হ্যারি কেনকে রুখবেন কিয়েলিনি!

আগের সংবাদ

খেলা দক্ষিণ আমেরিকায়, উত্তেজনা ব্রাহ্মণবাড়িয়ায়

পরের সংবাদ

সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে জাত চেনালেন শান্ত-সাদমান

প্রকাশিত: জুলাই ১০, ২০২১ , ১০:৩৩ অপরাহ্ণ আপডেট: জুলাই ১০, ২০২১ , ১০:৩৭ অপরাহ্ণ

বাংলাদেশের ক্রিকেটে সবচেয়ে ভালো লাগার ও সবচেয়ে প্রিয় দুটি শব্দ সম্ভবত ‘পঞ্চপাণ্ডব’। পঞ্চপাণ্ডব যুগেই ক্রিকেটে সবচেয়ে বেশি উন্নতি করেছে বাংলাদেশ। পঞ্চপাণ্ডবের তালিকায় থাকা মাশরাফি বিন মুর্তজা প্রায় অবসরের দ্বারপ্রান্তে। সাকিব আল হাসান, তামিম ইকবাল, মুশফিকুর রহিম ও মাহমুদউল্লাহ রিয়াদও ক্যারিয়ারের শেষ দিকে দাঁড়িয়ে রয়েছেন। এখন অপেক্ষা আগামীর তারকাদের পানে। এই তালিকায় বিবেচনা করা যায় নাজমুল হোসেন শান্ত ও সাদমান ইসলামকে। দুজনই শনিবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে একমাত্র টেস্টের দ্বিতীয় ইনিংসে সেঞ্চুরি করেছেন। শেষ পর্যন্ত শান্ত ১১৭ ও সাদমান ১১৫ রান করে অপরাজিত ছিলেন। যার সুবাদে জিম্বাবুয়েকে ৪৭৭ রানের টার্গেট দেয় টাইগাররা।

আন্তর্জাতিক মঞ্চে নাজমুল হোসেন শান্ত ও সাদমান ইসলামের উত্থান প্রায় একই সময়ে। টেস্টে শান্তর অভিষেক হয় ২০১৭ সালে। টেস্টের জন্য বিবেচিত সাদমান বাংলাদেশের জার্সিতে প্রথম টেস্ট ম্যাচটি খেলেন ২০১৮ সালে। দুজনের টেস্ট ক্যারিয়ারের ব্যবধানও এক। জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে শান্ত খেলছেন নিজের নবম ম্যাচ, সাদমানের এটি অষ্টম টেস্ট ম্যাচ। সাদমানের এটি প্রথম টেস্ট হলেও শান্ত এর আগেও এক ইনিংসে শতক হাঁকিয়েছিলেন। রোডেশীয়দের বিপক্ষে ওপেনার সাদমান তৃতীয় দিনের খেলা শেষ করেছিলেন ২২ রান নিয়ে। শনিবার ১০১ বলে ৫ চারে অর্ধশত রান পূর্ণ করেন তিনি। সাদমান ১৮০ বলে পৌঁছেন তিন অঙ্কের সংখ্যায়। মিল্টন শুম্বার বল মিড উইকেটে পাঠিয়ে দুই রান নিলে শতরান পূর্ণ হয় তার, সাদা পোশাকে তার প্রথম সেঞ্চুরি। এরপর আরো ১৬ বল খেলে স্কোর বোর্ডে তিনি মোট রান তুলেছেন ১১৫। ১৯৬ বলে তার ইনিংসে ছিল ৯টি চারের মার।

সাদমান ইসলাম শনিবার জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে অপরাজিত ১১৭ রানের ইনিংস খেলেন

অন্যদিকে ওয়ানডাউনে খেলতে নামা শান্ত ও সাদমান ইসলামের কিছুক্ষণ পর হাফসেঞ্চুরিতে পৌঁছেন। মাত্র ৬০ বলে ওয়ানডে মেজাজে খেলে ৫০ রান তুলে নেন তিনি। শত রানে যখন পা রাখেন তখন তার বল খেলার সংখ্যা ১০৯টি। ৫টি চারের পাশাপাশি ৪টি ছয়ও হাঁকিয়েছেন তিনি। শেষ পর্যন্ত ১১৮ বলে প্রায় ১০০ স্ট্রাইকরেটে ১১৭ রান করেন তিনি। তার ইনিংসে ছিল ৫টি চার ও ৬টি ছয়ের মার। টেস্ট ক্যারিয়ারে এর আগে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে শতরানের দেখা পেয়েছিলেন তিনি। দুই ম্যাচের সিরিজের প্রথম ম্যাচে ১৬৩ রানের ইনিংস খেলেন তিনি।

হারারে স্পোর্টস ক্লাবে এর আগে প্রথম ইনিংসে ৪৬৮ রান করেছিল মুমিনুল হক বাহিনী। শুরুর ব্যাটসম্যানদের ব্যর্থতার পর মুমিনুলের ব্যাট থেকে আসে ৭০ রান। লিটন দাস আউট হন একেবারে সেঞ্চুরি থেকে ৫ রান দূরে থাকতে। শেষ দিকে দুর্দান্ত প্রতিরোধ গড়ে তুলেন মাহমুদউল্লাহ ও তাসকিন। দুজনেই খেলেন টেস্ট ক্যারিয়ারের সর্বোচ্চ ইনিংস। রিয়াদের ব্যাট থেকে আসে ১৫০ রান ও তাসকিনের ব্যাট থেকে ৭৬। শান্ত ও সাদমান প্রথম ইনিংসে অবশ্য ব্যর্থই হয়েছিলেন। সাদমান ২৩ করলেও শান্ত করেছিলেন মাত্র ৩ রান। জিম্বাবুয়ের হয়ে ৪টি উইকেট নেন ব্লেসিং মুজারাবানি। জবাবে প্রথম ইনিংসে স্বাগতিকরা ২৭৬ রানে অলআউট হয়। কাইটানো ৮৭, টেইলর ৮১, শুম্বা ৪১ ও রেগিস চাকাভা ৩১ রান করেন। বাংলাদেশের হয়ে ৫ উইকেট শিকার করেন মেহেদী হাসান মিরাজ। সাকিব আল হাসান নেন ৪ উইকেট।

জিম্বাবুয়ের বিপক্ষে এই ম্যাচে জিতলে টেস্টে রোডেশীয়দের চেয়ে জয়ের পাল্লা ভারি হবে বাংলাদেশের দিকে। এ ম্যাচ নিয়ে দুদল এখন পর্যন্ত ১৮ টেস্টে মুখোমুখি হচ্ছে। যেখানে বাংলাদেশ ও জিম্বাবুয়ে দুদলের জয়ই ৭টি করে। ড্র হয়ে তিনটি ম্যাচ। আজ যে জিতবে তারাই এগিয়ে যাবে। উল্লেখ্য, টেস্ট ক্যারিয়ারে শান্ত এর আগে একবার হাফসেঞ্চুরি করেছেন। বাংলাদেশের হয়ে তিনি ৩টি টি-টোয়েন্টি ও ৮টি ওয়ানডেও খেলেছেন। শান্ত প্রথম শ্রেণির ও লিস্ট ‘এ’ শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন যথাক্রমে ৪৮ ও ১০৬টি। এই দুই ফরম্যাটে তার মোট সেঞ্চুরি ১৪টি। টেস্টে সাদমান অর্ধশত রান ছুয়েছেন দুবার। শান্ত লাল-সবুজের প্রতিনিধিদের হয়ে তিন ফরম্যাটে খেললেও সাদমান শুধু টেস্টেই খেলছেন। তিনি প্রথম শ্রেণির ম্যাচ খেলেছেন ৫৫টি ও লিস্ট ‘এ’ শ্রেণির ম্যাচ ৫৯টি। এই ক্যাটাগরিতে তার মোট সেঞ্চুরি ১০টি।

এসএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়