গুরুদাসপুরে ট্রাক-মোটরসাইকেল সংঘর্ষে যুবকের মৃত্যু

আগের সংবাদ

লকডাউনের আওতামুক্ত খাদ্য কারখানা ও পশুর চামড়া

পরের সংবাদ

টাইগারদের লক্ষ্য হোয়াইটওয়াশ

প্রকাশিত: জুলাই ১৯, ২০২১ , ৭:১৩ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ১৯, ২০২১ , ৭:১৩ অপরাহ্ণ

প্রায় ৮ বছর পর জিম্বাবুয়ে সফরে গেছে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা সবশেষ জিম্বাবুয়ে সফর করেছে ২০১৩ সালে। ওই সময় টেস্ট ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ ড্র করলেও ওয়ানডে সিরিজে হেরে যায় টাইগাররা। কিন্তু এবার সেই হারের বদলা নিয়েছে সফরকারীরা। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এবার তিন ম্যাচের ওয়ানডে সিরিজ এক ম্যাচ হাতে রেখেই নিশ্চিত করেছে তামিম বাহিনী। হারারেতে দ্বিতীয় ম্যাচ বাংলাদেশ জিতেছে ৩ উইকেটে। আর প্রথম ম্যাচ ১৫৫ রানের বিশাল ব্যবধানে জেতে টাইগাররা। আগামীকাল(মঙ্গলবার) তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচে মুখোমুখি হবে দুদল। এ ম্যাচে তামিম বাহিনী জয় পেলে হোয়াইটওয়াশ হবে বেন্ডন টেলররা। তাই টাইগারদের লক্ষ এখন হোয়াইটওয়াশ। এখানেই শেষ নয়। আগামীকাল তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডে ম্যাচে জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে জিতলে ষষ্ঠ হোয়াইটওয়াশ করার স্বাদ পাবে বাংলাদেশ। এর আগে ২০০৬ সালে জিম্বাবুয়েকে প্রথম হোয়াইটওয়াশ করেছিল লাল-সবুজের প্রতিনিধিরা। এরপর ২০১৪,২০১৫,২০১৮ এবং ২০২০ সালে টানা চার বার জিম্বাবুয়েকে হোয়াইটওয়াশ করেছিল বাংলাদেশ।

এছাড়া মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ দাঁড়িয়ে আছেন দুর্দান্ত এক মাইলফলকের সামনে। তিনি বাংলাদেশের পঞ্চম ক্রিকেটার হিসেবে দুইশটি ওয়ানডে ম্যাচ খেলার দ্বারপ্রান্তে। আগামীকাল তৃতীয় ও শেষ ওয়ানডেতে মাঠে নেমে এই মাইলফলক স্পর্শ করবেন মাহমুদউল্লাহ। তিনি গতকাল(রবিবার) ক্যারিয়ারের ১৯৯ তম ওয়ানডে ম্যাচ খেলে ফেলেছেন।

২০০৭ সালের ২৫ জুলাই কলম্বোর প্রেমাদাসা স্টেডিয়ামে ওয়ানডে অভিষেক হয়েছিল মাহমুদউল্লাহর। সাত বছর পর তিনি শততম ওয়ানডে খেলেন। সেই ঘটনার আরো ৭ বছর পর ডাবল হাড্রেডের এলিট ক্লাবে এবার নাম তুলতে যাচ্ছেন মাহমুদউল্লাহ। তবে বাংলাদেশের হয়ে দুইশ ওয়ানডে ম্যাচ খেলার তালিকায় সবার উপরে আছেন মুশফিকুর রহিম। তিনি খেলেছেন ২২৭ ম্যাচ। এরপর ২১৮টি করে ম্যাচ খেলে যৌথভাবে আছেন মাশরাফি বিন মুর্তজা ও তামিম ইকবাল। তবে আগামীকাল জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে ম্যাচে টস করতে নামলে মাশরাফিকে টপকে যাবেন তামিম। তালিকার পরের নাম সাকিব আল হাসানের। তিনি খেলেছেন ২১৪টি ওয়ানডে।

এছাড়া ২০০তম ওয়ানডেতে মাঠে নামার আগে মাহমুদউল্লাহর অর্জনের খাতাও বেশ সমৃদ্ধ। তিনি ১৯৯ ম্যাচে ৩টি সেঞ্চুরি ও ২৫ হাফসেঞ্চুরির সুবাদে ৪ হাজার ৪৬৯ রান তুলেছেন। যা বাংলাদেশের কোনো ব্যাটসম্যানের চতুর্থ সর্বোচ্চ। আর বল হাতে ৭৬টি উইকেট শিকার করেছেন মাহমুদউল্লাহ। তিনি সপ্তম সর্বোচ্চ উইকেট সংগ্রাহক।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়