মডার্নার ৩০ লাখ টিকা ঢাকায় পৌঁছেছে

আগের সংবাদ

একদিন এগিয়ে এল টি-টোয়েন্টি সিরিজ

পরের সংবাদ

ব্যালন ডি অরের দৌড়ে এগিয়ে মেসি

প্রকাশিত: জুলাই ১৯, ২০২১ , ১০:১১ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ১৯, ২০২১ , ১০:১১ অপরাহ্ণ

ফুটবলের নতুন মৌসুমের খেলা শুরুর অপেক্ষায় রয়েছেন ফুটবল ভক্তরা। তাছাড়া তাদের নজর এখন আরেকটি দিকে রয়েছে, সেটি হলো ২০২০-২১ মৌসুমের ব্যালন ডি অরের ট্রফি জয় করবেন কোনো খেলোয়াড়। এ নিয়ে এখন চলছে জল্পনা-কল্পনা। ইতোমধ্যেই উঠে এসেছে বেশ কয়েকজনের নাম। তবে রেকর্ড ছয়বারের ব্যালন ডি অর জয়ী মেসি সপ্তমবারের মতো সম্মানজনক এই ট্রফি জয় করবেন বলে ধারণা অনেকের। মেসির ক্লাব বার্সেলোনার কোচ রোনাল্ড কোম্যানও মনে করেন আর্জেন্টাইন জাদুকরই এবার জিতবেন ব্যালন ডি অর। মূলত কোপা আমেরিকায় আর্জেন্টিনাকে শিরোপা জেতানোয় তার নাম সবচেয়ে বেশি উচ্চারণ হচ্ছে।

মেসি যদি আর্জেন্টিনাকে কোপার শিরোপাটা জয় না করাতে পারতেন তাহলে হয়তো তাকে ব্যালন ডি অরের জন্য বিবেচনাই করা হতো না। কিন্তু দীর্ঘ ২৮ বছর পর আর্জেন্টিনাকে শিরোপা জেতানোর পর তার নাম এখন রয়েছে উপরের দিকে। এবার শিরোপা জয় করে আর্জেন্টিনার ফুটবলের ইতিহাসে অমর হয়ে গেছেন তিনি, যেমনটা তিনি করেছেন বার্সার হয়ে। জাতীয় দলের পাশাপাশি বার্সার হয়েও বেশ ভালো সময় কাটিয়েছেন তিনি।

মেসি ব্যালন ডি অর জিতবেন এমন কথা জানিয়েছে বার্সেলোনা টেলিভিশনকে দেয়া এক সাক্ষাৎকারে কোচ কোম্যান বলেন, ‘সপ্তমবারের মতো বর্ষসেরা খেতাব জিতবেন মেসিই। দলে মেসি খুব গুরুত্বপূর্ণ, সে আমাদের অধিনায়ক এবং সবার জন্য উদাহরণ সে। সে খুব করে চাইছিল চ্যাম্পিয়ন হতে এবং বিশে^র সেরা খেলোয়াড় হিসেবে সে শিরোপা জিতে অভ্যস্ত। আমার চোখে ব্যালন ডি অর জয়ের লড়াইয়ে সে সবার চেয়ে এগিয়ে।’ এদিকে ২০২০ সালে আর্জেন্টিনার এক ব্যক্তি মেসির বিরুদ্ধে প্রতারণার মামলা করে। গত শুক্রবার স্পেনের আদালত সে মামলা খারিজ করে দিয়েছে।

মেসির পাশাপাশি এবার ব্যালন ডি অর জয়ের জন্য আরো কয়েকজনের নাম উচ্চারিত হচ্ছে। এরমধ্যে উল্লেখযোগ্য হলেন জর্জিনহো, হ্যারি কেন, রবার্ট লেভানদোস্কি ও জর্জিও কিয়েলিনি।

জর্জিনহো : ইতালির জর্জিনহো এবার ইউরোপে দুবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন। প্রথম তিনি চেলসির হয়ে জেতেন চ্যাম্পিয়ন্স লিগের শিরোপা। এরপর জিতলেন ইউরোর শিরোপা। যেহেতু তিনি দুবার চ্যাম্পিয়ন হয়েছেন ফলে ব্যালন ডি অর জেতার ক্ষেত্রে তিনি অনেকটাই এগিয়ে থাকবেন।

হ্যারি কেন : ইংল্যান্ড যদি ইউরোর শিরোপা জয় করত তাহলে ইংলিশ অধিনায়ক হ্যারি কেন ব্যালন ডি অর জেতার ক্ষেত্রে সবার চেয়ে এগিয়ে থাকতেন। হ্যারি কেন ইংলিশদের হয়ে গ্রুপপর্বে কিছু করতে পারেননি। কিন্তু নকআউট পর্বে জ্বলে ওঠেন। তবে আবার ফাইনালেও তিনি দলের হয়ে কোনো ভূমিকা রাখতে পারেননি।

রবার্ট লেভানদোস্কি : এ বছর যদি ইউরো বা কোপা আমেরিকা না হতো তাহলে নিঃসন্দেহে রবার্ট পোল্যান্ড ও বায়ার্ন মিউনিখের রবার্ট লেভানদোস্কিই পেতেন ব্যালন ডি অরের শিরোপা। এ বছর ক্লাব ফুটবলে বায়ার্নের হয়ে ৪১টি গোল করেন লেভানদোস্কি। এর মাধ্যমে গত ৫০ বছরে এক মৌসুমে সবচেয়ে বেশি গোল করার রেকর্ড গড়েন।

জর্জিও কিয়েলিনি : ইতালির অধিনায়ক ও রক্ষণভাগের খেলোয়াড় জর্জিও কিয়েলিনির ব্যালন ডি অর জেতার সম্ভাবনা খুব বেশি নেই। তবে তার নাম আবার ফেলেও দেয়া যায় না। কারণ তিনি না থাকলে হয়তো ইতালির শিরোপাও জেতা হতো না। ২০০৬ সালের পর রক্ষণভাগের কোনো খেলোয়াড় ব্যালন ডি অর পাননি। সেবার ইতালির অধিনায়ক ফাবিও কান্নাভারো জিতেছিলেন ব্যালন ডি অর।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়