তবে কি ডেঙ্গু নিয়ে শঙ্কা সত্যি হচ্ছে?

আগের সংবাদ

সাবেক অর্থমন্ত্রী মুহিতকে দেখতে হাসপাতালে ছোটভাই পররাষ্ট্রমন্ত্রী মোমেন (ভিডিও)

পরের সংবাদ

করোনায় সাংসদ বাদশার বাবার মৃত্যু, দাফন সম্পন্ন

প্রকাশিত: আগস্ট ১, ২০২১ , ৯:৪৮ অপরাহ্ণ আপডেট: আগস্ট ১, ২০২১ , ৯:৪৮ অপরাহ্ণ

কুষ্টিয়া-১ দৌলতপুর আসনের সংসদ সদস্য আ.কা.ম সরওয়ার জাহান বাদশার বাবা মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, ফিলিপনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব মো. শাহজাহান করোনায় মৃত্যুবরণ করেছেন।

বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শনিবার (৩১ জুলাই) রাতে তিনি মারা যান। তার বয়স হয়েছিল ৯২ বছর।

তিনি তিন ছেলে ও দুই মেয়ে এবং নাতি-নাতনি, আত্মীয়-স্বজনসহ অসংখ্য গুণগ্রাহী রেখে গেছেন। রোববার সন্ধ্যায় নিজ গ্রাম দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগরে তার দাফন সম্পন্ন হয়।

পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, দৌলতপুর উপজেলার ফিলিপনগর মাধ্যমিক বিদ্যালয়ের সাবেক প্রধান শিক্ষক, সাংসদ বাদশার বাবা আলহাজ্ব মো. শাহজাহান করোনায় আক্রান্ত হয়ে বেশ কিছুদিন ধরে বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিব মেডিকেল বিশ্ববিদ্যালয়ে চিকিৎসাধীন ছিলেন।

তাকে সেখানকার আইসিইউতে রেখে চিকিৎসা দেয়া হচ্ছিল। শনিবার রাতে তাকে লাইফ সাপোর্টে রাখা হয়। লাইফ সাপোর্ট দেয়ার কিছুক্ষণের মধ্যে রাত সাড়ে ৯টায় বিএসএমএমইউয়ের কর্তব্যরত চিকিৎসক তাকে মৃত ঘোষণা করেন।

মুক্তিযুদ্ধের সংগঠক, অবসরপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক আলহাজ্ব মো. শাহজাহান দৌলতপুরের সাংস্কৃতিক জাগরণে অগ্রণী ভূমিকা পালন করে গেছেন। আদর্শবান এই শিক্ষক কুষ্টিয়া অঞ্চলে স্কাউটসের অন্যতম পুরোধা ছিলেন।

এ অঞ্চলের ব্যাডেন পাওয়েল (স্কাউট প্রতিষ্ঠাতা) হিসেবেও অনেকের কাছে পরিচিতি রয়েছে তার। তার অপর দুই ছেলের একজন যুক্তরাজ্যে বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা হিসেবে কর্মরত রয়েছেন আরেকজন বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর কর্নেল পদে কর্মরত রয়েছেন।

রোববার দুপুরে এই গুণী ব্যক্তির মরদেহ ঢাকা থেকে উপজেলার ফিলিপনগরের বাড়িতে নিয়ে আসা হয়। এ সময় দলীয় নেতাকর্মীরা ছাড়াও বিভিন্ন স্তরের মানুষ সেখানে সমবেত হন। পরে বাদ আসর পশ্চিম দক্ষিণ ফিলিপনগর ফুটবল মাঠে ঘণ্টাখানিকের আনুষ্ঠানিকতায় জানাজার নামাজ শেষে পারিবারিক কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

রি-এসআরএস/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়