এবার ইউরো মাতাবেন যারা

আগের সংবাদ

শুক্রবার থেকে রাজশাহীতে কঠোর লকডাউন, সব ট্রেন বন্ধ

পরের সংবাদ

রাজধানীর গুলশানে ভাতিজির হাতে ফুপু খুন

প্রকাশিত: জুন ১০, ২০২১ , ১০:৫৮ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ১০, ২০২১ , ১০:৫৮ অপরাহ্ণ

রাজধানীর গুলশানের কালাচাঁদপুর এলাকার একটি বাসা থেকে নিকিতা আক্তার (৪০) নামে এক গৃহবধূর রক্তাক্ত মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। বৃহস্পতিবার (১০ জুন) বেলা তিনটার দিকে বাসার দরজার লক খুলে মরদেহ উদ্ধার করা হয়। এ ঘটনায় নিকিতা আক্তারের ভাতিজি জেসমিন আক্তারকে আটক করেছে গুলশান থানা পুলিশ।

পুলিশ জানায়, বাসার শিলপাটা পুতা ও বটির আঘাতে তাকে হত্যা করা হয়। বৃহস্পতিবার সকাল থেকে দুপুরের মধ্যে যেকোনো সময়ে হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছে।

বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে ৯টার দিকে গুলশান থানার ডিউটি অফিসার জানান, মরদেহ ঘটনাস্থলেই রয়েছে। ঢাকা মেডিকেলে পাঠানোর প্রক্রিয়া চলছে।

নিকিতা আক্তারের স্বজনেরা জানান, পারিবারিক কলহের জের ধরে এ হত্যাকাণ্ড ঘটেছে। নিকিতা আক্তার ওই বাড়ির মালিক। গত রমজানে সবাই বাসা ছেড়ে গ্রামের বাড়ি চলে যায়। ঈদের পর শুধু নিকিতা ও জেসমিন বাসায় আসে। বেশ কয়েকদিন ধরেই তারা এখানে অবস্থান করছে। জেসমিনের ছোট বাচ্চাকে নিয়ে নিকিতার সঙ্গে আগে থেকেই দ্বন্দ্ব ছিল। এর জের ধরে জেসমিন হত্যাকাণ্ড ঘটিয়ে নিজেই স্বজনদের জানায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, বৃহস্পতিবার বেলা তিনটার দিকে নিহতের স্বজনেরা পুলিশের সহায়তায় বাসার দরজার লক খুলে ভেতরে প্রবেশ করে। এ সময় নিকিতার রক্তাক্ত মরদেহ পরে থাকতে দেখা যায়। তার মাথা, মুখ ও গলায় আঘাতের চিহ্ন রয়েছে। ধারণা করা হচ্ছে তাকে গত রাতেই (বুধবার দিবাগত রাত) হত্যা করা হয়েছে।

গুলশান থানার ওসি আবুল হাসান জানান, স্বামী মুরাদকে নিয়ে নিহত নারী কালাচাঁদপুর এলাকায় নিজ বাসায় থাকতেন। তার ভাতিজি বাসায় বেড়াতে এসেছিল। কি কারণে এ হত্যাকাণ্ডের ঘটনাটি ঘটেছে বিস্তারিত জানার চেষ্টা করছি। আইনি প্রক্রিয়া শেষে মৃতদেহ ময়নাতদন্তের জন্য ঢাকা মেডিকেল মর্গে পাঠানো হবে।

রি-কেকে/ইভূ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়