পনেরো ম্যাচ পর আরামবাগের প্রথম জয়

আগের সংবাদ

নতুন অধিনায়কের নেতৃত্বে বাংলাদেশে আসছে লঙ্কানরা

পরের সংবাদ

শরীয়তপুরে খাদ্য গুদাম থেকে কালো বাজারে চাউল বিক্রি

প্রকাশিত: মে ১১, ২০২১ , ৭:২৫ অপরাহ্ণ আপডেট: মে ১১, ২০২১ , ৭:২৫ অপরাহ্ণ

শরীয়তপুরের আংগারীয়া খাদ্য গুদাম থেকে ব্যবসায়ীদের কাছে কালো বাজারে চাউল বিক্রির অভিযোগ দীর্ঘ দিনের। শ্রমিকের মাধ্যমে এক বস্তা এক বস্তা করে গুদাম থেকে চাউল সরানো হয় এমন অভিযোগ স্থানীয়দের। মঙ্গলবার (১১ মে) দুপুর ১২টায় স্থানীয় খাদ্য গুদামের সামনে গিয়ে দেখা যায়, গুদাম থেকে একজন শ্রমিক ও.এম.এস এর এক বস্তা চাউল বাজারে নিয়ে যাচ্ছে। গুদাম থেকে কিসের চাউল বাজারে নিচ্ছেন- জিজ্ঞাসা করলে তিনি ডিলারের ঘরে চাউল দিচ্ছি বলে চাউলের বস্তা ফেলে সটকে পড়ে।

বিষয়টি উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনদিপ ঘরাইকে মুঠোফোনে জানানো হলে, ঘন্টা খানেক পরে ছুটে আসেন ওই খাদ্য গুদামের ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা দিলিপ কুমার সরকার। তিনি বলেন, ও.এম.এস এর ডিলারের দোকান থেকে এক বস্তা চাউল পাল্টানোর জন্য পাঠিয়ে ছিল। আমার শ্রমিকরা ওই চাউল পাল্টিয়ে দিয়েছে। অন্য কিছু না।

খাদ্য গুদাম থেকে এক বস্তা এক বস্তা করে চাউল সরানো হয় এমন অভিযোগ অস্বীকার করে তিনি বলেন, মানবিক কারণে ডিলারের এক বস্তা চাউল পাল্টিয়ে দিয়েছি। ওই চাউল নেয়ার সময় আপনাদের সামনে পড়েছে। তবে ওই খাদ্য কর্মকর্তা তার বক্তব্যের পক্ষে কোন কাগজপত্র প্রদর্শন করতে পারেনি।

এ বিয়য়ে জেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রক (অতিরিক্ত দায়িত্ব) মো নুরুল হক মিয়া বলেন, গুদাম থেকে এভাবে চাউল বের হওয়ার কোন সুযোগ নেই। মানবিক কারণে হয়তো এমনটা হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে দেখবো।

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মনদিপ ঘরাই বলেন, বিষয়টি আমি জেনেছি। কিভাবে গুদাম থেকে কোন ডকুমেন্ট ছাড়া চাউল বাহিরে আসেছে- বিষয়টি তদন্ত করে দেখা হবে।

মন্তব্য করুন

খবরের বিষয়বস্তুর সঙ্গে মিল আছে এবং আপত্তিজনক নয়- এমন মন্তব্যই প্রদর্শিত হবে। মন্তব্যগুলো পাঠকের নিজস্ব মতামত, ভোরের কাগজ লাইভ এর দায়ভার নেবে না।

জনপ্রিয়