শিক্ষক হেলেন হত্যার আসামি পিবি আইয়ের জালে আটক

আগের সংবাদ

নতুন করে হাসপাতালে ভর্তি ১৫৩ ডেঙ্গু রোগী

পরের সংবাদ

ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলায় ছাত্রলীগ নেতার জামিন হয়নি

প্রকাশিত: জুলাই ২৮, ২০২১ , ৩:৪৫ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ২৮, ২০২১ , ৩:৪৫ অপরাহ্ণ

আওয়ামী লীগের প্রেসিডিয়াম সদস্য ও ১৪ দলের মুখপাত্র আমির হোসেন আমু ও তার মেয়ে সুমাইয়া হোসেনকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কটুক্তি করার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে করা মামলায় ছাত্রলীগ নেতা তরিকুল ইসলামকে জামিন দেননি হাইকোর্ট।

জামিন আবেদনের শুনানি করে বুধবার (২৮ জুলাই) বিচারপতি জে বি এম হাসানের নেতৃত্বাধীন ভার্চুয়াল হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানি করেন আইনজীবী এসকে ইউসুফুর রহমান। অন্যদিকে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল তুষার কান্তি রায়।

আইনজীবী ইউসুফুর রহমান শুনানিতে বলেন, আমার মক্কেল এফআইআরভুক্ত আসামি না। তাকে সন্দেহজনকভাবে আসামি করা হয়েছে। তাছাড়া এফআইআরে কুরুচিপূর্ণ বক্তব্যের কথা বলা হয়েছে। কিন্তু কী বক্তব্য সেটি উল্লেখ করা হয়নি। এ মামলার এক নম্বর আসামি মো. রাব্বি। তিনি জামিনে আছেন। তরিকুল ইসলাম পাঁচ মাস ধরে কাস্টডিতে আছেন।

শুনানিকালে আদালত দেখতে পান আসামির বিরুদ্ধে আরো সাতটি মামলা রয়েছে। পরে তাকে জামিন না দিয়ে আবেদনটি বাতিল করে দেন আদালত।

প্রসঙ্গত, ২০২০ সালের ৫ ডিসেম্বর আমির হোসেন আমু ও তার মেয়ে সুমাইয়া হোসেনকে নিয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে কুরুচিপূর্ণ মন্তব্য করায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়। এ মামলায় ঝালকাঠি জেলা ছাত্রলীগের যুগ্ম সম্পাদক শেখ মো. রাব্বীকে গ্রেপ্তার করা হয়।

ঝালকাঠি জেলা আইনজীবী সমিতির সাধারণ সম্পাদক আ স ম মোস্তাফিজুর রহমান মনু ৬ ডিসেম্বর রাতে ঝালকাঠি থানায় রাব্বিসহ অজ্ঞাত চার থেকে পাঁচজনকে আসামি করে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে ওই মামলা দায়ের করেন।

একই মামলায় সন্দেহভাজন আসামি হিসেবে তরিকুল ইসলামকে গত ৯ এপ্রিল গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এরপর তিনি জামিন চেয়ে হাইকোর্টে আবেদন করেন।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়