইএ’র সহ-সভাপতি শহিদউল্লাহ আজিম ও সহ সভাপতি (অর্থ) খন্দকার রফিকুল ইসলাম।

পিসিআর ল্যাব অনুদান দেয়ার সময় এ বিষয়ে বিজিএমইএ ও বাডাস এর মধ্যে একটি সমঝোতা স্মারক স্বাক্ষরিত হয়, যেখানে বিজিএমইএ এর পক্ষে সিনিয়র সহ-সভাপতি এস এম মান্নান (কচি) এবং বাডাস এর পক্ষে জাতীয় অধ্যাপক ও বাডাস এর সভাপতি প্রফেসর ড. এ কে আজাদ খান স্বাক্ষর করেন।

জাতীয় অধ্যাপক ও বাডাস এর সভাপতি প্রফেসর ড. এ কে আজাদ খান তার বক্তব্যে পিসিআর ল্যাব স্থাপনের জন্য বিজিএমইএ’কে কৃতজ্ঞতা জানান। তিনি বলেন, বিজিএমইএ এর সহযোগিতা ছাড়া এই ল্যাব স্থাপন করা সম্ভব হতো না। তিনি আশাবাদ ব্যক্ত করেন যে, ভবিষ্যতে বাডাস বিজিএমইএ এর সাথে যৌথ উদ্যোগে ব্যাপক পরিসরে স্বাস্থ্য সেবা বিষয়ে আরো প্রকল্প হাতে নিবে। বাডাস এর সদস্য, ন্যাশনাল কাউন্সিল, এ মতিন চৌধুরী ল্যাব হস্তান্তর বিষয়টিকে সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, বেসরকারি-বেসরকারি (প্রাইভেট-প্রাইভেট) অংশীদারিত্বের এটি একটি চমৎকার উদাহরণ। তিনি বাডাস-বিজিএমইএ কোভিড-১৯ ডায়াগনষ্টিক প্রকল্পের সফলতার জন্য বিজিএমইএ ও বাডাস উভয়কেই ধন্যবাদ জানান। তিনি বলেন, স্বাস্থ্য সেবা দেয়ার বিষয়টি শিল্পের জন্য গুরুত্বপূর্ণ। এতে করে কর্মীদের অনুপস্থিতির হার কমে ও তাদের উৎপাদনশীলতা বাড়ে।

রি-এমএস/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়