করোনা বাড়লে প্রয়োজনে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান আবার বন্ধ: শিক্ষামন্ত্রী

আগের সংবাদ

৪৬ বছরের রেকর্ড বৃষ্টিতে ভাসল দিল্লি বিমানবন্দর

পরের সংবাদ

মদনে ১২ প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা নিয়ে অনিশ্চয়তা

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১ , ৩:৫২ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ১১, ২০২১ , ৩:৫২ অপরাহ্ণ

নেত্রকোনায় মদন উপজেলার হাওরাঞ্চলে ১২টি প্রাথমিক বিদ্যালয় খোলা নিয়ে অনিশ্চিয়তা দেখা দিয়েছে। বর্ষাকালে এসব বিদ্যালয়গুলোর প্রবেশদ্বার পানিবন্দি থাকায় এ অবস্থার সৃষ্টি হয়েছে।

উপজেলা শিক্ষা অফিস সূত্রে জানা গেছে, মদন উপজেলায় ৯৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। এর মধ্যে হাওরাঞ্চলের ১২ টি বিদ্যালয়ের চারপাশে পানি রয়েছে।

শনিবার (১১ সেপ্টেম্বর) সকালে ধানকুনিয়া আবুল হাসেম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ে সরজমিনে গেলে, বিদ্যালয়ে কাউকে পাওয়া যায়নি। বিদ্যালয়টি তালা বদ্ধ অবস্থায় রয়েছে। পাশের বাড়ির ৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী আলাল উদ্দিন ও মামুন জানায়, গত দেড় বছর ধরে স্কুলে যাইতে পারি না। শুনছি স্কুল খোলতাছে। শোনে ভাল লাগছে। কিন্তু আমাদের স্কুলে বড় সমস্যা হল বিদ্যালয়ের চারদিকে পানি। স্কুল খোলা থাকলে যদি না যেতে পারি মনটা খারাপ লাগবে।

এদিকে মনিকা পশ্চিমপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মো. সিরাজুল ইসলাম বলেন, সরকারি নির্দেশনা অনুযায়ী যথারীতি বিদ্যালয় খোলা হবে। আমরা প্রস্তুত আছি। বিদ্যালয় খুললেও কোনো অসুবিধা হবে না।

ধানকুনিয়া আবুল হাসেম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের জমিদাতা ও সভাপতি আবুল হাসেম বলেন, বর্ষাকালে বিদ্যালয়টির চার দিকেই পানি থাকে। দেড় বছর পর বিদ্যালয় খুললেও চার পাশে পানি থাকায় বিশেষ করে শিশুরা বিদ্যালয়ে যেতে পারবে না। বিদ্যালয়ে গেলে শিশুরা ঝুঁকিতে থাকবে। মাটি কেটে বিদ্যালয়টির ভিট আরো উঁচু করতে আবেদন করেছি।

এদিকে পানি বন্দি বিদ্যালয় গুলো হলো- ধান কুনিয়া আবুল হাসেম সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মনিকা পশ্চিমপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, নওধার সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, বারঘরিয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, পদমশ্রী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, রামদাসখিলা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ছত্রমপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঘাটুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, গোবিন্দশ্রী বড্ডা সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, মান্দারুয়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, খালাসিপাড়া সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, ত্রিপন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, জঙ্গলডেমারগাতী সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়। এসব বিদ্যালয় গুলোতে প্রায় ২ হাজার শিক্ষার্থী অধ্যায়নরত অবস্থায় আছে।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা কর্মকর্তা আবুল হোসেন বলেন, উপজেলায় ৯৪টি সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় রয়েছে। সরকারি নির্দেশনা মোতাবেক সকল বিদ্যালয় খোলার প্রস্তুতি সম্পন্ন করেছি। তবে কয়েকটি বিদ্যালয়ের মাঠে ও চার পাশে পানি রয়েছে। এসব বিদ্যালয়ের শিশুরা নৌকা যোগে বিদ্যালয়ে আসতে অভ্যস্ত। ফলে শিক্ষা কার্যক্রমে কোন সমস্যা হবার কথা না।

উপজেলা নির্বাহী অফিসার বুলবুল আহমেদ বলেন, মদন উপজেলায় বিশেষ করে বর্ষাকালে এসব নিচু এলাকার বিদ্যালয়গুলোর চারপাশে পানি থাকে। তবে শিশুদের যাতায়াতে যেন কোন অসুবিধা সৃষ্টি না হয় সে ব্যাপারে শিক্ষা কর্মকর্তার সঙ্গে আলোচনা করব এবং এসব বিষয় নিয়ে আমি উর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গেও কথা বলবো।

রি-পিডি/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়