খালেদার জন্মদিনের নথি হাইকোর্টে তলব

আগের সংবাদ

বিএনপির রাজনীতি গভীর সংকটে: ওবায়দুল কাদের

পরের সংবাদ

নিখুঁত ছবি আঁকে শূকর, লাখে বিক্রি হয় পেন্টিং

প্রকাশিত: জুন ১৩, ২০২১ , ১:২২ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১৩, ২০২১ , ১:২২ অপরাহ্ণ

নাম তার পিগক্যাসো। নাম পড়েই বুঝতে পারছেন তার বিশেষ গুণের কথা। এককালে মানুষ যে গুণের জন্য বিশেষ পরিচিত ছিল এখন সেই গুণ আস্তে আস্তে প্রাণীদের মধ্যে ছড়াচ্ছে সংক্রমণের মত। তবে এই সংক্রমণে চিন্তার কোন বিষয় নেই। কারণ সেটা আমাকে, আপনাকে এবং পৃথিবীর প্রতিটি বাসিন্দাকেই নিঃস্বার্থ আনন্দ দান করতে পারে। তুলির টানে নিখুঁত আঁকতে পারে এই ছোট্ট, মিষ্টি শূকর ছানা।

তাকে উদ্ধার করা হয়েছিল এক কসাইখানা থেকে। তখন তার বয়স ছিল মাত্র ৪ সপ্তাহ। যে মহিলা তাকে উদ্ধার করেছিলেন তিনি ছবি আঁকেন। হঠাৎ করেই তার সেই ছবি আঁকা দেখতে দেখতে আপন দক্ষতায় সকলকে চমকে দিয়ে একদিন নিজের থেকেই তুলি দিয়ে আপন মনে ছবি আঁকতে শুরু করল সেই শূকর ছানা।

এরপর আস্তে আস্তে নিজের গুণ ক্রমশ জাহির করতে থাকে সে। আর এখন তার প্রতিটি আঁকা ছবি বিক্রি হয় অন্তত দুই থেকে তিন লক্ষ টাকায়।

২০১৬ সালে তাকে উদ্ধার করে দক্ষিণ আফ্রিকায় নিয়ে আসা হয়। আর এখন তার ওজন ৪৫০ পাউন্ড। তার আঁকা ছবিগুলো দেখলেই বুঝতে পারবেন যে সে অ্যাবস্ট্রাক্ট আর্টে বিশ্বাসী। এতদিন আপনি হয়তো আরো অন্য বিভিন্ন প্রাণীদের কে দেখেছেন ছবি আঁকতে। কিন্তু পিগক্যাসোই প্রথম শূকর যে এই সৃজনশীলতার দিকে নিজের দক্ষতা প্রমাণ করেছে সারা পৃথিবীর মধ্যে।

এখন তো বিভিন্ন সংস্থার মতো এই শূকরটির একটি নিজস্ব একটি ওয়েবসাইট রয়েছে যেখানে তার হাতে আঁকা এই সুন্দর ছবিগুলির এক্সিবিশন হয়। পিগক্যাসো যে অর্থ উপার্জন করে সেই অর্থের বেশিরভাগটাই যায় প্রাণীদের রক্ষণাবেক্ষণের জন্য গঠিত বিভিন্ন সেবামূলক সংস্থায়। এমনকি বেশ কিছু বিখ্যাত সংস্থার সঙ্গে সে কাজও করেছে যেখানে তার আঁকা ছবিই ছিল মূল।

বিশেষজ্ঞরা বলেন যে শূকররা জন্মগতভাবেই খুবই সৃজনশীল এবং বুদ্ধিদীপ্ত প্রাণী। তাই তার এই বিশেষ প্রতিভায় অবাক হওয়ার কিছু নেই। তাই আমাদের উচিত প্রকৃতির এমন অমূল্য সৃষ্টিগুলিকে সযত্নে রক্ষা করা।

ডি-এফবি

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়