রোহিঙ্গা ইস্যুতে যুক্তরাষ্ট্র যাচ্ছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী

আগের সংবাদ

এনআইডি কার্যক্রমের বিষয়ে মন্ত্রিপরিষদ বিভাগে ইসির চিঠি

পরের সংবাদ

সংশয় নেই কোপা আমেরিকা ঘিরে

প্রকাশিত: জুন ৮, ২০২১ , ১০:১৮ অপরাহ্ণ আপডেট: জুন ৮, ২০২১ , ১০:৫৩ অপরাহ্ণ

সংশয় দানা বেঁধেছিল আসন্ন কোপা আমেরিকা টুর্নামেন্ট ঘিরে। ব্রাজিল, আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ের খেলোয়াড়রা অস্বীকৃতি জানানোয় টুর্নামেন্ট হবে কিনা তা নিয়েই দ্বন্দ্বে পড়েছিলেন আয়োজকরা। কিন্তু সেই সংশয় কেটে গিয়েছে। নির্ধারিত সময়েই আয়োজিত হবে ম্যাচগুলো। তবে অপরিপক্ব সিদ্ধান্তের ভিত্তিতে ব্রাজিলে টুর্নামেন্ট নিয়ে আসায় মৃদু প্রতিবাদ করে যাবেন ক্যাসেমিরো-নেইমাররা। ব্রাজিলিয়ান টিভি গ্লোবো এস্পোর্তের এক প্রতিবেদন থেকে এমনটাই জানা গেছে।

যৌথভাবে এবারের কোপা আমেরিকা বসার কথা ছিল কলম্বিয়া ও আর্জেন্টিনায়। তবে কলম্বিয়ায় রাজনৈতিক অস্থিরতা ও আর্জেন্টিনায় করোনা মহামারির কারণে টুর্নামেন্ট আয়োজন করার সিদ্ধান্ত বাস্তবায়নের সাহস করেননি আয়োজকরা। এরপর ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশন তা আয়োজন করার কথা জানায়। কিন্তু ব্রাজিল মিডফিল্ডার ক্যাসেমিরোসহ দলের প্রায় সব খেলোয়াড় নিরাপত্তার প্রসঙ্গ তুলে টুর্নামেন্ট বয়কট করার উদ্যোগ নেন। কোচ তিতেও ছিলেন সেই দলে। এখন সে সিদ্ধান্ত থেকে সরে এসেছে পুরো দল। আর্জেন্টিনা ও উরুগুয়ে ফুটবল ফেডারেশন একদিন আগেই টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করার কথা জানায়। ফলে আর কোনো সংশয় রইল না কোপার আসর ঘিরে।

এক বিবৃতিতে কোপায় অংশগ্রহণ করার বিষয়টি নিশ্চিত করেছে আর্জেন্টিনা ফুটবল অ্যাসোসিয়েশন। তারা জানায়, ‘অবর্ণনীয় প্রচেষ্টা শেষে আমরা ততটুকু স্বাস্থ্য সুরক্ষা নিশ্চিত করেছি, যা আমাদের প্রয়োজন। কাজেই টুর্নামেন্টে অংশ নিতে আমরা ব্রাজিল যাচ্ছি- এটা নিয়ে কোনো সন্দেহ নেই।’

টুর্নামেন্টে অংশগ্রহণ করলেও ব্রাজিলের ফুটবলাররা ফেডারেশনের সভাপতি রোজেরিও কোবেক্লোর বিরুদ্ধে মৃদু প্রতিবাদ জারি রাখবেন, যিনি কিনা করোনার এই সময়ে সুস্পষ্ট পরিকল্পনা ও স্বাস্থ্য সুরক্ষার বিষয়টি নিশ্চিত না করেই ব্রাজিলে আসর বসানোর মতো গুরুত্বপূর্ণ সিদ্ধান্ত নিয়েছেন। রোজেরিও আবার এক নারী কর্মকর্তাকে যৌন নির্যাতনের অভিযোগে ৩০ দিনের জন্য নিষেধাজ্ঞায় রয়েছেন। ২০১৮ সালের ১৭ এপ্রিল বিপুল ভোট পেয়ে ব্রাজিল ফুটবল ফেডারেশনের সভাপতি নির্বাচিত হয়েছিলেন তিনি। সভাপতি হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেন ২০১৯ সালের এপ্রিলে, যার মেয়াদ শেষ হবে ২০২৩ সালের এপ্রিলে।

এর আগে কোপা আমেরিকায় খেলতে অস্বীকৃতি জানান ব্রাজিলের রিয়াল মাদ্রিদ মিডফিল্ডার ক্যাসেমিরো, উরুগুয়ের অ্যাতলেটিকো মাদ্রিদ স্ট্রাইকার লুইস সুয়ারেজ ও ম্যানইউ তারকা এডিনসন কাভানি। ক্যাসেমিরো বলেছিলেন, ‘আমাদের দেশে কোপা আমেরিকা আয়োজন নিয়ে সবাই অবগত। বিষয়টি এখনই পরিষ্কার হচ্ছে না। তবে আমরা এর বিরুদ্ধে প্রতিবাদ করব। এই দলে শুধু আমি বা ইউরোপিয়ান ক্লাবগুলোয় যারা খেলে তারা নয়, আমাদের সমর্থন দিচ্ছেন কোচ তিতেও।’

তিতে বিষয়টি স্বীকার করে বলেন, ‘খেলোয়াড়দের খুব পরিষ্কার একটি সিদ্ধান্ত রয়েছে ফুটবল ফেডারেশনের প্রেসিডেন্টের বিরুদ্ধে এবং এ টুর্নামেন্টে খেলার ব্যাপারে।’ ব্রাজিলের অনেকে তো দাবিই তুলেছিলেন, করোনা ভাইরাস মহামারিতে তারা কোপা আমেরিকা দেখতে চান না। পেতে চান করোনার টিকা। কোপার ফাইনালের ভেন্যু হিসেবে ঘোষিত বিখ্যাত মারাকানা স্টেডিয়ামের বাইরে ব্যানার ঝুলিয়ে দেয়া হয়েছিল, ‘কোপা আমেরিকা নয়, করোনা ভাইরাসের টিকা চাই।’

রি-এসএস/ডি-এমএইচ

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়