টানা দুই দিন হাসপাতালে ভর্তি শতাধিক ডেঙ্গু রোগী

আগের সংবাদ

তদন্তে নেমেছে ইইড : ভিকারুননিসায় এত অনিয়ম!

পরের সংবাদ

নেপথ্যে সশস্ত্রকরণ পরিকল্পনা

প্রকাশিত: জুলাই ২৬, ২০২১ , ৮:৪৭ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুলাই ২৬, ২০২১ , ৮:৪৭ পূর্বাহ্ণ

সাড়ে সাত কোটি মানুষের স্বাধীন ও সার্বভৌম রাষ্ট্র ‘বাংলাদেশ’ প্রতিষ্ঠার জন্য বাঙালির ভাষা, সাহিত্য, কৃষ্টি ও সংস্কৃতির পূর্ণ বিকাশের ব্যবস্থা ও সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতি চালু, ‘মুক্তিবাহিনী’ গঠন এবং সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে।

নাটকীয়ভাবে ৩ মার্চের অধিবেশন স্থগিত হলো। সারা বাংলা জেগে উঠল। গর্জে উঠল। চললো অসহযোগ। অভ‚তপূর্ব। ৩ মার্চ স্বাধীনতার পতাকা উত্তোলন ও স্বাধীনতার ঘোষণা পাঠ করা হলো। ঘোষণায় বঙ্গবন্ধুকে সর্বাধিনায়ক ও জাতির পিতা অভিহিত করে স্বাধীন বাংলাদেশ কায়েমের লক্ষ্যে পল্টনের জনসভায় ইস্তেহার পাঠ করা হলো। সমগ্র বাংলায় আওয়াজ উঠল ‘বীর বাঙালি অস্ত্র ধরো- বাংলাদেশ স্বাধীন করো।’ স্লোগান দেওয়া হচ্ছিল, স্বাধীনতার এবং সশস্ত্র সংগ্রামের। ৩ মার্চ। স্বাধীন ও সার্বভৌম বাংলাদেশ ঘোষণা করা হলো।

বিগত তেইশ বছরের শোষণ, কুশাসন ও নির্যাতনে এ কথা স্পষ্টভাবে প্রমাণিত করেছে যে, সাড়ে সাত কোটি বাঙালিকে গোলামে পরিণত করার জন্য বিদেশি পশ্চিমা উপনিবেশবাদীদের যে ঘৃণ্য ষড়যন্ত্র তা থেকে বাঙালির মুক্তির একমাত্র পথ ‘স্বাধীন জাতি’ হিসেবে স্বাধীন দেশের মুক্ত নাগরিক হয়ে বেঁচে থাকা। নির্বাচনের গণরায়কে বানচাল করতে শেষবারের মতো পশ্চিম পাকিস্তানের শাসন ও শোষক গোষ্ঠী সামরিক বাহিনীকে শেষ আশ্রয় হিসেবে ভরসা করেছে।

৫৪ হাজার ৫০৬ বর্গমাইল বিস্তৃত ভৌগোলিক এলাকার সাড়ে সাত কোটি মানুষের জন্য আবাসিক ভ‚মি হিসেবে স্বাধীন ও সার্বভৌম এ রাষ্ট্রের নাম ‘বাংলাদেশ’। এজন্য তিনটি লক্ষ্য অর্জন করতে হবে।

যেভাবে স্বাধীনতা পেলাম বইটির কভার ফটো

১. স্বাধীন ও সার্বভৌম ‘বাংলাদেশ’ গঠন করে পৃথিবীর বুকে একটি বলিষ্ঠ বাঙালি জাতি সৃষ্টি ও বাঙালির ভাষা, সাহিত্য, কৃষ্টি ও সংস্কৃতির পূর্ণ বিকাশের ব্যবস্থা করতে হবে।

২. অঞ্চলে-অঞ্চলে ব্যক্তিতে-ব্যক্তিতে বৈষম্য নিরসন করে সমাজতান্ত্রিক অর্থনীতি চালু করে কৃষক-শ্রমিক রাজ কায়েম করতে হবে।

৩. ব্যক্তি, বাক ও সংবাদপত্রের স্বাধীনতা নির্ভেজাল গণতন্ত্র কায়েম করতে হবে।

একই সঙ্গে কর্মপন্থা গ্রহণ করতে হবে-
ক. প্রতিটি গ্রাম, থানা, মহকুমা, শহর ও জেলায় ‘স্বাধীনতা সংগ্রাম কমিটি’ গঠন করতে হবে।
খ. সব শ্রেণির জনসাধারণের সহযোগিতা কামনা ও তাদের ঐক্যবদ্ধ করতে হবে।
গ. শ্রমিক এলাকায় শ্রমিক ও গ্রামাঞ্চলে কৃষকদের সুসংগঠিত করে গ্রামে গ্রামে ও এলাকায় এলাকায় ‘মুক্তিবাহিনী’ গঠন করতে হবে।
ঘ. হিন্দু-মুসলমান ও বাঙালি-অবাঙালি সাম্প্রদায়িক মনোভাব পরিহার করতে হবে এবং সম্প্রীতি বজায় রাখতে হবে।
ঙ. স্বাধীনতা সংগ্রামকে সুশৃঙ্খলার সঙ্গে এগিয়ে নেয়ার স্বার্থে পারস্পরিক যোগাযোগ করতে হবে এবং লুটতরাজসহ সকল প্রকার সমাজবিরোধী ও হিংসাত্মক কার্যকলাপ বন্ধ করতে হবে। ছাত্রলীগ ও ডাকসু ৭ মার্চের বঙ্গবন্ধুর ভাষণ সরাসরি রেডিওতে প্রচারের দাবি জানায়।

আগামীকাল প্রকাশিত হবে ‘ইয়েস, বাট নট নাউ’

‘যেভাবে স্বাধীনতা পেলাম’- বইটি পাওয়া যাচ্ছে ভোরের কাগজ প্রকাশনে (ভোরের কাগজ কার্যালয়, ৭০ শহীদ সেলিনা পারভীন সড়ক, মালিবাগ, ঢাকা)। এছাড়া সংগ্রহ করা যাবে bhorerkagojprokashan.com থেকেও।

এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়