অবৈধ পথে ভারত থেকে দেশে ২৭ জন, করোনা ৩ জনের

আগের সংবাদ

বিশ্বে করোনায় মৃত্যু ৩৩ লাখ ৭১ হাজার ছাড়াল

পরের সংবাদ

অক্সিজেনের অভাবে ভারতের হাসপাতালে ৪ দিনে ৭৫ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত: মে ১৫, ২০২১ , ৯:০৩ পূর্বাহ্ণ আপডেট: মে ১৫, ২০২১ , ৯:০৩ পূর্বাহ্ণ

ভারতের গোয়াতে আবারও অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয়েছে। গোয়ার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে শুক্রবার (৪ মে) সকালে অক্সিজেনের অভাবে মৃত্যু হয়েছে ১৩ জন করোনা সংক্রমিত রোগীর। বৃহস্পতিবার এই সংখ্যা ছিল ১৫। তার আগের দিন অক্সিজেনের অভাবে মারা যায় ২১ জন।

মঙ্গলবার ২৬ জনের মৃত্য হয় প্রাণবায়ুর অভাবে। সব মিলিয়ে গত ৪ দিনে এই হাসপাতালে ৭৫ জন করোনা সংক্রামিত রোগীর মৃত্যু হয়েছে অক্সিজেনের অভাবে। এটি ছিল রাজ্যের সবচেয়ে বড় কোভিড স্বাস্থ্য পরিষেবা কেন্দ্র।

তবে গোয়ার মুখ্যমন্ত্রী প্রমোদ সাওয়ান্ত দাবি করেছিলেন যে অক্সিজেনের কোনও অভাব নেই রাজ্যে। বিষয়টি লঘু করে দেখাতে চেয়ে তিনি বলেন, হয়তো অক্সিজেন পাওয়া আর তার সরবরাহের মধ্যে সময়ের ব্যবধানের জন্য এমন কিছু হয়ে থাকতে পারে। এদিকে এই ঘটনার তদন্তে রস্বার্থে উচ্চ পর্যায়ের কমিটি গঠন করা হয়েছে বৃহস্পতিবার। তিনদিনের মধ্যে সেই কমিটিকে রিপোর্ট পেশ করতে হবে। তবে তার আগে মৃত্যু মিছিল অব্যাহত গোয়ার এই হাসপাতালে।

বৃহস্পতিবার সন্ধ্যা পর্যন্ত পাওয়া হিসাব অনুযায়ী গোয়ার পজিটিভিটির হার ৪৮.১ শতাংশ। গোটা দেশে গোয়াতেই পজিটিভিটির হার সবচেয়ে বেশি। সে রাজ্যে গড়ে প্রত্যেক সেকেন্ডে একটা রিপোর্টের ফল পজিটিভ হচ্ছে। এরই মধ্যে গোয়ার মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতাল করোনা সংক্রামিত রোগীতে ভরে গিয়েছে। নতুন কোনও রোগী ভর্তির জায়গা নেই, সম্প্রতি যারা ভর্তি হয়েছেন, তারাও মাটিতে রয়েছেন। এর মাঝে অক্সিজেনের অভাবে এভাবে রোগী মৃত্যু ভাবিয়ে তুলেছে সবাইকে।

এর আগে বৃহস্পতিবার রাজ্য সরকার অক্সিজেন সরবরাহ নিয়ে অভিযোগ জানিয়েছিল বম্বে হাইকোর্টে। এরপর বৃহস্পতিবার বোম্বে হাইকোর্টের গোয়া বেঞ্চ স্পষ্ট করে জানিয়েছে রাজ্যে কোনও করোনা সংক্রমিত রোগীই যেন স্বাস্থ্য পরিষেবার অভাবে মারা না যায়। আজ এই মৃত্যুর পর সন্ধ্যা সাতটার মধ্যে হাসপাতাল কর্তৃপক্ষ আর রাজ্যকে অক্সিজেনের প্রাপ্যতা, সরবরাহ সম্পর্কিত যাবতীয় তথ্য দিতে বলেছে হাইকোর্ট।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়