সোনা মহাপাত্র যার কারণে গান থেকে বাদ পড়লেন!

আগের সংবাদ

বরযাত্রীবাহী মাইক্রোবাস দুর্ঘটনায় নারীর মৃত্যু, আহত ১৫

পরের সংবাদ

ভাঙ্গনের মুখে চেঙ্গী ইউনিয়ন পরিষদ

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ , ৬:১৬ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৪, ২০২১ , ৬:১৭ অপরাহ্ণ

খাগড়াছড়ি জেলার পানছড়ি উপজেলার ২ নং চেঙ্গী ইউনিয়ন পরিষদ ভবনটি পাহাড়ি ছড়ার তীর ভাঙ্গনের সঙ্গে অস্তিত্ব হারাতে বসেছে। ব্যাপক ভাঙ্গনে ইতিমধ্যেই ভবনটির একাংশ ছড়ায় চলে গেছে।

সরেজমিন দেখা যায়, আশি দশকের ইউপি ভবনটির পূর্বাংশ পুজগাং ছড়ার খর স্রোতে তীর ভেঙ্গে এক অংশ ছড়ায় বিলিন হয়ে পড়েছে। সরিয়ে নেওয়া হয়েছে মালামাল। ঝুঁকি নিয়েই বাকি অংশে কোন রকমে নিত্য দিনের কাজ চালাচ্ছেন ইউপি চেয়ারম্যান ও সদস্যরা।

চেঙ্গী ইউপি চেয়ারম্যান কাঁলা চাদ চাকমা জানান, গত তিন বছরে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের পূর্বাংশ আস্তে আস্তে ভেঙ্গে পড়ছে। ভবন না থাকায় ভাঙ্গা পুরাতন ভবনেই ঝুঁকি নিয়ে কাজ চালাচ্ছি। আমি উপজেলা চেয়ারম্যান, ইউএনও, এলজিইডি সহ বিভিন্ন স্থানে আবেদন করেছি। বরাদ্ধও এসেছে। কিন্তু ভূমি সমস্যা দেখিয়ে নতুন ভবনের কাজ করে নাই। স্থানীয় বাসিন্দা বিনোদ বরণ চাকমা ইউনিয়ন পরিষদের ভবনের জন্য ৪০ শতক ভূমি কাগজপত্রে দান করে ভূমি বুঝিয়ে দিয়েছেন। আমিও তা উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও উপজেলা প্রকৌশলীকে বুঝিয়ে দিয়েছি। তারপরও কী কারণে ইউনিয়ন পরিষদ ভবনের কাজ হচ্ছেনা তা জানা নাই।

ইউপি ভবন বিষয়ে পানছড়ি উপজেলা প্রকৌশলী অরুন কুমার দাশ বলেন, চেঙ্গী ইউনিয়ন পরিষদের বরাদ্দ আছে। ভূমি সংক্রান্ত কাগজপত্র দিয়েছে, আমি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মারফত পাঠিয়েছি। তারপরও ভূমি সংক্রান্ত ঝামেলাটা ইউপি চেয়ারম্যান শেষ করে দিলেই ভবন হয়ে যাবে।

পুজগাং মুখ উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক শান্তি ময় চাকমা, মধুমঙ্গল পাড়ার নুতন ধন চাকমা সহ বেশ কয়েকজনের সঙ্গে আলাপকালে জানান, সারাদেশের স্থানীয় সরকার বিভাগ আধুনিক ইউনিয়ন পরিষদ ভবন নির্মান করলেও পার্বত্য খাগড়াছড়ির পানছড়ি উপজেলার ২ নং চেঙ্গী ইউনিয়ন পরিষদের ভবনটি ভেঙ্গে পড়ার পরও আজো তা নির্মাণ করে নাই।

অপরদিকে পাহাড়ি খরস্রোতা পুজগাং ছড়ার পানির ধাক্কায় ইউনিয়ন পরিষদটি বিলিন হয়ে পড়ছে। এতে নাগরিক সুবিধা হতে বঞ্চিত হচ্ছে সাধারন মানুষ। ইউনিয়ন পরিষদের সঙ্গেই ইউনিয়ন কমিউনিটি স্বাস্থ্য ক্লিনিক সহ পুজগাং বাজার। ছড়ায় তীর রক্ষা বাঁধ দেওয়া না হলে ঘটতে পারে বড় ধরনের দুর্ঘটনা। একইসঙ্গে নতুন জায়গায় ইউপি ভবন নির্মাণ করে নাগরিক সুবিধা পেতে সংশ্লিষ্ট প্রশাসনের সহযোগীতা চেয়েছেন এলাকাবাসী।

রি-এমআরএ/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়