রোহিঙ্গা সংকটের সমাধান কোথায়?

আগের সংবাদ

শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান খুলছে, পাবলিক পরীক্ষাও নিতে হবে দ্রুত

পরের সংবাদ

স্বপ্নের মেট্রোরেল : নগরবাসীর জীবনে স্বাচ্ছন্দ্য ও গতি আসুক

মো. তামিম সিফাতুল্লাহ

শিক্ষার্থী, মদীনাতুল উলুম কামিল মাদ্রাসা, রাজশাহী সদর

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১ , ১:৪৪ পূর্বাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ৯, ২০২১ , ১:৪৫ পূর্বাহ্ণ

সরকারের মেগা প্রকল্পগুলোর অন্যতম মেট্রোরেল এখন আর স্বপ্ন নয়, দৃশ্যমান এক বাস্তবতা। গত রবিবার এর পরীক্ষামূলক চলাচল শুরু হয়েছে। রাজধানীর দিয়াবাড়ি থেকে যাত্রা শুরু করে পল্লবী হয়ে ঘুরে আবার ডিপোয় ফিরে গেছে এ ট্রেন। এভাবে এটি ৬ মাস চলবে পরীক্ষামূলকভাবে। তবে মেট্রোরেল যাত্রী পরিবহন উপযোগী হতে আরো অন্তত ১৬ মাস সময় লাগবে। সবকিছু ঠিক থাকলে উত্তরা মতিঝিল রুটের উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত অংশে আনুষ্ঠানিকভাবে যাত্রী পরিবহন শুরু হওয়ার কথা আগামী বছরের ডিসেম্বরে। রাজধানীবাসী অধীর আগ্রহে অপেক্ষা করছে এ দিনটির জন্য। মেট্রোরেল এ নগরবাসীর জীবনে স্বাচ্ছন্দ্য ও গতি আনবে বলে আমাদের বিশ্বাস।
২০৩০ সালের মধ্যে ছয়টি মেট্রোরেল লাইন নির্মাণের পরিকল্পনা রয়েছে সরকারের। সব লাইনের কাজ সম্পন্ন হলে রাজধানীর গণপরিবহন ব্যবস্থায় যুগান্তকারী পরিবর্তন আসবে সন্দেহ নেই। অসহনীয় যানজট থেকেও মুক্ত হবে নগরবাসী। দেশে বর্তমানে কয়েকটি মেগা প্রকল্পের কাজ চলমান। এগুলোর প্রতিটির বিষয়ে মানুষের ব্যাপক আগ্রহ থাকলেও মেট্রোরেল প্রকল্পের প্রতি দেশবাসী, বিশেষ করে রাজধানীবাসীর আগ্রহ স্বভাবতই বেশি। এদিকে রয়েছে সবার বিশেষ দৃষ্টি। তাই আমরা মনে করি, রাজধানী ও এর আশপাশ এলাকার গণপরিবহন সংকটের সমাধানে যেসব প্রকল্পের কাজ চলছে, সেসব প্রকল্প নির্ধারিত সময়ে বাস্তবায়নে কার্যকর পদক্ষেপ নেয়া উচিত। সরকার অবশ্য সর্বোচ্চ অগ্রাধিকারে থাকা ফাস্টট্র্যাক প্রকল্পের আওতায় রেখেছে একে। করোনা পরিস্থিতির কারণে মেট্রোরেল প্রকল্পের কাজের গতি কিছুটা শ্লথ হয়ে পড়েছিল। করোনার আগে ৩ শিফটে কাজ চললেও পরে একটি শিফট কমিয়ে দেয়া হয়। আশার কথা, এরপরও প্রকল্পটির প্রথম অংশ নির্ধারিত সময়েই বাস্তবায়িত হবে বলে প্রতীয়মান। অন্য প্রকল্পগুলোও যথাসম্ভব দ্রুত সম্পন্ন করার বিষয়ে গুরুত্ব দিতে হবে। রাজধানীর সবচেয়ে বড় সমস্যাগুলোর একটি গণপরিবহন সংকট। এ সমস্যা নিরসনে নানা পদক্ষেপ নেয়া হলেও বাস্তবতা হলো দুয়েকটি ছাড়া রাজধানীর সব রুটের গণপরিবহনে যাত্রীসেবা অত্যন্ত নি¤œমানের। ফলে বাধ্য হয়েই অনেকে ব্যক্তিগত গাড়ি কিনে থাকেন। রাজধানীর তীব্র যানজটের এটি একটি বড় কারণ। এ বাস্তবতায় রাজধানীবাসী একটি মানসম্মত গণপরিবহনের অপেক্ষায় আছে দীর্ঘদিন ধরে। মেট্রোরেল চালু হলে গণপরিবহনের অভাব অনেকাংশে দূর হবে সন্দেহ নেই। বাঁচবে নগরবাসীর মূল্যবান সময়ও। তবে মূলত উত্তর-দক্ষিণ পথে চলাচলকারীরাই এর সুফল পাবেন। এ মহানগরীতে উত্তর-দক্ষিণমুখী সড়ক তুলনামূলক বেশি, আবার মেট্রোরেলও উত্তর-দক্ষিণমুখী এ নগরীতে পূর্ব-পশ্চিমমুখী সড়কের সংখ্যা অনেক কম। এ বাস্তবতায় ঢাকাবাসীর যাতায়াতের দুর্ভোগ পুরোপুরি নিরসনে আমাদের নগর পরিকল্পনাবিদ এবং সরকারের নীতিনির্ধারকদের উচিত এ দিকটিতে বিশেষভাবে দৃষ্টি দেয়া।
মো. তামিম সিফাতুল্লাহ
শিক্ষার্থী, মদীনাতুল উলুম কামিল মাদ্রাসা, রাজশাহী সদর।
[email protected]

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়