ঢিলেঢালা নজরদারি, গণপরিবহন ছাড়া চলছে সবই

আগের সংবাদ

ময়মনসিংহ মেডিকেলে করোনায় আরও ১৭ জনের মৃত্যু

পরের সংবাদ

প্রথম কোনো প্রাদেশিক রাজধানী দখলের পথে তালেবান

প্রকাশিত: আগস্ট ৩, ২০২১ , ১০:৪৩ পূর্বাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ৩, ২০২১ , ১০:৪৪ পূর্বাহ্ণ

আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় হেলমান্দ প্রদেশের রাজধানী লস্করগাহের নিয়ন্ত্রণ নিতে যাচ্ছে তালেবান যোদ্ধারা। মঙ্গলবার (৩ আগস্ট) বিবিসির এক প্রতিবেদনে এ তথ্য জানা যায়। তালেবানের কাছে আফগানিস্তানের প্রথম কোনো প্রাদেশিক রাজধানীর পতন এটি।

মার্কিন সেনাবাহিনীসহ বিদেশি সৈন্যদের প্রত্যাহার প্রক্রিয়ার মধ্যেই আফগানিস্তানের প্রধান প্রধান শহরগুলো দখলে তীব্র আক্রমণ চালিয়ে যাচ্ছে সশস্ত্র বিদ্রোহী সংগঠন তালেবানের যোদ্ধারা। যদিও প্রতিরোধ করে যাচ্ছে আফগান সেনারাও। তবে তীব্র আক্রমণের কারণে আফগানিস্তানের দক্ষিণাঞ্চলীয় হেলমান্দ প্রদেশের রাজধানী লস্করগাহের দখল যে কোনো সময় চলে যেতে পারে তালেবান বাহিনীর হাতে।

সংবাদমাধ্যমটি বলছে, দেশটির দক্ষিণাঞ্চলীয় হেলমান্দ প্রদেশের রাজধানীতে আক্রমণ আরও তীব্র করেছে তালেবান যোদ্ধারা। যুক্তরাষ্ট্র ও আফগান বাহিনীর বিমান হামলার মধ্যে আক্রমণ বাড়িয়েছে তারা। এমন সংকটময় পরিস্থিতিতে তালেবান যোদ্ধাদের কাছে আফগানিস্তানের প্রথম কোনো প্রাদেশিক রাজধানী হিসেবে লস্করগাহের পতন হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন সংশ্লিষ্টরা।

আফগান বাহিনীর দাবি, তালেবান যোদ্ধারা এরই মধ্যে শহরের একটি টেলিভিশন স্টেশন দখল করেছে বলে শোনা যাচ্ছে। এছাড়া হাজার হাজার মানুষ গ্রামীণ এলাকাগুলোর দিকে পালিয়ে যাচ্ছেন এবং তাদের অনেকে শহরের আশপাশের বিভিন্ন ভবনে আশ্রয় নিয়েছেন।

লস্করগাহের একটি হাসপাতাল থেকে সেখানকার একজন চিকিৎসক জানান, চারদিকে এখন কেবলই যুদ্ধ চলছে।

এ দিকে আফগান বাহিনীর যোদ্ধাদের মোকাবিলায় অঞ্চলগুলোতে শত শত অতিরিক্ত আফগান সেনা মোতায়েন করা হয়েছে। মার্কিন সেনাবাহিনীসহ বিদেশি সৈন্যদের প্রত্যাহার প্রক্রিয়ার মধ্যেই আফগানিস্তানের নিয়ন্ত্রণ পেতে মরিয়া হয়ে উঠেছে দেশটির সরকারি বাহিনী ও বিদ্রোহী আফগান বাহিনীর তালেবান গোষ্ঠীর যোদ্ধারা। ইতোমধ্যেই দেশের অর্ধেকেরও বেশি এলাকা তালেবান যোদ্ধাদের দখলে চলে গেছে বলে বিভিন্ন রিপোর্টে উঠে এসেছে।

আফগানিস্তানে যুক্তরাষ্ট্র ও যুক্তরাজ্যের সামরিক অভিযানের অন্যতম কেন্দ্র ছিল এই হেলমান্দ প্রদেশ। এটি তালেবানের দখলে গেলে তা হবে আফগান সরকারের জন্য বড় ধরনের বিপর্যয়। লস্করগাহের পতন ঘটলে ২০১৬ সালের পর এটিই হবে তালেবান যোদ্ধাদের প্রথম কোনো প্রাদেশিক রাজধানী দখল। লস্করগাহসহ বর্তমানে তিনটি প্রাদেশিক রাজধানীর দখল নিতে তীব্র লড়াই চালিয়ে যাচ্ছে তালেবান।

লস্করগাহ থেকে আফগান সামরিক বাহিনীর কমান্ডার মেজর জেনারেল সামি সাদাত বলেন, এখানে তালেবানের বিজয় বৈশ্বিক নিরাপত্তার জন্য মারাত্মক হুমকি হয়ে দেখা দিতে পারে। তার মতে, এটা আফগানিস্তানের কোনো যুদ্ধ নয়। এটা স্বাধীনতা বনাম সর্বগ্রাসীতার মধ্যকার যুদ্ধ।

ডি-এফবি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়