চীন থেকে আরো টিকা আনবে সরকার: স্বাস্থ্যমন্ত্রী

আগের সংবাদ

চীন আমাদের বন্ধুপ্রতিম, আমরা সবসময় সহায়তা পেয়েছি: পররাষ্ট্রমন্ত্রী

পরের সংবাদ

ড. অনুপম সেনের স্ত্রী উমা সেনগুপ্ত আর নেই

প্রকাশিত: মে ১২, ২০২১ , ১:৩৭ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ১২, ২০২১ , ৫:৫৪ অপরাহ্ণ

বিশিষ্ট সমাজবিজ্ঞানী-শিক্ষাবিদ, প্রিমিয়ার বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক ড. অনুপম সেনের সহধর্মিণী উমা সেনগুপ্তা আর নেই। মঙ্গলবার দিবাগত রাত ১ টার দিকে তিনি শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন। তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা, আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক, সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের সহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দল ও সংগঠনের নেতারা।

উমা সেনগুপ্তা উচ্চ রক্তচাপের কারণে মস্তিষ্কের রক্তক্ষরণের ফলে দীর্ঘ বারো বছর অর্ধ-কোমায় ছিলেন। অধ্যাপক অনুপম সেন-উমা সেনগুপ্তা দম্পতির একমাত্র কন্যা, জামাতা, নাতি-নাতনীসহ অসংখ্য আত্মীয়স্বজন ও শুভানুধ্যায়ী রয়েছে। বুধবার (১২ মে) চট্টগ্রামের পটিয়া উপজেলার ধলঘাটে নিজ বাড়িতে তার শেষকৃত্যানুষ্ঠান সম্পন্ন হবে বলে পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে।

উমা সেনগুপ্তার পিতা ব্রিটিশবিরোধী বিপ্লবী সুবোধ বল মাস্টারদা সূর্য সেনের সহযোদ্ধা হিসেবে চট্টগ্রাম অস্ত্রাগার লুণ্ঠন ও জালালাবাদ যুদ্ধে অংশগ্রহণ করেন। তার দুই ভাই টেগরা বল ও প্রভাস বল জালালাবাদ যুদ্ধে শহীদ হন। তার বড় ভাই লোকনাথ বল এই যুদ্ধের প্রধান সেনাপতি ছিলেন। প্রয়াত শ্রীমতী উমা সেনগুপ্তা প্রিয়ভাষিণী, স্বভাবমাধুর্যের জন্য তিনি স্বজন ও পরিজনদের মাঝে অত্যন্ত প্রিয়ভাজন ছিলেন। উমা সেনগুপ্তা ১৯৪৮ সালের ১০ সেপ্টেম্বর চট্টগ্রামের বোয়ালখালী উপজেলার কানুনগোপাড়া গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৭২ বছর।

তার মৃত্যুতে শিক্ষাউপমন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল, বিশিষ্ট মানবাধিকার সংগঠক, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুন্যালের প্রসিকিউটর রানা দাশগুপ্ত, প্রধানমন্ত্রীর বিশেষ সহকারি ব্যারিষ্টার বিপ্লব বড়ুয়া, ভোরের কাগজ সম্পাদক শ্যামল দত্ত, বিভিন্ন সামাজিক-রাজনৈতিক-সাংস্কৃতিক সংগঠন পৃথক পৃথক ভাবে তার মৃত্যুতে গভীর শোক প্রকাশ করে শোকসন্তপ্ত পরিবারের সদস্যদের প্রতি গভীর সমবেদনা জানিয়ে প্রয়াতের আত্মার শান্তি কামনা করেছেন।

এছাড়া প্রিমিয়ার ইউনিভার্সিটির বোর্ড অব ট্রাষ্টি সদস্যগনসহ বিশ্ববিদ্যালয়ের ট্রেজারার অধ্যাপক একেএম তফজল হক, কলা ও সমাজবিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. মোহীত উল আলম, ব্যবসা-শিক্ষা অনুষদের প্রফেসর অমল ভূষণ নাগ, প্রকৌশল ও বিজ্ঞান অনুষদের ডিন প্রফেসর ড. তৌফিক সাঈদ, রেজিস্ট্রার খুরশিদুর রহমান, পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক জনাব শেখ মুহাম্মদ ইব্রাহিমসহ ইউনিভার্সিটির সকল শিক্ষক-শিক্ষিকা ও কর্মকর্তা-কর্মচারী গভীর শোক প্রকাশ করেছেন।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়