নিউজ ফ্ল্যাশ

আগের সংবাদ

হুমায়ুন আহমেদের আঁকা ছবি আত্মসাতের অভিযোগে শাওনের মামলা

পরের সংবাদ

করোনা মোকাবেলার দায়িত্ব সচিবদের দেয়া যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত: নৌপ্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত: জুন ২৯, ২০২১ , ৮:২৩ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ২৯, ২০২১ , ১১:৩২ অপরাহ্ণ

করোনা পরিস্থিতি মোকাবেলায় আমলাদের দায়িত্ব দেয়া নিয়ে জাতীয় সংসদে আওয়ামী লীগের উপদেষ্ঠা পরিষদের সদস্য তোফায়েল আহমেদ প্রশ্ন তুললেও বিষয়টিকে সাধুবাদ জানিয়েছেন নৌপ্রতিমন্ত্রী খালিদ মাহমুদ চৌধুরী। তিনি বলেন, এটি প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত। এর ফলে খাদ্য ও ওষুধ সামগ্রী পৌঁছে দেয়ার কাজ সহজ হয়েছে। চেইন অব কমান্ড বজায় রয়েছে। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ও জেলা প্রসাশকরা মানুষের দ্বারে দ্বারে যাওয়ায় শ্রেণি-পেশার বৈষম্য হয়নি।

মন্ত্রণালয়ের সভাকক্ষে এক পুরষ্কার বিতরণী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে আজ মঙ্গলবার (২৯ জুন) তিনি এসব কথা বলেন। মন্ত্রণালয় ও এর অধীন সংস্থাগুলোর মধ্যে উদ্ভাবনী কাজে বিশেষ অবদানের জন্য ৬ কর্মকর্তাকে এ সময় পুরষ্কৃত করা হয়। অনুষ্ঠানে নৌসচিব মোহাম্মদ মেজবাহ্ উদ্দিন চৌধুরী সভাপতিত্ব করেন।

খালিদ মাহমুদ চৌধুরী বলেন, উন্নত বিশ্ব ও ইউরোপের সরকার প্রধানরা করোনা মোকাবেলায় দিশেহারা হয়ে পড়েছিলেন। করোনা পরিস্থিতিতে ব্যাপক ভীতি তৈরি হয়েছিল। সে ভীতি দূর করে দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী। তিনি বাংলাদেশের মানুষকে সাহসী করে তুলেছেন। প্রধানমন্ত্রী প্রতিটি জেলায় প্রশাসনসহ সংশ্লিটদের সঙ্গে কথা বলেছেন। তাদের সাহস জুগিয়েছেন। করোনা ভাইরাস মোকাবেলায় জেলা পর্যায়ে সচিবদের দায়িত্ব দেয়া প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার যুগান্তকারী সিদ্ধান্ত বলে এ সময় মন্তব্য করেন তিনি।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, উদ্ভাবনী পদক্ষেপ সবক্ষেত্রে গুরুত্বপূর্ণ। উদ্ভাবনী চিন্তাশক্তির কারণে পৃথিবী এগিয়ে যাচ্ছে। বাংলাদেশও এগিয়ে যাচ্ছে। এর মূল উদ্ভাবক বঙ্গবন্ধু কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। দেশকে এগিয়ে নিতে প্রধানমন্ত্রী বিভিন্ন ধরণের পদক্ষেপ নিয়েছেন, যা সহায়ক শক্তি হিসেবে কাজ করছে। এ শক্তি সঞ্চয় করতে পারলে উন্নয়ন আরো গতিশীল হবে।

অনুষ্ঠানে ‘কোভিড-১৯ প্রতিরোধে জনবান্ধব (নন-ইনভেসিভ ভেন্টিলেটর, ডিজইনফেক্ট্যান্ট ওভেন, অটোমেটিক হ্যান্ড স্যানিটাইজার)’ উদ্ভাবনের জন্য মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব সঞ্জয় কুমার বণিক ও বাংলাদেশ মেরিন একাডেমির প্রদর্শক মু. খালেদ সালাউদ্দিন, আরেক উদ্ভাবনের জন্য চট্টগ্রাম বন্দর কর্তৃপক্ষের সদস্য (প্রশাসন ও পরিকল্পনা) মো. জাফর আলম, আইসিটি ইকুইপমেন্ট ম্যানেজমেন্ট সিস্টেমের জন্য মন্ত্রণালয়ের যুগ্ম সচিব (প্রশাসন ও বাজেট) ড. আ ন ম বজলুর রশীদ ও সিস্টেম এনালিস্ট জি এম ফয়সাল আহমদ এবং সভাকক্ষ ব্যবহার ব্যবস্থাপনা উন্নয়নের জন্য সচিবের একান্ত সচিব মো. আব্দুল্লাহ আল মাহমুদকে পুরস্কার দেয়া হয়।

রি-আরএ/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়