সমুদ্রে প্লাস্টিক দূষণে বাংলাদেশের অবস্থান নবম

আগের সংবাদ

স্বাস্থ্যবিধি না মানলে গুনতে হচ্ছে জরিমানা

পরের সংবাদ

কিম জং উনের মাথায় রহস্যময় ব্যান্ডেজ, বাড়ছে গুঞ্জন

প্রকাশিত: আগস্ট ৪, ২০২১ , ১২:১২ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ৪, ২০২১ , ১২:১২ অপরাহ্ণ

আবারও কিম জং উনের স্বাস্থ্য ঘিরে ছড়াল গুঞ্জন। যাবতীয় কৌতূহলের কেন্দ্রে একটি ব্যান্ডেজ। উত্তর কোরিয়ার সর্বাধিনায়কের মাথার ডানদিকে দৃশ্যমান ওই ব্যান্ডেজকে ঘিরেই তৈরি হয়েছে প্রশ্ন। কী হল কিমের? তিনি কি অসুস্থ? খবর সংবাদ প্রতিদিনের।

এমনিতেই সময়টা ভাল যাচ্ছে না কিমের। উত্তর কোরিয়ায় শুরু হয়েছে তীব্র খাদ্য সংকট। এই অবস্থায় নয়া গুঞ্জনের কেন্দ্রে কিমের স্বাস্থ্য। গত জুনে দেখা যায়, কিম অসম্ভব রোগা হয়ে গিয়েছেন। প্রিয় নেতার চেহারার হাল দেখে কান্নায় ভেঙে পড়তে দেখা গিয়েছিল দেশের বহু নাগরিককে। এর মধ্য়েই সামনে এল ব্যান্ডেজের ছবি। গত ২৪ থেকে ২৭ জুলাই সেনা বৈঠকে অংশ নিয়েছিলেন কিম। সেই বৈঠকের ছবিতেই দেখা গিয়েছে ওই সবুজ রঙের ব্যান্ডেজ।

এখানেই শেষ নয়। ২৭ থেকে ২৯ জুলাইয়ে পাওয়া ছবিতে আবার ব্যান্ডেজ উধাও। তার পরিবর্তে দেখা গিয়েছে ক্ষতচিহ্ন। যদিও ২৯ জুলাইয়ের পরে যে ছবি দেখা গিয়েছে তাতে ক্ষতচিহ্ন কিংবা ব্যান্ডেজ কিছুই নেই! আর এই রহস্যময় বিষয় নিয়েই ছড়িয়েছে গুঞ্জন। তাহলে কি কোনও গুরুতর চোট পেয়েছিলেন তিনি? এখনও কোনও সদুত্তর পাওয়া যায়নি।

কোরিয়ার সর্বাধিনায়ক হওয়ার পর থেকেই নিয়মিত গুজব ছড়িয়েছে তার স্বাস্থ্য নিয়ে। বহুবার তাঁর মৃত্যুরও গুজব ছড়াতে দেখা গিয়েছে। কয়েক মাসের জন্য তিনি নিরুদ্দেশ থাকলেই এই ধরনের গুঞ্জন শোনা গিয়েছে। কিন্তু প্রতিবারই সব গুঞ্জন উড়িয়ে ফিরে এসেছেন তিনি।

গত বছরের শেষ দিকে উত্তর কোরিয়ার ‘একনায়ক’ কিম জং উনকে নিয়ে জল্পনার জাল বিস্তৃত হয় বহুদূর পর্যন্ত।

হঠাৎ করেই তার খোঁজ মিলছিল না। কেউ বলছিলেন, দেশের বাইরে চিকিৎসার জন্য গিয়েছেন কিম। কারও ধারণা, দেশেরই প্রত্যন্ত অঞ্চলে নিজের বাংলো বাড়িতে ছুটি কাটাতে গিয়েছেন তিনি। সেসময়ই তাঁর রোগা হওয়া নিয়ে খবর ছড়াচ্ছিল। অনেকেই মনে করেছিলেন, অসুস্থ হওয়ায় দ্রুত ওজন কমছে মাত্র ৩৭ বছরের রাষ্ট্রনেতার। তাঁর পরবর্তী সময়ে কে হবে উত্তর কোরিয়ার শাসক, এই আলোচনাও শুরু হয়েছিল।

ডি-এফবি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়