দ্বিতীয় মেয়াদে জাতিসংঘের মহাসচিব হলেন গুতেরেস

আগের সংবাদ

২৪ বছর পর ইংলিশদের ড্র

পরের সংবাদ

আওয়ামী লীগের হাত ধরেই বাংলাদেশ

প্রকাশিত: জুন ১৯, ২০২১ , ১১:৩১ পূর্বাহ্ণ আপডেট: জুন ১৯, ২০২১ , ১১:৩৩ পূর্বাহ্ণ

৭২ বছর পূর্ণ হলো মুক্তিযুদ্ধে নেতৃত্বদানকারী দল আওয়ামী লীগের। এই মাহেন্দ্রক্ষণে দলটি সম্পর্কে কী ভাবছেন সহযোগী সংগঠনের নেতারা। ভোরের কাগজের কাছে এ নিয়ে কথা বলেছেন যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল। লিখেছেন মুহাম্মদ রুহুল আমিন।

অসাম্প্রদায়িক বাংলাদেশ গড়ার প্রত্যয় নিয়েই আওয়ামী লীগের জন্ম। জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান এই দলের হাল ধরেছিলেন। বাঙালিকে মুক্তি দিয়েছিলেন। তিনি বিশ্ব দরবারে বাংলাদেশকে একটি স্বাধীন-সার্বভৌম রাষ্ট্রের স্বীকৃতি দিয়ে গেছেন। আজকের আওয়ামী লীগের নেতৃত্ব তারই কন্যা শেখ হাসিনার হাতে। একই সঙ্গে তিনি দেশেরও নেতৃত্ব দিচ্ছেন।

টানা তৃতীয় মেয়াদে আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আছে। জননেত্রী শেখ হাসিনা আওয়ামী লীগের মাধ্যমেই তার মেধা, প্রজ্ঞা ও বুদ্ধিদীপ্ত নেতৃত্বে আজকের বাংলাদেশকে বিশ্বের মানচিত্রে ক্ষুধা, দারিদ্র্যমুক্ত, উন্নত-সমৃদ্ধ বাংলাদেশ হিসেবে স্থান করে দিয়েছেন। ৭২তম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর পূর্বক্ষণে ভোরের কাগজের কাছে দেশের প্রাচীনতম ঐতিহ্যবাহী রাজনৈতিক দল আওয়ামী লীগ সম্পর্কে এভাবেই নিজের অনুভ‚তি তুলে ধরেন আওয়ামী যুবলীগের সাধারণ সম্পাদক মাইনুল হোসেন খান নিখিল।

তিনি বলেন, প্রতিষ্ঠার পর থেকে আজ অবধি নীতি-আদর্শে অটল আছে আওয়ামী লীগ। দেশ ও জাতির কল্যাণ করতেই এই দলটির জন্ম। দেশের মানুষের জন্য জাতির পিতা সারা জীবন কাজ করে গেছেন। তিনি সব সময় মানুষের পাশে থেকেছেন। মানুষকে ঐক্যবদ্ধ করেই একটি স্বাধীন-সার্বভৌম বাংলাদেশ উপহার দিয়েছেন। আজকে তারই সুযোগ্য কন্যা শেখ হাসিনার হাত ধরে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছে দুর্বারগতিতে নবদিগন্তে।

শেখ হাসিনা পরবর্তী আওয়ামী লীগের ভবিষ্যৎ কী? এমন প্রশ্নের জবাবে মাইনুল হোসেন খান নিখিল বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার বিকল্প শেখ হাসিনা নিজেই। এই দলে, এই দেশে শেখ হাসিনার বিকল্প নেই। প্রতিষ্ঠার পর থেকে এই দলটি নির্যাতিত-নিপীড়িত-শোষিত-বঞ্চিত মানুষের জন্য কাজ করে চলেছে। আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীরা মানুষের কল্যাণে সর্বদা নিয়োজিত। সেক্ষেত্রে শেখ হাসিনার অবর্তমানে মহান আল্লাহর রহমতে এই দলের দায়িত্ব কারো না কারো হাতে এসে পড়বে। যারা বঙ্গবন্ধু ও জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অনুসরণ করবে।

তিনি বলেন, বঙ্গবন্ধুকন্যা যেভাবে দেশ ও দল পরিচালনা করে আসছেন। মানুষের কল্যাণে কাজ করে যাচ্ছেন। করোনার এই মহামারির সময়েও উনার সততা, মানবতা, সাহসিকতা ও দৃঢ়তার কারণে বাংলাদেশের অর্থনীতি মজবুত ভিতের ওপর দাঁড়িয়েছে। সেই বিষয়টি মাথায় রেখে পরবর্তী সময় যিনি দলের দায়িত্ব নেবেন, তিনি সেভাবেই দলকে পরিচালনা ও নেতৃত্ব দেবেন। তারা বঙ্গবন্ধুকে অনুসরণ করবেন, জননেত্রী শেখ হাসিনাকে অনুসরণ করবেন- এটা আমরা বিশ্বাস করি।

তিনি বলেন, এই বাংলাদেশের অগ্রযাত্রাকে ব্যাহত করতে বাংলাদেশবিরোধী একটি সাম্প্রদায়িক শক্তি সর্বদাই ষড়যন্ত্র করছে। দেশকে পেছনের দিকে টেনে ধরছে। আওয়ামী লীগের সভাপতি বঙ্গবন্ধুকন্যা শেখ হাসিনার নেতৃত্বে সব ষড়যন্ত্র মোকাবিলা করেই দেশ এগিয়ে যাচ্ছে। আওয়ামী লীগ বাংলাদেশকে বিশ্বের মানচিত্রে উচ্চতর স্থানে প্রতিষ্ঠিত করেছে। আমরা মনে করি, রাষ্ট্রনায়ক শেখ হাসিনার নেতৃত্বে বাংলাদেশ অসাম্প্রদায়িক, সব ধর্মের মানুষের সম্প্রীতির বাংলাদেশ হবে। এই বাংলাদেশ এগিয়ে চলেছে এবং এগিয়ে যাবে ইনশাল্লাহ।

বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলাদেশ গড়তে আমাদের যুবসমাজ সদা-সর্বদা প্রস্তুত থাকবে। ঐতিহ্যবাহী আওয়ামী লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকীর দিনে এইটাই যুবলীগের শপ।

আর-আরএ / এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়