টিকা নিয়ে বিভ্রান্তি ছড়ানোর জন্য বিএনপির ক্ষমা চাওয়া উচিত

আগের সংবাদ

বয়স ৩০ হলেই মিলবে করোনার টিকা

পরের সংবাদ

ঈদে তিন হাজার শিক্ষার্থীকে বাড়ি পৌঁছে দিল জবি

প্রকাশিত: জুলাই ১৯, ২০২১ , ৭:৫৭ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ১৯, ২০২১ , ৭:৫৭ অপরাহ্ণ

করোনা মহামারিতে লকডাউনের কারণে ও একাডেমিক কার্যক্রমে ঢাকায় আটকে পড়ায় তিন হাজার শিক্ষার্থীর আবেদনের প্রেক্ষিতে নিজস্ব পরিবহন ও ব্যবস্থাপনায় তাদেরকে নিজ জেলায় পৌঁছে দিয়েছে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় কর্তৃপক্ষ।

জানা যায়, সিলেট বিভাগে ২৯৩ শিক্ষার্থী, রাজশাহী বিভাগে ৫০২, রংপুর বিভাগে ৭১২, বরিশাল বিভাগে ২৮৯, খুলনা বিভাগে ৮০৭, চট্টগ্রাম বিভাগে ২২০ ও ময়মনসিংহ বিভাগে ১৮০ শিক্ষার্থী মিলে মোট ৩০০৮ জন শিক্ষার্থী বাড়ি যেতে আবেদন করে। পরে তাদের এই আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ১৭ জুলাই সিলেট, রাজশাহী ও রংপুর বিভাগে, ১৮ জুলাই খুলনা ও বরিশাল বিভাগে এবং ১৯ জুলাই চট্টগ্রাম ও ময়মনসিংহ বিভাগে শিক্ষার্থীদের নিজ জেলায় বাড়ি পৌঁছে দেয় বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন।

এ সময় শিক্ষার্থীদের বাসে উঠানোর পূর্বে শিক্ষার্থীদের শরীরের তাপমাত্রা মেপে দেখার পাশাপাশি আইডি কার্ড ও অন্যান্য তথ্য যাচাই বাছাই করে উঠানো হয়। পরে বাসে হ্যান্ডসানিটাইজার ও মাস্কসহ স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিতে প্রয়োজনীয় সামগ্রী সরবরাহ করা হয়। সার্বিক সহযোগিতায় ছিল জবি ছাত্রলীগের সম্মেলন কমিটির আহ্বায়ক আশরাফুল ইসলাম টিটন, যুগ্ম আহবায়ক জামাল উদ্দিন, সৈয়দ শাকিলসহ অন্যান্য নেতারাকর্মীরা।

অন্যদিকে পাটুরিয়া ও মাওয়া ঘাটে ভোগান্তি কমাতে ব্যবস্থা করা হয় শিক্ষার্থীদের জন্য স্পেশাল লঞ্চ। বিশ্ববিদ্যালয়ের বাসে ফিরতে পেরে শিক্ষার্থীরা বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের প্রতি কৃতজ্ঞতা প্রকাশ করেন।

বিশ্ববিদ্যালয়ের প্রক্টর ড. মোস্তফা কামাল বলেন, করোনা পরিস্থিতিতে এতো শিক্ষার্থীকে বাড়ি পৌঁছানো আমাদের জন্য চ্যালেন্জিং ছিল। তবে কাজটি সম্পন্ন করতে পেরে ভালো লাগছে।

বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড.ইমদাদুল হক বলেন, আমরা চেয়েছি শিক্ষার্থীরা যেন নির্বিঘ্নে বাড়িতে গিয়ে তাদের পরিবারের সাথে ঈদ করতে পারে। শিক্ষার্থীদের সকল সমস্যায় আমরা ভবিষ্যতেও পাশে থাকব।

জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় ছাত্রলীগ, সমাজতান্ত্রীক ছাত্রফ্রন্ট ও সাধারণ শিক্ষার্থীদের আবেদন ও স্মারকলিপির প্রেক্ষীতে লকডাউনের কারনে শিক্ষার্থীদের বিভিন্ন জেলায় বাড়ি পৌঁছে দিতে জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসনের পক্ষ থেকে বাস দেওয়ার এই উদ্যোগ নেওয়া হয়।

এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়