চন্দ্রিমা উদ্যানে সংঘর্ষ: বিএনপি নেতা আমান-তাবিথদের আগাম জামিন

আগের সংবাদ

হোটেলবন্দি বাংলাদেশ-নিউজিল্যান্ড ক্রিকেটাররা

পরের সংবাদ

তারেক জড়িত না হলে দেশে ফিরে আইনের মোকাবিলা করুক: নানক

প্রকাশিত: আগস্ট ২৫, ২০২১ , ৬:৩৩ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ২৫, ২০২১ , ৬:৩৩ অপরাহ্ণ

২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলার হত্যাকান্ডে তারেক রহমান জড়িত না থাকলে দেশে ফিরে তাকে আইনের মোকাবিলা করার আহ্বান জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর সদস্য এডভোকেট জাহাঙ্গীর কবির নানক।

আজ বুধবার (২৫ আগস্ট) মোহাম্মদপুরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৬তম শাহাদাত বার্ষিকী উপলক্ষে খাদ্য সহায়তা বিতরণ ও আলোচনাসভায় তিনি এ আহ্বান জানান। ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের উদ্যোগে আদাবর থানা আওয়ামী লীগ এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।

আদাবর থানা আওয়ামী লীগের সভাপতি এম এ মান্নানের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় বক্তব্য রাখেন, আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম, সংসদ সদস্য সাদেক খান, ঢাকা মহানগর উত্তর আওয়ামী লীগের সভাপতি শেখ বজলুর রহমান, সাধারণ সম্পাদক এস এ মান্নান কচিসহ মহানগর ও স্থানীয় আওয়ামী লীগ নেতারা।

বিএনপি মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীরকে উদ্দেশ্য করে নানক বলেন, আপনাদের ভারপ্রাপ্ত চেয়ারপারসন দেশের বাইরে পালিয়ে আছেন কেন? ২১ আগস্ট গ্রেনেড হামলা কারা চালিয়েছিল জাতির সামনে জবাব দিন। গ্রেনেড হামলা পরে আহতদের চিকিৎসায় বাঁধা দিয়েছেন কেন? জাতির সামনে জবাব দিন। গ্রেনেড হামলায় নিহতদের লাশ গুম করতে চেয়েছিলেন কেন? জাতির সামনে জবাব দিন।

গ্রেনেড হামলা নিয়ে সংসদ অধিবেশনে আপনাদের নেত্রী খালেদা জিয়া বললেন, শেখ হাসিনা নাকি ভ্যানিটি ব্যাগে করে বোমা নিয়ে গেছেন। এর চেয়ে লজ্জার আর কি আছে? আজ সবকিছু খোলাসা হয়ে গেছে, পরিষ্কার হয়ে গেছে মানুষের কাছে। কিভাবে আপনারা হত্যার নীলনকশা করেছিলেন এবং কারা কারা জড়িত।

তারেক রহমানের উদ্দেশ্যে আওয়ামী লীগের সভাপতিমন্ডলীর এই সদস্য বলেন, সাহস থাকে তো দেশে আসুন। আর সে সময় খালেদা জিয়ার রাজনৈতিক সচিব হারিছ চৌধুরী কেন পলাতক? একমাত্র কারণ হলো সে গ্রেনেড হামলায় জড়িত ছিল, নীল নকশা করেছে তার সব বেরিয়ে এসেছে।

বিএনপি কোমলমতি শিক্ষার্থীদের নিয়ে রাজনীতি করছে উল্লেখ করে নানক বলেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা শিশুদের মৃত্যুর মুখে ঠেলে দিতে পারেন না। তাই শিক্ষা প্রতিষ্ঠান বন্ধ রেখেছে। ইনশাল্লাহ অচিরেই যখন করোনা নিয়ন্ত্রণে আসবে তখন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানগুলোও খুলে দেয়া হবে।

বিএনপি মহাসচিবের উদ্দেশ্য তিনি আরো বলেন, জিয়াউর রহমান এবং আপনারা রাষ্ট্রক্ষমতায় থেকে এদেশের রাষ্ট্রীয় প্রতিষ্ঠানগুলো ধ্বংস করে দিয়েছেন। আর শেখ হাসিনার নেতৃত্বে দেশ ঘুরে দাঁড়িয়েছে। মির্জা ফখরুল সাহেব আপনারা ভুল পথে হাঁটছেন। ভুল পথে হাটার কারনেই আপনারা জনগণ থেকে বিচ্ছিন্ন হয়ে পড়েছেন। জনগণ আপনাদের বৃদ্ধাঙ্গলি দেখিয়ে মুখে থুথু মেরেছে।

তিনি আরো বলেন, বঙ্গবন্ধু হত্যার বিচার হয়েছে। কিন্তু বঙ্গবন্ধু হত্যার পেছনে যারা কলকাঠি নেড়েছে তাদের মুখোশ এখনো উন্মোচিত হয়নি। তাদের মুখোশ উন্মোচন করতেই হবে। আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মির্জা আজম বলেন, বঙ্গবন্ধুর হত্যাকান্ডে জিয়াউর রহমান সরাসরি জড়িত। তাই জিয়াউর রহমানের মরনোত্তর বিচার করতেই হবে।

রি-আরএ/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়