বিশ্বকাপে তিন টাইগারের অনন্য কীর্তি

আগের সংবাদ

পুলিশের বাধায় কল্যাণ পার্টির গণযোগদান অনুষ্ঠান পণ্ড

পরের সংবাদ

জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনীর পুরস্কার বিতরণ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১ , ১০:৩৩ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৫, ২০২১ , ১০:৩৩ অপরাহ্ণ

চব্বিশতম জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনীর পুরস্কার বিতরণ ও সমাপনী অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়েছে। অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে শিল্পীদের মধ্যে পুরস্কার তুলে দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. আকতারুজ্জামান। বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির মহাপরিচালক লিয়াকত আলী লাকীর সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন শিল্প সমালোচক শাওন আকন্দ এবং শিল্প সমালোচক মোস্তফা জামান। স্বাগত বক্তব্য দেন একাডেমির চারুকলা বিভাগের পরিচালক সৈয়দা মাহবুবা করিম।

শনিবার (২৫ সেপ্টেম্বর) সন্ধ্যায় শিল্পকলা একাডেমির জাতীয় চিত্রশালা মিলনায়তনে এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করা হয়।

এ বছর ১১টি মাধ্যমে ১১টি শ্রেষ্ঠ পুরস্কার দেয়া হয়েছে। পুরস্কারপ্রাপ্ত প্রত্যেককে নগদ একলক্ষ টাকা, একটি সনদপত্র এবং ক্রেষ্ট দেয়া হয়। সকল মাধ্যম মিলিয়ে স্থাপনাশিল্পে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী মোহাম্মদ হাসানুর রহমান, স্থাপনাশিল্পে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার শিল্পী মো. ইমতিয়াজ ইসলাম, চিত্রকলায় শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী রুহুল করিম রুমী, ছাপচিত্রে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী আনিসুজ্জামান, ভাস্কর্যে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী কনক কুমার পাঠক, প্রাচ্যকলায় শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পান শিল্পী সুশান্ত কুমার অধিকারী, কারুশিল্পে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী সামিয়া আফরিন, মৃৎ শিল্প শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী মো. রবিউল ইসলাম, গ্রাফিক ডিজাইনে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী আল মঞ্জুর এলাহী, আলোকচিত্রে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী মো. আল ইয়াছা ইরফান উদ্দিন, পারফরমেন্স আর্টে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী ইফাত রেজোয়ানা রিয়া, নিউ মিডিয়া আর্টে শ্রেষ্ঠ পুরস্কার শিল্পী জিহান করিম।

এ ছাড়া ৫টি সম্মানসূচক পুরস্কার দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে চিত্রকলায় সম্মান সূচক পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী আবু তারেক মো. কাদিমুল ইসলাম যাদু, কাজী সাঈদ আহমেদ, ভাস্কর্যে সম্মানসূচক পুরস্কারশিল্পী আমিনুল ইসলাম আশিক, ভাস্কর্য সম্মান সূচক পুরস্কারশিল্পী অলক রাজবংশী, ছাপচিত্র সম্মানসূচক পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী মো. রফিকুল ইসলাম।

শিল্পীদের মধ্যে পুরস্কার তুলে দেন ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য ড. মো. আকতারুজ্জামান।

বরেণ্য ব্যক্তি এবং প্রতিষ্ঠানের নামে ৫টি বিশেষ সম্মাননা পুরস্কার দেয়া হয়েছে। এর মধ্যে রয়েছে চিত্রকলায় বেঙ্গল ফাউণ্ডেশন সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন চিত্রকলায় শিল্পী অভিজিৎ চৌধুরী, শিল্পী কালিদাস কর্মকার সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী রাসেল কান্তি দাশ, ভাস্কর্যে ভাষা শহীদ গাজীউল হক সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী মো. তানভীর আহমেদ জয়, স্থাপনা শিল্পে শাহজালাল ইসলামী ব্যাংক ফাউণ্ডেশন সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী প্রমথেশ দাস পুলক, ছাপচিত্রে শিল্পী কাজী আনোয়ার হোসেন সম্মাননা পুরস্কার পেয়েছেন শিল্পী কামরুজ্জামান। এ ছাড়া সকল মাধ্যমের শ্রেষ্ঠ পুরস্কার ‘শিল্পকর্ম: ‘আদিকথা’র জন্য ‘২২তম নবীন শিল্পী চারুকলা পুরস্কার ২০২০’ পেয়েছেন সোমা সুরভী জান্নাত।

এ বছরই ২৪তম জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনী ২০২১ এ প্রত্যেকটি মাধ্যমে একটি করে মোট ১১টি শ্রেষ্ঠ পুরস্কার দেয়া হয়। সকল মাধ্যম মিলিয়ে ‘বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি পুরস্কার-২০২১’ নামে একটি শ্রেষ্ঠ পুরস্কার দেয়া হয়। উল্লেখ্য যে, মাধ্যমভিত্তিক প্রতিটি শ্রেষ্ঠ পুরস্কারের জন্য এক লক্ষ টাকা এবং সকল মাধ্যমে শ্রেষ্ঠ পুরস্কারের জন্য দুই লক্ষ টাকা প্রদান করা হয়। এছাড়া একটি মেডেল, একটি ক্রেস্ট ও একটি সার্টিফিকেট প্রদান করা হয়। পাঁচটি সম্মানসূচক পুরস্কার প্রদান করা হয় যার প্রতিটির মূল্যমান পঞ্চাশ হাজার টাকা। সাথে স্পন্সরশীপ পুরস্কারও রয়েছে। পুরস্কার নির্বাচনের জন্য জুরি কমিটির সম্মানিত সদস্যগণ ছিলেন শিল্পী আব্দুল মান্নান, শিল্পী আবুল বারক্ আলভী, শিল্পী ড. ফরিদা জামান, শিল্পী ড. মোস্তফা শরীফ আনোয়ার, শিল্পী সৈয়দা মাহবুবা করিম, শিল্পী মোস্তফা জামান।

উল্লেখ্য, ২৪তম জাতীয় চারুকলা প্রদর্শনী ২০২১-এর নীতিমালা অনুযায়ী ২১ বছরের উর্ধে বাংলাদেশের ৭৮৬ জন শিল্পীর সহস্রাধিক শিল্পকর্মের আবেদন জমা পড়ে। শিল্পকর্ম নির্বাচকমন্ডলী বিভিন্ন মাধ্যমের ৩২৩ জন শিল্পীর ৩৪৭টি শিল্পকর্ম নির্বাচন করেন। নির্বাচিত এ সকল শিল্পকর্মের মধ্যে রয়েছে চিত্রকলা ১৫৭টি, ছাপচিত্র ৫৩টি, আলোকচিত্র ১৭টি, ভাস্কর্য ৪৭টি, প্রাচ্যকলা ১০টি, মৃৎশিল্প ৭টি, কারুশিল্প ২০টি, গ্রাফিক ডিজাইন ৫টি, স্থাপনাশিল্প ১৮টি, নিউ মিডিয়া আর্ট ৭টি, পারফরমেন্স আর্ট ৬টি। শিল্পকর্ম নির্বাচন কমিটির সদস্যরা হলেন শিল্পী মামুন কায়সার, শিল্পী মাহমুদা বেগম, শিল্পী মো. মুছলিম মিয়া, শিল্পী স্বপন কুমার সিকদার এবং শিল্পী ফারুক আহাম্মদ মোল্লা।

রি-এসবি/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়