কাবুল হামলার পরিকল্পনাকারী ড্রোন হামলায় নিহত: যুক্তরাষ্ট্র

আগের সংবাদ

সিলেট-৩ উপ-নির্বাচনে থাকবে ২১ ভ্রাম্যমাণ আদালত

পরের সংবাদ

করোনা পরীক্ষার কিট কেনায় অনিয়ম তদন্তে আইনি নোটিশ

প্রকাশিত: আগস্ট ২৮, ২০২১ , ১০:২৮ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ২৮, ২০২১ , ১০:২৮ অপরাহ্ণ

করোনা পরীক্ষার কিট কেনায় সাজানো দরপত্র বাতিল এবং কিট কেনা অনিয়ম তদন্তে কমিটি গঠনের জন্য আইনি নোটিশ পাঠানো হয়েছে। জনস্বার্থে পরবর্তী ১২ ঘন্টার মধ্যে কেন্দ্রীয় ঔষাধাগার কর্তৃক প্রকাশিত দরপত্রটি বাতিল এবং এই বিষয়ে তদন্ত কমিটি গঠন করে তদন্তপূর্বক প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণের অনুরোধ জানানো হয়েছে। অন্যথায় প্রয়োজনীয় আইনগত ব্যবস্থা নেয়া হবে বলেও নোটিশে জানানো হয়।

স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের সচিব, প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের মুখ্য সচিব, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক, আইইডিসিআর পরিচালক, কেন্দ্রীয় ঔষধাগার পরিচালক, চীনের সান সিউর বায়োটেক কোম্পানির বাংলাদেশি এজেন্ট ওভারসিজ মার্কেটিং কর্পোরেশন এর ব্যবস্থাপনা পরিচালকে এ নোটিশ পাঠানো হয়েছে। মানবাধিকার সংগঠন ল এন্ড লাইফ ফাউন্ডেশনের পক্ষে সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ব্যারিস্টার মোহাম্মদ হুমায়ন কবির পল্লব এবং ব্যারিস্টার মোহাম্মদ কাওছার শনিবার এ নোটিশ পাঠান।

নোটিশে বলা হয়, করোনাকালীন সময়ের বিভিন্ন মেডিকেল সামগ্রী কেনার ক্ষেত্রে প্রথম থেকেই ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগ রয়েছে। শত শত কোটি টাকা লুটপাট ও আত্মসাতের ঘটনা ঘটেছে। করোনা মোকাবেলায় একটি অন্যতম গুরুত্বপূর্ণ সামগ্রী হল করোনা সনাক্তকরণের সঠিক মানসম্পন্ন কিট এর ব্যবহার। এসব কিট কেনার জন্য কেন্দ্রীয় ঔষধাগার কর্তৃপ শুরু থেকেই সরাসরি কিনতো। কিন্তু ব্যাপক অনিয়মের অভিযোগের পর করোনা সনাক্তকরণের আরটিপিসিআর কিট উন্মুক্ত দরপত্র প্রক্রিয়ায় কেনার উদ্যোগ নিয়েছে কেন্দ্রীয় ঔষধাগার কর্তৃপক্ষ।

প্রতিষ্ঠানটির পক্ষ থেকে গত ২২ তিনটি লটে ১৮০ কোটি টাকার ২০ ল কিট কেনার জন্য উন্মুক্ত দরপত্র আহ্বান করা হয়েছে। ধারণা করা হয়েছিল সিন্ডিকেট বাণিজ্যের পরিবর্তে গুণগত মানসম্পন্ন কিট কেনার মাধ্যমে মরণঘাতী করোনা মহামারী প্রতিরোধ এবং ব্যবস্থাপনায় সরকারের নেয়া জনকল্যাণমূলক প্রচেষ্টা বাস্তবায়নে উম্মুক্ত দরপত্রের মাধ্যমে সঠিক মানসম্পন্ন কিট ক্রয় করা হবে। কিন্তু দরপত্রের শর্তের বেড়াজালে আটকে দেয়া হয়েছে সুলভ মূল্যে গুণগত মানসম্পন্ন কিট কেনার সম্ভাবনা।

নোটিশে আরো বলা হয়, দরপত্রের শর্তাবলীতে গত এক বছরে বাংলাদেশে এ ধরনের কিট সরবরাহের সুনির্দিষ্ট অভিজ্ঞতার শর্ত জুড়ে দেয়া হয়েছে যে অভিজ্ঞতা কেবল সান সিওর কোম্পানিরই রয়েছে। ফলে ২০ ল আর টি পি সি আর কিট কেনার দরপত্রে সান সিউর বায়োটেক ছাড়া অন্য কোন কোম্পানির কিট সরবরাহের কোনো সুযোগ নেই। একটি সিন্ডিকেটকে দরপত্র পাইয়ে দেয়ার জন্য শর্তাবলীতে অযাচিত সংশোধনী এনে কিটের বিশুদ্ধতার সমর্থনে সংশ্লিষ্ট উৎপাদনকারী প্রতিষ্ঠানের সনদপত্র প্রদানের শর্ত বিলোপ করা হয়েছে যা পাবলিক প্রকিউরমেন্ট বিধিমালা ২০০৮ এর ৪৯ বিধির চরম লংঘন।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়