ফেসবুক ইউটিউব নিয়ে অসহায় বিটিআরসি

আগের সংবাদ

জামায়াতের সেক্রেটারি গোলাম পরওয়ারসহ ৯ নেতাকর্মী আটক

পরের সংবাদ

পরী মনির অবমাননাকর কনটেন্ট সরাতে ফেসবুক-ইউটিউবকে অনুরোধ বিটিআরসির

প্রকাশিত: সেপ্টেম্বর ৬, ২০২১ , ৭:৫৫ অপরাহ্ণ আপডেট: সেপ্টেম্বর ৭, ২০২১ , ৩:৩৩ পূর্বাহ্ণ

চিত্রনায়িকা পরী মনিকে নিয়ে অবমাননাকর কনটেন্ট সরিয়ে নিতে ফেসবুক ও ইউটিউব কর্তৃপক্ষকে অনুরোধ জানিয়েছে বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশন (বিটিআরসি)।

সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম, কনটেন্ট ও আনুষাঙ্গিক বিষয়ে সোমবার (৬ সেপ্টেম্বর) রাজধানীর রমনায় বিটিআরসির প্রধান কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সংস্থাটির চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার এ কথা জানান।

তিনি বলেন, চিত্র নায়িকা পরী মনিকে নিয়ে অবমাননাকর প্রচারণার জন্য ইউটিউবের ২৬টি ও ফেসবুকে ৩৫টি লিংক বন্ধের অনুরোধ জানানো হয়েছে। গত ১ বছরে বিটিআরসি ফেসবুকের ১৮ হাজার ৮৩৬টি লিংক বন্ধের অনুরোধ জানিয়েছিল ওই কর্তৃপক্ষের কাছে। কিন্তু ফেসবুক মাত্র ৪ হাজার ৮৮৮টি লিংক বন্ধ করেছে। ইউটিউবের ৪৩১ লিংক বন্ধের বিপরীতে করেছে ৬২টি। তবে উচ্চ আদালতের নির্দেশনা, আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারীর অনুরোধ ও বিটিআরসি নিজ উদ্যোগে পাবজি, ফ্রি-ফায়ার, বিভিন্ন উস্কানীমূলক ও ক্ষতিকর ১ হাজার ৬০ টি ওয়েবসাইট বন্ধের উদ্যোগ নেয়া হয়। সিটিডিআর সিস্টেমের মাধ্যমে সবগুলোই বন্ধ করা হয়েছে। তবে ভিপিএন দিয়ে, নতুন নাম দিয়ে একের পর এক সাইটও খোলা হচ্ছে। তিনি বলেন, আমরা যখনই এ ধরণের সাইট চালুর কথা জানতে পারি, তখনই সেটি বন্ধ করি।

বিটিআরসি’র চেয়ারম্যান শ্যাম সুন্দর সিকদার।

বিটিআরসির চেয়ারম্যান বলেন, সাইবার ওয়ার্ল্ড উন্মুক্ত বিষয়। সোশ্যাল মিডিয়ার নিয়ন্ত্রণ বিটিআরসির হাতে নেই। আমরা চেষ্টা করছি, বাংলাদেশে ফেসবুকের অফিস স্থাপন করতে এবং তারা যেন আমাদের গাইডলাইন মত কাজ করে। এছাড়া সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে মনিটরিংয়ের ব্যবস্থা করতে যাচ্ছে বিটিআরসি। এতে কেউ অপরাধমূলক কাজ করলে তার বিরুদ্ধে আইনশৃঙ্খলা রক্ষাকারী বাহিনীকে ব্যবস্থা নিতে আমরা বলতে পারব। আগামী বছরের ফেব্রুয়ারির মধ্যে বিটিআরসির প্রধান কার্যালয়ে যন্ত্রপাতি স্থাপনের কাজ শেষ হবে বলে জানান তিনি।

অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন ডাক ও টেলিযোগাযোগ মন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার। বিটিআরসির অসহায়ত্ব প্রকাশ করে তিনি বলেন, ফেসবুক, ইউটিউবসহ সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে কনটেন্ট অপসারণের ক্ষমতা বাংলাদেশ টেলিযোগাযোগ নিয়ন্ত্রণ কমিশনের (বিটিআরসি) নেই। আমরা পারি শুধু অনুরোধ করতে। এ ছাড়া লাইকি, বিগোলাইভ, টিকটকের মতো ক্ষতিকর সাইটও পুরোপুরি বন্ধ করা যায় না। কারণ বন্ধ করা হলেও ভিপিএন দিয়ে বিকল্প পথে সেগুলো আবার চালু করা যায়। এই অনুষ্ঠানে ২২ হাজার পর্নো ও জুয়ার সাইট বন্ধের কথাও তিনি জানান।

ডি-আরআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়