নুসরাতের পক্ষে লিখলেন তসলিমা নাসরিন

আগের সংবাদ

জাবির শিক্ষক নিয়োগ স্থগিতের নির্দেশ হাইকোর্টের

পরের সংবাদ

অদ্ভুত যাদু বিদ্যায় এক পাত্রে মারা হয়েছিল ৫৫ জনকে

প্রকাশিত: জুন ১৫, ২০২১ , ১:০২ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১৫, ২০২১ , ১:০২ অপরাহ্ণ

গ্রিসে পাওয়া গেছে এমন একটি সিরামিক পাত্র যা ব্যবহার হত কোনও এক প্রকার ম্যাজিকের জন্য। একে ব্ল্যাক ম্যাজিক বললেও ভুল হবে না। আবার সেটা যে ওই উদ্দেশ্যেই ব্যবহার করা হত তাও নিশ্চিত করে বলা যাচ্ছে না। তবে পাত্রের ব্যবহার সেই ইঙ্গিতই দিচ্ছে।

জানা গেছে পাত্রটি ২৩০০ বছরের পুরনো। সেটিতে পাওয়া গেছে প্রচুর মুরগির হার। সব হাড়ই ভাঙাচোরা। প্রাচীন এথেন্সের এই পাত্রটি পাওয়া গেছে একটি শহরের বাড়ির নিচ থেকে। প্রত্নতাত্ত্বিকরা বলছেন এটি অভিশাপের পাত্র। ৫৫ জন মানুষের মৃত্যু হয়েছে ওই পাত্রের ম্যাজিকের জন্য। খবর কলকাতা টুয়েন্টিফোরের।

এখানেই উঠে এসেছে ব্ল্যাক ম্যাজিক তত্ব এবং বলা হচ্ছে এটা প্রমাণ করছে যে সেই সময়ে এই ধরণের কোনও যাদু বিদ্যা ব্যবহার করা হত। বলা হচ্ছে যে, ওই পাত্রের ভিতরে মুরগির যে হাড় পাওয়া গেছে সেগুলির বিভিন্ন প্রান্তে ছিদ্র রয়েছে বা বোঝা গেছে কোনও কিছু সুচালো জিনিস ঠুকে হাড় ছিদ্র করা হয়েছে। বলা হচ্ছে মুরগিগুলিকে খুব নৃশংসভাবে হত্যা করা হয়েছে। সেগুলির বয়স সাত মাসের বেশি ছিল না। সেগুলিকে মেরেই মানুষের উপর হত্যার চেষ্টা করা হত।

তবে ২৩০০ বছর পেরিয়ে এই ইন্টারনেটের দুনিয়াতেও এখন এই ধরনের যাদুবিদ্যার উপর ভরসা করা হয়। সম্প্রতি গুপ্তধনের সন্ধানে অন্ধবিশ্বাসের বলি হয় দুই বছরের এক শিশু। মহারাষ্ট্রের চন্দ্রপুরের খান্ডালা গ্রামের ঘটনা। অশোক মেশরামের ছেলে যুগ মেশরাম নিখোঁজ ছিল। সে তার দাদা হর্ষলের (৪) সঙ্গে বাড়ির সামনেই খেলছিল। হর্ষল বাড়ি ফিরলেও যুগ আর ফেরেনি। ছোট ছেলেকে খুঁজে না পেয়ে ব্রহ্মপুরী পুলিশ স্টেশনে অভিযোগ দায়ের করে তার বাবা।

চন্দ্রপুর পুলিশ সুপারিন্টেডেন্ট মাহেশ্বর রেড্ডি জানান, শিশুটিকে খুঁজতে কয়েকটি দল গঠন করা হয়। মেশরামের প্রতিবেশীদের থেকে জানা যায়, সুনীল এবং প্রমোদ বাংকার নামে দুই ব্যক্তি ব্ল্যাক ম্যাজিক বা কালা জাদু নিয়ে চর্চা করছিল। তাই তাদের ওপর নজর রাখা শুরু হয়।

পরে প্রমোদের বাড়ি থেকে যুগের দেহ উদ্ধার করা হয়। তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করতেই দোষ স্বীকার করে। তাদের গ্রেপ্তার করা হয়। মেশরামের সঙ্গে তার এই দুই প্রতিবেশীর ভালো সম্পর্ক থাকায় তাদের ওপর কখনোই সন্দেহের প্রশ্ন ওঠেনি।

পুলিশের মতে, কালা জাদুর জন্য যুগকে হত্যা করে তারা। অন্ধবিশ্বাস এবং কালো জাদু বিরোধী আইন এবং আইপিসির ৩০২ ধারায় মামলা দায়ের করা হয় ওই দুই জনের বিরুদ্ধে।

ডি-ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়