জোয়ারের পানিতে ডুবে গেছে লঞ্চঘাট

আগের সংবাদ

দুই হাজার কোটি টাকা মানি লন্ডারিং মামলার আসামি আটক

পরের সংবাদ

দলীয় সরকারের অধীনে সংসদ নির্বাচনে অংশ নেবে না বিএনপি: প্রিন্স

প্রকাশিত: আগস্ট ২৬, ২০২১ , ১০:০২ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ২৬, ২০২১ , ১০:০২ অপরাহ্ণ

স্থানীয় সরকার ও জাতীয় সংসদের উপ-নির্বাচন বর্জন করেছে বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী দল- বিএনপি। নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া দলীয় সরকারের অধীনে আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনেও দলটি অংশগ্রহণ করবে না। বৃহস্পতিবার (২৬ আগস্ট) ইসিতে দলের আয়-ব্যয়ের হিসাব জমা দেওয়ার পর সাংবাদিকদের কাছে এমন কথা জানান দলটির সাংগঠনিক সম্পাদক এমরান সালেহ প্রিন্স।

আপনারা এখন উপনির্বাচন, স্থানীয় সরকার নির্বাচনে যাচ্ছেন না। দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন যদি এই প্রক্রিয়ার মধ্যেই যায়। তখন আপনাদের দল কি ভাববে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, এই প্রক্রিয়ার মধ্যে নির্বাচন অবাধ, নিরপেক্ষ ও সুষ্ঠু হবে না। জনগণের মতের প্রতিফলন ঘটবে না। বিগত ২০১৪ এবং ২০১৮ সালের দুই নির্বাচনে এটা স্পষ্টভাবেই প্রমাণিত হয়েছে। সেই কারণে বর্তমান সরকারের অধীনে বা বর্তমান নির্বাচন কমিশনের অধীনে কোনো নির্বাচনে যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না। আমরা একটি নির্দলীয়, নিরপেক্ষ, তত্ত্বাবধায়ক সরকারের অধিনে নির্বাচন চাই। সেই সরকারকে যেই নামেই ডাকা হোক না কেনো। আমরা দল নিরপেক্ষ সরকার চাই। দল নিরপেক্ষ এবং সরকারের প্রভাব মুক্ত একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন কমিশন চাই।

দলীয় সরকারের অধীনেই যদি দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচন আয়োজন করা হয়। সেই নির্বাচনে বিএনপি যাবে না? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, সেটা তো আমরা আগেই বলেছি। নিরপেক্ষ সরকার ছাড়া নির্বাচনে যাওয়ার প্রশ্নই ওঠে না।

এই নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ আগামী ১৫ ফেব্রুয়ারি শেষ হচ্ছে। নতুন নির্বাচন কমিশন গঠনে বিএনপির কি ভূমিকা থাকবে এবং আপনারা কোন ধরনের নির্বাচন কমিশন চান? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আমরা সেই ব্যাপারে নিশ্চয়ই চিন্তা-ভাবনা করছি। শুধু বিএনপি নয়, বাংলাদেশে যারা নির্বাচন নিয়ে চিন্তা করে, গণতন্ত্র নিয়ে চিন্তা করে, দেশের মানুষের ভোটের অধিকার নিয়ে চিন্তা করে, এই রকম রাজনৈতিক দল বা সুশীল সমাজ কিংবা বিভিন্ন সংগঠন দেশে-বিদেশে সকল পর্যায়ে আগামী নির্বাচন কমিশন নিয়ে চিন্তা-ভাবনা চলছে। সময় আসলেই আপনারা সেটা জানতে পারবেন। তবে আমরা এমন একটি নির্বাচন কমিশন চাই, যেই নির্বাচন কমিশন মাজা খাড়া করে দাঁড়াতে পারবে। দক্ষ, যোগ্য, যারা সরকারের আঙুল হেলেনে চলবে না। যারা একটি গ্রহণযোগ্য নির্বাচন করার ক্ষেত্রে অগ্রণী ভূমিকা পালন করবে এবং যারা সকলের কাছে গ্রহণযোগ্য হবেন। আমরা সেই রকম একটি নির্বাচন কমিশন চাই।

আপনারা আগেই ঘোষণা দিয়েছেন যে, নির্বাচনে যাবেন না। বর্তমান নির্বাচন কমিশনের মেয়াদ শেষের আগে সব ধরণের নির্বাচন সম্পন্ন করে যেতে চায় এই কমিশন। এতে নির্বাচন করার তোড়জোড় দেখতে পাচ্ছেন কি না? এই বিষয়ে তিনি বলেন, দেখুন আইন অনুযায়ী রাজনৈতিক দলগুলো আয়-ব্যয়ের হিসাব নির্বাচন কমিশনে দাখিল করে। সেই হিসেবে বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলোও দাখিল করছে। বিএনপিসহ বিরোধী দলগুলোর রাজনীতি করার সুযোগ সুবিধা আস্তে আস্তে সংকোচিত হয়ে যাচ্ছে। নির্বাচনে জনগণের যে অংশগ্রহণ, রাজনৈতিক দলের যে অংশগ্রহণ, সেগুলো আস্তে আস্তে অনিশ্চিত হয়ে যাচ্ছে। সেই ব্যাপারে নির্বাচন কমিশন কোনো ব্যবস্থা নিচ্ছে না। এটা অত্যন্ত দু:খজনক ব্যাপার।

তিনি আরও বলেন, গত ১২ বছরে আমাদের অভিজ্ঞতা, কিংবা ২০১৪ সালের নির্বাচন, তারপর উপজেলা, ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা, সিটি করপোরেশন নির্বাচন। আবার ২০১৮ সালের নির্বাচন বা তার পরবর্তীতে স্থানীয় সরকার নির্বাচনগুলো হয়েছে। এসব পর্যবেক্ষণ করে আমাদের অভিজ্ঞতা হয়েছে- এই নির্বাচন কমিশন আসলে একটি নিরপেক্ষ, সুষ্ঠু নির্বাচন করতে সম্পূর্ণভাবে ব্যর্থ হয়েছে। তারা জনগণের প্রত্যাশা পূরণ করতে পারেনি। জনগণের ভোটাধিকার যে হরণ করে নেওয়া হয়েছে, বেশিরভাগ ক্ষেত্রে আমরা দেখেছি নির্বাচন কমিশন সেখানে সহযোগির ভূমিকা পালন করেছে। সেই কারণে আমরা মনে করি এই নির্বাচন কমিশনের অধিনে, বর্তমান আওয়ামী লীগ সরকারের অধিনে কোনো নির্বাচনই অবাধ, নিরপেক্ষ, সুষ্ঠুভাবে হতে পারে না।

আমরা স্থানীয় সরকার নির্বাচন বর্জন করেছি, জাতীয় সংসদের উপনির্বাচনগুলো বর্জন করছি কী কারণে? প্রশ্ন রেখে প্রিন্স আরও বলেন, স্থানীয় সরকার নির্বাচন নিয়ে তাড়াহুড়ো করার কোনো দরকার নেই। দেশে করোনার যে ভয়াবহ পরিস্থিতি এবং সেখানে সমস্ত স্কুল, কলেজ বন্ধ আছে। সরকার কোনো সময় কঠোর বিধিনিষেধ দিচ্ছে, আবার কোনো সময় শিথিল করে দিচ্ছে। কোনো সময় সংক্রমণের সংখ্যা বাড়ছে, কোনো সময় কমছে। মৃত্যুর হার বাড়ছে, কমছে। এই রকম একটা সময়ে কিন্তু একটা অনিশ্চিয়তার মধ্য দিয়ে যাচ্ছে। সেখানে নির্বাচনের মতো একটি বিশাল কর্মযজ্ঞ, যেখানে জনগণের উপস্থিতি এবং উৎসবমুখর পরিবেশ দরকার। সেখানে সেপ্টেম্বর থেকে ডিসেম্বরের মধ্যে স্থানীয় সরকার নির্বাচন করার সরকারের বা নির্বাচন কমিশনের যে পরিকল্পনা, আমি মনে করি সেটা আকাশ কুসুম কল্পনা ছাড়া কিছু নয়।

ডি-আরআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়