অনলাইন গেম থেকে মুক্তির পথ খুঁজুন

আগের সংবাদ

সাংবাদিকদের ব্যাংক হিসাব তলব অনভিপ্রেত

পরের সংবাদ

সড়ক-মহাসড়কের যানজট দূরীকরণ ও জবাবদিহিতা

ওসমান গনি

লেখক ও সাংবাদিক

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১ , ১:০৫ পূর্বাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ২৩, ২০২১ , ১:০৫ পূর্বাহ্ণ

যানজট সমস্যা আমাদের দেশে নতুন কোনো সমস্যা নয়। এটি এখন আমাদের দেশে যত সমস্যা রয়েছে তার চেয়ে অনেক ভয়ঙ্কর একটি সমস্যা। এ যানজট সমস্যা এখন আমাদের দেশে একটি জাতীয় সমস্যা হয়ে দাঁড়িয়েছে। যানজট সমস্যা আমাদের জাতীয় অর্থনীতির জন্যও একটি মারাত্মক সমস্যা। রাষ্ট্রের এমন কোনো খাত নেই যেখানে যানজটের কারণে ক্ষতি হয়নি। এ সমস্যা নিরসন করার জন্য বহু বছর ধরে পত্রপত্রিকা ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে লেখালেখি হয়ে থাকলেও কোনোরকম সুরাহা হচ্ছে না। যানজট নিরসনকল্পে দেশেও সাধারণ মানুুষ মিছিল মিটিং আন্দোলন করছে কিন্তু কিছুই হয়নি। সাধারণ মানুষের সঙ্গে সরকারও যানজট নিরসনের জন্য চেষ্টা চালিয়েছে, কিন্তু যানজট নিরসন করতে পারেনি। কারণ সর্ষে ভূত রেখে যেমন ভূত তাড়ানো সম্ভব না যানজট নিরসনটাও ঠিক সেরকম। যানজট কোনো প্রকৃত সমস্যা নয়। এটা মানবসৃষ্ট। তাহলে কেন এ রকম সমস্যার সমাধান হবে না? যানজট যেহেতু মানবসৃষ্ট তাহলে এ সমস্যার সমাধানও রয়েছে। খুঁজে বের করতে হবে যানজটের জন্য কে বা কারা দায়ী। কেন যানজট হচ্ছে তার মূল গোড়া খুঁজে বের করে তা সমাধান করলেই যানজট শেষ হয়ে যায়। আমাদের দেশে যানজটের জন্য সাধারণ মানুষের চোখে যে সমস্যাগুলো সচরাচর চোখে বাজে- তা হলো ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠানের কাজ বিলম্বিত করা। অর্থাৎ ঠিকাদারি প্রতিষ্ঠান যে কাজ করে তা তারা তাদের নির্ধারিত সময়ে করতে না পারা। সড়ক-মহাসড়কে এলোপাতাড়ি যানবাহন ফেলে রাখা বা দাঁড় করিয়ে যাত্রী ওঠানামা করা, সড়ক-মহাসড়কের নিয়মনীতি না মেনে যানবাহন চালানোসহ আরো বহুবিধ কারণে যানজট সৃষ্টি হয়। দেশ এগিয়ে যাচ্ছে, সঙ্গে সঙ্গে দেশের বিভিন্ন খাতে চোখে পড়ার মতো উন্নয়নও হচ্ছে। এ রকম একটি দৃশ্যমান উন্নয়ন খাত হলো যোগাযোগব্যবস্থা। যে খাতটি দেশের উন্নয়নমূলক খাতে একটি মাইলফলক সৃষ্টি করছে। দেশের যোগাযোগব্যবস্থার উন্নয়ন হওয়ার ফলে সড়ক-মহাসড়কে পাল্লা দিয়ে বাড়ছে যানবাহন, সে সঙ্গে বাড়ছে যাত্রীর সংখ্যা। এটাই স্বাভাবিক নিয়ম। দেশের উন্নয়ন হলে মানুুষ সুযোগ-সুবিধা ভোগ করবে। কিন্তু তার অর্থ এই নয় যে, নিয়মনীতি থাকবে না, নিয়মনীতি মেনে চললে যানবাহন যতই বাড়ুক কোনো যানজট হবে না। রাজধানীসহ দেশের সব সড়ক-মহাসড়কে যানজট, জনগণের দুর্ভোগ ও ক্ষয়ক্ষতি সহনীয় পর্যায়ে আনা মোটেই অসম্ভব নয়। সড়ক-মহাসড়ক থেকে অলিগলি পর্যন্ত সর্বত্র দখল ও প্রতিবন্ধকতা মুক্ত করা গেলে এটা সম্ভব। রাজধানীর যানজট নিরসনে যত দ্রুত সম্ভব মেগা প্রকল্পগুলোর কাজ শেষ করতে হবে। যানজট মোচনের জন্যই মেগা প্রকল্পগুলো নেয়া হয়েছে। অথচ সেগুলো সমাপ্ত না হওয়ায় মানুষ তাদের সুবিধা ভোগ করতে পারছে না। কাজেই জরুরিভিত্তিতে মেগা প্রকল্পগুলো শেষ করতে হবে। দ্বিতীয়ত, বিভিন্ন সেবাসংস্থার উন্নয়ন ও সংস্কার কাজ অবিলম্বে শেষ করতে হবে। ভাঙাচোরা রাস্তা সঙ্গে সঙ্গে মেরামত করতে হবে। কাজের ক্ষেত্রে সমন্বয়ের অভাব রয়েছে বলে অনেক দিন ধরে অভিযোগ করা হচ্ছে। এর কোনো প্রতিকার নেই। এক্ষেত্রে সমন্বিত কার্যব্যবস্থা জরুরি এবং অবশ্যই তা করতে হবে। পাশাপাশি পরিবহন ব্যবস্থাপনা ও ট্রাফিক ব্যবস্থার উন্নতি বিধান করতে হবে। এসব করা গেলে যানজট এবং যানজটজনিত দুর্ভোগ ও ক্ষতি কমে আসবে বলে আশা করা যায়।
ওসমান গনি
লেখক ও সাংবাদিক।
[email protected]

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়