করোনা আক্রান্ত হয়ে অতিরিক্ত পুলিশ সুপারের মৃত্যু

আগের সংবাদ

মগবাজারে বিস্ফোরণের রহস্য উন্মোচন হলো না

পরের সংবাদ

ইয়াহিয়ার পাখি শিকার : নবতর চক্রান্ত

প্রকাশিত: জুলাই ১৬, ২০২১ , ৮:৪১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুলাই ১৬, ২০২১ , ৮:৪৩ পূর্বাহ্ণ

পরাধীন ব্রিটিশ-ভারত থেকে পাকিস্তানের কালো অধ্যায় পেরিয়ে জন্ম হয় বাংলাদেশ নামক স্বাধীন রাষ্ট্রের। এই মহান অর্জনের সঙ্গে জড়িয়ে আছে ইতিহাসের মোড় ঘোরানো নানা ঘটনা, যার কারিগর হিসেবে কেউ আখ্যায়িত হয়েছেন নায়কের অভিধায়; কেউবা আবির্ভূত হয়েছেন খলনায়কের চরিত্রে। ইতিহাসের বাঁকে বাঁকে সেসব ঘটনা ও তার নায়ক-খলনায়কদের কার কি ভূমিকা, তাই নিয়েই অধ্যাপক আবু সাইয়িদের গ্রন্থ ‘যেভাবে স্বাধীনতা পেলাম’। সম্প্রতি ভোরের কাগজ প্রকাশন থেকে বের হয়েছে বইটি। এ বই থেকে ধারাবাহিকভাবে প্রতিদিন কিছু অংশ তুলে ধরা হচ্ছে ভোরের কাগজের পাঠকদের জন্য।

জানুয়ারি মাসের তৃতীয় সপ্তাহ। পাকিস্তানের প্রেসিডেন্ট জেনারেল ইয়াহিয়া খানের পাখি শিকারে নিদারুণ শখ। অত্যন্ত উৎফুল্লভাবে তিনি বিগত ১০ দিন ধরে অবিরাম পাতিহাঁস ও তিতির পাখি শিকারের আনুক্রমিক দৃশ্যাবলি উপভোগ করছেন। করাচি-লাহোর, লাহোর থেকে হায়দ্রাবাদ হয়ে সিন্ধুর লারকানায় এলেন। লারকানার জমিদার তনয় পাকিস্তান পিপলস পার্টির প্রধান জুলফিকার আলী ভুট্টো অত্যন্ত জাঁকজমক ও উষ্ণতার সঙ্গে তাকে আপ্যায়িত করলেন। আলোচনা হলো। ফিল্ড মার্শাল আইয়ুব খান তার ডাইরিতে লিখেছেন :‘They were hand in glove with each other’ কেন্দ্র কি হাতা ছাড়া হবে? সামরিক বাহিনীর স্বার্থ কি অক্ষুণ্ণ থাকবে? ভুট্টো বললেন, ক্ষমতা থেকে দূরে থাকার জন্য আমি নির্বাচন করিনি।

প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া হাসলেন অর্থপূর্ণভাবে। ইয়াহিয়ার সঙ্গে উপস্থিত থাকলেন প্রধান সেনাপতি জেনারেল হামিদ। ভুট্টো দেখলেন, ইয়াহিয়া কোনোভাবেই মুজিবের হাতে ক্ষমতা না ছাড়তে দৃঢ়প্রতিজ্ঞ। দুজনের সলাপরামর্শ হলো। সমঝোতা হলো। তৈরি হলো এক অলিখিত ব্লু-প্রিন্ট। ব্ল্যাক বাস্টার্ডদের হাতে ক্ষমতা ছেড়ে দেয়া যাবে না।

ঘোড়ার জিনে পা রেখেছি : পেশোয়ারে বিশ্ববিদ্যালয় শহরের এক বাংলো। ককটেল পার্টি। নেশার আমেজ। সবাইকে চমকে দিয়ে ভুট্টো বললেন, মুজিবকে হটিয়ে দেয়া হয়েছে। কর্তৃপক্ষ এই সিদ্ধান্ত নিয়েছে। ভুট্টো আরেকবার ঘোড়ার জিনে পা রেখেছে। আমি প্রধানমন্ত্রী হতে চলেছি।

বলাবাহুল্য, আগের দিন অর্থাৎ ১১ ও ১২ ফেব্রুয়ারি রাওয়ালপিন্ডিতে ভুট্টো প্রেসিডেন্ট ইয়াহিয়া খানের সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন। সামরিক কর্তৃত্ব প্রতিষ্ঠায় দুজন একমত হলেন।

আগামিকাল প্রকাশিত হবে ‘বাঙালি সামরিক কমান্ড’
‘যেভাবে স্বাধীনতা পেলাম’- বইটি পাওয়া যাচ্ছে ভোরের কাগজ প্রকাশনে (ভোরের কাগজ কার্যালয়, ৭০ শহীদ সেলিনা পারভীন সড়ক, মালিবাগ, ঢাকা)। এছাড়া সংগ্রহ করা যাবে bhorerkagojprokashan.com থেকেও।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়