আশাশুনির কুল্যা বেতনা নদী থেকে জীবিত নবজাতক উদ্ধার

আগের সংবাদ

নেপালের নতুন প্রধানমন্ত্রী শের বাহাদুর দেউবা

পরের সংবাদ

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালে চিকিৎসক লাঞ্চিত

প্রকাশিত: জুলাই ১৩, ২০২১ , ১১:১৬ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ১৩, ২০২১ , ১১:১৬ অপরাহ্ণ

বাড়িতে গিয়ে স্বজনকে চিকিৎসা না দেয়ায় হাসপাতালের জরুরী বিভাগের চিকিৎসককে শারীরিকভাবে লাঞ্চিত করেছে এক যুবক। মঙ্গলবার (১৩ জুলাই) সকালে সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের জরুরী বিভাগে এ ঘটনা ঘটে। এ যুবকের নাম মিজানুর রহমান। সে শহরতলীর সুলতানপুরের বাসিন্দা আকিল মিয়ার ছেলে। ঘটনারপর তাকে আটক করেছে পুলিশ।

হাসপাতাল সূত্রে জানা গেছে, মিজানুর রহমান ও তার বড় ভাই সালেক মিয়া আজ সকালে অসুস্থ্য স্বজনকে চিকিৎসা দেয়ার জন্য ডাক্তারকে বাড়িতে নিতে হাসপাতালে আসেন। এ সময় কর্তব্যরত চিকিৎসক জরুরী বিভাগ ছেড়ে যেতে পারবেন না বলে জানান। পরে মিজানুর রহমান ও তার ভাই সালেক মিয়া ডাক্তারের উপর চড়াও হয়। এসময় মিজানুর রহমান ডাক্তারকে শারীরিকভাবে প্রহার করে। এছাড়াও গেল বছরের ৫ ডিসেম্বর হাসপাতালে কর্তব্যরত এক নার্সকে চুরিকাঘাত করে মিজানুর রহমান।

সুনামগঞ্জ বিএম’র সাংগঠনিক সম্পাদক ডা. সৈকত দাস বললেন, চিকিৎসকরা এই করোনা পরিস্থিতির মাঝে ঝুঁকি নিয়ে মানুষকে সেবা দিয়ে যাচ্ছেন। আজ সকালে যে ঘটনা ঘটলো তা নিন্দনীয়। এই ঘটনার মূল হোতা মিজানুর রহমান ও তার ভাই সালেক মিয়ার বিচার দাবি করেন তিনি।

সুনামগঞ্জ সদর থানার ওসি (তদন্ত) এজাজুল ইসলাম জানান, এ ঘটনায় মিজানুর রহমানকে আটক করা হয়েছে। হাসপাতাল কর্তপক্ষ মামলার প্রস্তুতি নিচ্ছেন। মামলা হলে পরবর্তী পদক্ষেপ নেয়া হবে।

সুনামগঞ্জ সদর হাসপাতালের তত্ত্বাবধায়ক ডা. আনিছুর রহমান বললেন, এ ঘটনায় দোষীদের বিরুদ্ধে মামলার প্রস্তুতি নেয়া হচ্ছে। এসময় হাসপাতালে পুলিশী নিরাপত্তার দাবি জানান তিনি।

রি-এএম/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়