শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানের ছুটি বাড়ল ৩০ জুন পর্যন্ত

আগের সংবাদ

বঙ্গোপসাগরে লঘুচাপ, সমুদ্রবন্দরে ৩ নম্বর সতর্কতা

পরের সংবাদ

কোম্পানীগঞ্জে বাদলের ওপর কাদের মির্জার অনুসারীদের হামলা

প্রকাশিত: জুন ১২, ২০২১ , ১:৫০ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১২, ২০২১ , ৩:৩২ অপরাহ্ণ

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদলের ওপর হামলার ঘটনা ঘটেছে। হামলাকারীরা কাদের মির্জার অনুসারী বলে জানা গেছে।

বাদলের ব্যবহৃত গাড়ি ও তার সঙ্গে থাকা উপজেলা আওয়ামী লীগের মুখপাত্র হাসিবুল হোসেন আলাল ওপরও হামলা চালানো হয়। শনিবার (১২ জুন) সকাল পৌনে ১০টার দিকে বসুরহাট বাজারের প্রেসক্লাব কোম্পানীগঞ্জের সামনে বসুরহাট-দাগনভূঞা সড়কে এই ঘটনা ঘটে।

মিজানুর রহমান বাদল

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা উপজেলা আওয়ামী লীগের (একাংশ) মুখপাত্র মাহবুবুর রশীদ মঞ্জু বলেন, শনিবার সকাল ৯ টার দিকে সাবেক উপজেলা চেয়ারম্যান মিজানুর রহমান বাদল তার ব্যক্তিগত গাড়িতে করে আওয়ামী লীগ নেতা আলালসহ ঢাকার উদ্দেশ্যে বসুরহাট হয়ে রওনা করেন। যাত্রা পথে বসুরহাট বাজারের প্রেসক্লাব কোম্পানীগঞ্জের একটু সামনে পৌঁছালে বিপরীত দিক থেকে কাদের মির্জা তার ৪০-৫০জন অনুসারীদের নিয়ে বাজার পরিদর্শন করে আসার পথে বাদলের গাড়ির মুখোমুখি হয়।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মিজানুর রহমান বাদলের ব্যবহৃত গাড়ি।

এ সময় কাদের মির্জার নেতৃত্বে তার অনুসারী কেচ্ছা রাসেল, মাসুদ, শিহাব, সজল, আরিফ, ওয়াসিমসহ ৪০-৫০ জন অনুসারী মিজানুর রহমান বাদলের গাড়ির গতি রোধ করে তার ওপর অতর্কিত হামলা চালায়।

মঞ্জু আরো বলেন, হামলাকারীরা প্রথমে তার গাড়ির পিছনে গুলি করে। এক পর্যায়ে গাড়ির গতি রোধ করে তাকে এলোপাতাড়ি পিটিয়ে তার হাত-মাথা ফাটিয়ে দেয়, পা ও বুকের হাড় ভেঙে দেয় এবং কানেও আঘাত করে।

কোম্পানীগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সের আবাসিক মেডিকেল কর্মকর্তা মো. জোবায়ের জানান, মিজানুর রহমান বাদলের বুক, হাত, পা, মাথায় আঘাত রয়েছে। তাকে প্রাথমিক চিকিৎসা দিয়ে উন্নত চিকিৎসার জন্য নোয়াখালী জেনারেল হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এদিকে বসুরহাট পৌরসভার মেয়র আবদুল কাদের মির্জা এই হামলার সঙ্গে তিনি এবং তার অনুসারীদের জড়িত থাকার অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, আমি সকালে বসুরহাট বাজারের সার্বিক পরিস্থিতি দেখতে বাজার পরিদর্শন করি। এ সময় আমার সঙ্গে বাজারের ব্যবসায়ী ও সাধারণ মানুষজন উপস্থিত ছিলেন। বাজার পরিদর্শন শেষে আমি যথারীতি পৌর ভবনে চলে আসি। কে বা কারা বাদলের ওপর হামলা করেছে, নাকি এটা সাজানো নাটক তার কিছুই জানি না।

কোম্পানীগঞ্জ থানার পরিদর্শক (তদন্ত) আবুল কালাম আজাদ বলেন, পুলিশ বিষয়টি খতিয়ে দেখছে। অভিযুক্তদের বিরুদ্ধে আইনানুগ ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

এসআর

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়